ঢাকা, সোমবার, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০৮ মহররম ১৪৪৬

জলবায়ু ও পরিবেশ

ঈদে চার বিভাগে বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯১৯ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০২৪
ঈদে চার বিভাগে বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে

ঢাকা: আষাঢ়ের দুই তারিখ এবার দেশব্যাপী মুসলিম উম্মার অনুসারীরা পালন করবেন পবিত্র ঈদুল আজহা। আষাঢ় মাস বলে কথা- বৃষ্টি হবে, এ তো প্রকৃতির নিয়ম।

তবে এবারের ঈদে কোথাও হবে তুলনামূলক বেশি বৃষ্টিপাত। আবার কোথাও হবে রোদ-বৃষ্টির খেলা।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট ও চট্টগ্রাম বিভাগের অধিকাংশ জায়গায় বৃষ্টিপাত হতে পারে। তবে সব স্থানে টানা বৃষ্টির আভাস নেই।

অন্যদিকে ঢাকাসহ বাকি চার বিভাগেও বৃষ্টিপাত হবে। তবে এ সকল বিভাগে চলবে রোদ-বৃষ্টির খেলা। রাজধানীতেও বৃষ্টিপাতের আভাস রয়েছে। তবে একটানা বা ভারী বৃষ্টিপাতের আভাস নেই।

আবহাওয়াবিদ ড. মুহাম্মদ আবুল কালাম মল্লিক বলেন, আষাঢ় মাসের একেবারে প্রথমেই ঈদ পালিত হবে। বর্ষার মেঘ এখন সারাদেশেই বিস্তার লাভ করেছে। ফলে বৃষ্টিপাত হবে এটিই স্বাভাবিক ঘটনা। তবে উত্তর ও উত্তরপূর্বাঞ্চলের তিন বিভাগ ও চট্টগ্রাম বিভাগে বেশি বৃষ্টিপাত হতে পারে। একটানা বর্ষণের শঙ্কা তেমন না থাকলেও কোথাও কোথাও ভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। এছাড়া ঢাকাসহ অন্যান্য বিভাগে বৃষ্টি হলেও রোদের দেখা মিলবে। রাজধানীতেও থাকবে রোদ-বৃষ্টি। এছাড়া বিরাজ করতে পারে ভ্যাপসা গরমও।

এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, শনিবার (১৫ জুন) সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়, চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায়; ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু'এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

খুলনা বিভাগসহ গোপালগঞ্জ জেলার উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তিভাব বিরাজমান থাকতে পারে।

শনিবার সন্ধ্যা থেকে রোববার (১৬ জুন) সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়, রাজশাহী, ঢাকা এবং চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু'এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে।

চলমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তিভাব বিরাজমান থাকতে পারে।

রোববার সন্ধ্যা থেকে সোমবার (১৭ জুন) সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়; ঢাকা এবং চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দু'এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি/বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সাথে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

চলমান তাপপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তিভাব বিরাজমান থাকতে পারে। আর বর্ধিত পাঁচ দিনে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে।

বাংলাদেশ সময়: ০৯১৯ ঘণ্টা, জুন ১৫, ২০২৪
ইইউডি/এমএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।