ঢাকা, সোমবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ মে ২০২২, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩

জলবায়ু ও পরিবেশ

জাতিসংঘ পর্যবেক্ষকদের ব্রিফিং

তেলের প্রভাব সীমিত, নৌ চলাচল বন্ধের সুপারিশ

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৪
তেলের প্রভাব সীমিত, নৌ চলাচল বন্ধের সুপারিশ ছবি: জি এম মুজিবুর/বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: ট্যাংকারডুবির ঘটনায় তেলের প্রভাব সীমিত জানিয়ে সুন্দরবনের মাঝখান দিয়ে প্রবাহিত নদীতে নৌযান চলাচল বন্ধের সুপারিশ করেছে জাতিসংঘের পর্যবেক্ষক দল।

বুধবার (৩১ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ সুপারিশ করে পর্যবেক্ষক দলটি।



সরকারের সঙ্গে যৌথভাবে পর্যবেক্ষণ করে পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে এ যৌথ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে পর্যবেক্ষক দলটি।

বিশেষজ্ঞ দলের পর্যবেক্ষণের ওপর ভিত্তি করে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ম্যানগ্রোভ ও জলজ বাস্তুতন্ত্রের ওপর আপাতত তেলের প্রভাব সীমিত। স্থানীয় জনসাধারণের তৎপরতা, সরকার বিশেষ করে বনবিভাগের দুর্ঘটনা পরবর্তী সময়ে শ্যালা নদীতে ট্যাংকার চলাচল নিষিদ্ধ করার সময়োপযোগী উদ্যোগ, সর্বোপরি জোয়ার-ভাটার পরিবর্তন পরিস্থিতির অনুকূলে থাকায় ‍বাস্তুব্যবস্থার মধ্যে তেলের অনুপ্রবেশের সুযোগ অনেকটাই কমিয়ে দেয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, পরিবেশগত দৃষ্টিকোণ থেকে সুন্দরবনের মতো মহামূল্যবান এবং বৈচিত্র্যপূর্ণ ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটের মাঝখান দিয়ে নৌ চলাচল বন্ধ করা উচিত। যদিও এবার বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয় অনুকূলে থাকায় এ দুর্ঘটনার তাৎক্ষণিক প্রভাবকে সীমিত রাখতে সাহায্য করেছে, তদপুরি এরকম একটি সংবেদনশীল জায়গার মধ্য দিয়ে  তেলের ট্যাংকার পরিবহন সুন্দরবনের পরিবেশ এবং একে ঘিরে বেঁচে থাকা মানুষের জীবনের জন্য অনেক বড় একটা হুমকি হয়ে যাবে।

তাই এ পথে নৌ চলাচল করতে দেওয়ার আগে প্রয়োজনীয় সুরক্ষা এবং নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নিশ্চিত করে নেওয়ারও পরামর্শ দেওয়া হয়।

৯ ডিসেম্বর সুন্দরবনের চাঁদপাই রেঞ্জের কাছে শ্যালা নদীতে জাহাজের ধাক্কায় তেলবাহী ট্যাংকার ওটি সাউদার্ন স্টার-৭ ডুবে যায়। সেসময় ট্যাংকারটিতে সাড়ে তিন লাখ লিটার ফার্নেস অয়েল ছিল।

এ পরিস্থিতিতে ১৫ ডিসেম্বর জাতিসংঘের কাছে সহায়তা চেয়ে একটি চিঠি দেয় সরকার। চিঠির প্রেক্ষিতে জাতিসংঘ ওই বিশেষজ্ঞ দল পাঠায়। তারা সুন্দরবন এলাকায় ৬ দিন অবস্থান করে পর্যবেক্ষণ করে।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, এমিলিয়া ওয়ালস্ট্রমের নেতৃত্বাধীন ইউনাইটেড ন্যাশন ডিজেস্টার অ্যাসেসমেন্ট অ্যান্ড কোঅর্ডিনেশনের (ইউএনডিএসি) প্রতিনিধি দলে ছিলেন সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ইউএনডিপি, ইউএসএআইডি, ইউনিয়ন সিভিল প্রটেকশন ম্যাকানিজম, ফ্রান্স সরকার এবং ওয়ার্ল্ডলাইফ কনজারভেশন সোসাইটির প্রতিনিধি মিলিয়ে ২৫ সদস্য।

পর্যবেক্ষক দলটি দুর্ঘটনাস্থল ও আশপাশের এলাকা পর্যবেক্ষণ করেছে। এসময় তারা সাক্ষাৎকার, এরিয়াল ফটোগ্রাফি, নমুনা সংগ্রহ ও পর্যবেক্ষণের অন্যান্য কৌশল ব্যবহার করে পরিস্থিতি মূল্যায়ন ও সে মোতাবেক সুপারিশ করেছে।

বুধবার সংবাদ সম্মেলনে প্রাথমিক প্রতিবেদন প্রকাশের পর ১৫ জানুয়ারি চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে বলেও জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে সুন্দরবনের মাঝ দিয়ে নৌ চলাচল বন্ধের সুপারিশের ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে পরিবেশমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের অনেক বিকল্প চিন্তা আছে। সুন্দরবন রক্ষায় সরকার স্বল্প মেয়াদী ও দীর্ঘ মেয়াদী লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পর্যবেক্ষক দলের প্রধান এমিলিয়া ওয়ালস্ট্রম, জাতিসংঘের ভারপ্রাপ্ত আবাসিক প্রতিনিধি বিট্রিস কালডুন, পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের সচিব নজিবুর রহমান প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৪/আপডেট ১৭০৯ ঘণ্টা/আপডেট ১৭৪৩ ঘণ্টা

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa