ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১৭ মহররম ১৪৪৪

জলবায়ু ও পরিবেশ

পঞ্চগড়ে বিরল প্রজাতির মদনটাক উদ্ধার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১২৬ ঘণ্টা, মার্চ ৬, ২০১৫
পঞ্চগড়ে বিরল প্রজাতির মদনটাক উদ্ধার ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

পঞ্চগড়: পঞ্চগড় জেলার আটোয়ারী উপজেলায় বিরল প্রজাতির একটি মদনটাক (পাখি) ধরা পড়েছে। বুধবার (৪ মার্চ) বিকেলে ওই উপজেলার বলরামপুর ইউনিয়নের সাতখামার গ্রামের কয়েকজন যুবক পাথরাজ নদীর পাড় থেকে এই পাখিটিকে আটক করে।

বর্তমানে পাখিটি পঞ্চগড় বনবিভাগের তত্ত্বাবধানে রয়েছে।

আটকের পর তারা পাখিটিকে বোদা উপজেলা প্রাণী সম্পদ কার্যালয়ে হস্তান্তর করে। সেখান থেকে পঞ্চগড় বনবিভাগের কর্মকর্তারা পাখিটিকে উদ্ধার করে পঞ্চগড়ে নিয়ে আসে।

বোদা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবু আউয়াল মোবাইল ফোনে পাখি ধরার বিষয়টি পঞ্চগড় বনবিভাগকে জানান। পরে বনবিভাগ পাখিটিকে পঞ্চগড়ে নিয়ে আসেন।

পঞ্চগড় বনবিভাগের ফরেস্ট রেঞ্জ অফিসার মো. আরশাদুল হক বাংলানিউজকে জানান, পাখিটি অসুস্থ ও দুর্বল থাকায় পঞ্চগড় সদর উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মুহাম্মদ আব্দুস সোবহানের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা দেয়া হয়। প্রথমে পাখিটি খেতে না পারলেও চিকিৎসার পর খাবার গ্রহণ করেছে।  

তিনি জানান, ঢাকা বণ্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে। সুস্থ হয়ে উড়তে পারলে পাখিটিকে অবমুক্ত বা ছেড়ে দিতে বলা হয়েছে। সুস্থ না হলে পাখিটিকে ঢাকায় নিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

ড. সোবহান বলেন, পাখিটি খাবার সংগ্রহের জন্য ভারতের যে কোন বনাঞ্চল থেকে উড়ে আসতে পারে। খাবার সংগ্রহ করতে না পেরে দুর্বল হয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন সেটিকে আটক করেছে।

পাখি বিশেষজ্ঞদের মতে, ছোট মদনটাক এর ইংরেজি নাম ‘লেসার অ্যাডজুট্যান্ট’ (Lesser Adjutant)), বৈজ্ঞানিক নাম: ‘লেপটপটিলোস জোভানিকাস’। গোত্রের নাম: ‘সিকোনিআইদি’। এটি লম্বায় ৮৭-৯৩ সেন্টিমিটার। পায়ের উচ্চতা ১১০-১২০ সেন্টিমিটার। ওজন চার থেকে সাড়ে পাঁচ কিলোগ্রাম। মাথার তালু, কপাল, গলা পালকহীন। গলা লালচে-হলুদ চমড়ায় আবৃত। ঠোঁট শক্ত মজবুত, রং ময়লাটে হলুদ। প্রজনন মৌসুমে ঠোঁটের গোড়া লালচে হয়। পিঠ থেকে লেজ পর্যন্ত উজ্জ্বল ধাতব কালো। ডানার গোড়ায় কালো তিলা। লেজের প্রান্ত ময়লাটে সাদা। গলার নিচ থেকে লেজের তলা পর্যন্ত সাদাটে। পা ও পায়ের পাতা কালো। অপ্রাপ্তবয়ষ্কদের মাথায় ও ঘাড়ে পালক দেখা যায়। স্ত্রী-পুরুষ পাখি দেখতে একই রকম। প্রধান খাবার মাছ, শামুক, ইঁদুর, ব্যাঙসহ নানা প্রজাতির সরীসৃপ।

বাংল‍াদেশ সময়: ০১২২ ঘণ্টা, মার্চ ৬, ২০১৫

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa