ঢাকা, বুধবার, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৬ জিলহজ ১৪৪৩

কর্পোরেট কর্নার

ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্সে সীমাহীন ঈদ আনন্দ

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৫ ঘণ্টা, মে ৯, ২০২২
ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্সে সীমাহীন ঈদ আনন্দ

ঢাকা: দীর্ঘ দুই বছর প্রতীক্ষার পর এবারের ঈদুল ফিতরের প্রথম দিন থেকে পঞ্চম দিন পর্যন্ত বিপুল দর্শনার্থীর ভিড় দেখা গেছে ঢাকার অদূরে অবস্থিত বিনোদন কেন্দ্র ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্সে। ঈদের দিন সকাল থেকেই হাজার হাজার বিনোদনপ্রেমীদের ভিড়ে মুখরিত হয়ে উঠে ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্স।

দেশের সর্ববৃহৎ ও আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন বিনোদন কেন্দ্র কনকর্ড এন্টারটেইনমেন্ট কোম্পানি লিমিটেডের এক অনবদ্য সৃষ্টি ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্স। বিনোদনের সব সুযোগ-সুবিধা নিয়ে গড়ে ওঠা এ কমপ্লেক্সে রয়েছে ফ্যান্টাসি কিংডম, ওয়াটার কিংডম, এক্সট্রিম রেসিং (গো কার্ট), রিসোর্ট আটলান্টিস এ চারটি বিশ্বমানের বিনোদন কেন্দ্র।

বিশ্বমানের বিনোদন সেবা, চমৎকার ল্যান্ড স্কেপিং ও উত্তেজনাকর সব রাইডস নিয়ে তৈরি ফ্যান্টাসি কিংডম যা ইতোমধ্যে বিনোদন পিপাসু ছোট-বড় সবার কাছে বিনোদনের স্বর্গরাজ্য হিসেবে পরিচিত। দুরন্ত গতিতে ছুটে চলা রোমাঞ্চকর অনুভূতি ও শিহরণ জাগানো রাইড রোলার কোস্টার এ পার্কের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাইডগুলোর মধ্যে অন্যতম। বিনোদনের স্বর্গরাজ্য এ ফ্যান্টাসি কিংডমের রাজা আশু ও রানী লিয়া। এছাড়া রয়েছে ফেরিস হুইল, জুজু ট্রেন, হ্যাপি ক্যাঙ্গারু, বাম্পার কার, ম্যাজিক কার্পেট, সান্তা মারিয়া, জায়ান্ট স্প্লাশ, জিপ অ্যারাউন্ড, পনি অ্যাডভেঞ্চার, ইজি ডিজিসহ ছোট-বড় সবার জন্য মজাদার সব রাইড।

দর্শনার্থীদের রসনা বিলাসের জন্য রয়েছে তিন তারকামানের রেস্টুরেন্ট আশু ক্যাসল, ওয়াটার টাওয়ার ক্যাফে ও লিয়া রেস্টুরেন্ট। চমৎকার ও আকর্ষণীয় সব দেশি-বিদেশি খাবারের সমারোহ রয়েছে এসব রেস্টুরেন্টগুলোতে। এছাড়া পুরো পার্কের ভেতর ছড়িয়ে রয়েছে আরও অনেক ছোট ছোট ফুড কোর্ট।  

ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্স সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, প্রবেশ পথে দর্শনাথীদের দীর্ঘ লাইন। কিন্তু কারো চোখে-মুখে ছিল না ক্লান্তির ছাপ, ছিল উৎসব ও আনন্দের উৎফুল্ল। অনেক দূর-দূরান্ত থেকে আসা পরিবার-পরিজন নিয়ে ঘুরতে আসা দর্শনার্থীরা আনন্দে কাটিয়েছেন। পার্কের ভেতরে বিভিন্ন রাইডসে ছিল দর্শনাথীদের সারিবদ্ধ বিশাল লম্বা লাইন। ফ্যান্টাসি কিংডম কমপ্লেক্স ঈদ উপলক্ষে সেজে ছিল বর্ণিল আলোকসজ্জায়, যা দর্শনার্থীদের মনোমুগ্ধ করে তোলে। সবচেয়ে বেশি উপচেপড়া ভিড় ছিল এবার ওয়াটার কিংডমে ছোট-বড়, কিশোর-কিশোরী থেকে শুরু করে পরিবার-পরিজন সবাই মিলে ওয়েব পুলের ঢেউয়ের সঙ্গে এবং ডিজে মিউজিকের তালে তালে নেচে-গেয়ে এক উৎসব ও আনন্দঘন মুহূর্ত কাটিয়েছেন। তাছাড়া দেশের ঐতিহ্য স্থাপনা ও চমৎকার সব রাইড নিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে হেরিটেজ কর্নার। বিনোদনপ্রেমী বাঙালিকে দেশের এতিহ্য এবং সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেওয়াসহ রয়েছে ব্যতিক্রম মজার সব রাইডস, যা সবাইকে দিয়েছে এক বাড়তি বিনোদন। রয়েছে ঐতিহ্যবাহী সব স্থাপনা তার মধ্যে জাতীয় স্মৃতিসৌধ, আহসান মঞ্জিল, চুনাখোলা মসজিদ, কান্তজীর মন্দির, জাতীয় সংসদ ভবন, ষাটগম্বুজ মসজিদ, পাহাড়পুর বৌদ্ধ বিহার উল্লেখযোগ্য। যা কিনা বেড়াতে আসা দর্শনার্থীদের যোগ করে বাড়তি বিনোদেন।  

কনকর্ড এন্টারটেইনমেন্ট কোম্পানি লিমিটেডের হেড অব মিডিয়া অ্যান্ড পি আর এম মাহফুজুর রহমান বলেন, এবারের ঈদে সবাই যাতে পরিপূর্ণ ঈদ আনন্দ করতে পারে সেদিকে লক্ষ্য রেখে বিভিন্ন কম্বো প্যাকেজ মূল্যে বিশেষ ছাড় দেওয়া হয়েছে। সঙ্গে ডিজে শো, গেম শো, ডান্স কম্পিটিশন, মিনি লাইফ কনসার্টসহ নানা মনোমুগ্ধকর আয়োজন রাখা হয়েছে। এছাড়া দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আমরা নিশ্চিত করেছি। কোথাও কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। সবাই যাতে নির্বিঘ্নে বিনোদন উপভোগ করতে পারে আমরা সেদিকে বিশেষ নজর রেখেছি।  

এদিকে এ জনসমাগমকে কেন্দ্র করে যেকোনো ধরনের সহিংসতা এড়াতে সতর্ক ছিল আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। পাশাপাশি ছিল আমাদের বিশেষ নিরাপত্তাকর্মী। নাশকতা এড়াতে পুরো ফ্যান্টাসি কিংডম ছিল সিসি ক্যামেরার আওতায়। সবকটি প্রবেশ মুখে নেওয়া হয় সব ধরনের বাড়তি নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৩ ঘণ্টা, মে ০৯, ২০২২
আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa