ঢাকা, বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

চসিকের পদকের জন্য ভাষাসৈনিককে মনোনীত করেও প্রত্যাহার, সিপিবির নিন্দা

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৪১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৪
চসিকের পদকের জন্য ভাষাসৈনিককে মনোনীত করেও প্রত্যাহার, সিপিবির নিন্দা

চট্টগ্রাম: ভাষাসৈনিক অধ্যাপক আসহাব উদ্দীন আহমেদকে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) একুশে সম্মাননা স্মারক পদক প্রদানের জন্য মনোনীত করে আবার সেটা প্রত্যাহার নিয়ে সৃষ্ট ঘটনায় নিন্দা, ক্ষোভ ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি), চট্টগ্রাম জেলা কমিটি।  

এমন ঘটনাকে অনভিপ্রেত ও অসৌজন্যমূলক উল্লেখ করে রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) গণমাধ্যমে বিবৃতি পাঠিয়েছেন সিপিবি, চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক অশোক সাহা ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন প্রতিবছর ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, শিক্ষা, সাহিত্য, সংষ্কৃতি, সাংবাদিকতা, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন অঙ্গনে অবদান রাখা লোকজনকে একুশে সম্মাননা স্মারক পদক প্রদান করে আসছে। এবারও আমরা পত্রিকান্তরে বিভিন্ন ক্ষেত্রে মনোনীত কয়েকজনের নাম দেখেছিলাম, যাতে ভাষাসৈনিক অধ্যাপক আসহাব উদ্দীনের নামও ছিল।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ মনোনীতদের আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মাননা দেয়া হয়। কিন্তু ওইদিনই আমরা পত্রিকান্তরে জানতে পারলাম, আসহাব উদ্দীন আহমেদের নাম প্রত্যাহার করা হয়েছে।

প্রয়াত ভাষাসৈনিক আসহাব উদ্দীন আহমেদের মতো একজন ব্যক্তিত্বকে একবার মনোনীত করে এবং সেটি পত্রপত্রিকায় প্রকাশের পর আবার প্রত্যাহার করে নেয়ার ঘটনা স্বাভাবিকভাবেই বিবেকবান মানুষদের ক্ষুব্ধ করেছে। এ নিয়ে অনেকের সংক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে, যা আমরা অত্যন্ত স্বাভাবিক বলেই মনে করছি।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, পত্রিকান্তরে আমরা আরও দেখেছি- সম্মাননা পদকের জন্য মনোনীত করে বিষয়টি সিটি করপোরেশনের একজন কর্মকর্তার মাধ্যমে অধ্যাপক আসহাব উদ্দীনরে পরিবারকে জানানো হয়েছিল। সম্মাননা দেয়ার আগেরদিন মধ্যরাতে আবার পদক প্রত্যাহারের বিষয় তাঁর পরিবারকে জানানো হয়। সিটি করপোরেশনের এ ধরনের আচরণ শুধু অনাকাঙ্খিত, অনভিপ্রেত ও অসৌজন্যমূলকই নয়, ধৃষ্ঠতাপূর্ণ বলেও আমরা মনে করি। পদকের জন্য কাউকে মনোনীত করা হলেও সেটি যাচাইবাছাই করে একেবারে চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত তালিকা প্রকাশ করা সিটি করপোরেশনের উচিত হয়নি, তাঁর পরিবারকেও জানানো কোনোভাবেই সমীচীন হয়নি।  

ভাষা আন্দোলন, মহান মুক্তিযুদ্ধসহ গৌরবোজ্জ্বল সকল অর্জনের বিষয়ে এদেশের মানুষ খুবই সংবেদনশীল। চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন একজন ভাষাসৈনিকের সঙ্গে যে আচরণ করেছে, সেটা কোনোভাবেই মানুষের আবেগ-অনুভূতির সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়নি। বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) এ ধরনের যে কোনো ঘটনায় সবসময় মানুষের আবেগ-অনুভূতিকে ধারণ করে খুবই গুরুত্ব দিয়ে প্রতিক্রিয়া প্রকাশ করে থাকে।  

এর ধারাবাহিকতায় ভাষাসৈনিক আসহাব উদ্দীন আহমেদের বিষয়ে এবং তার পরিবারের সঙ্গে সিটি করপোরেশনের আচরণের তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ ও প্রতিবাদ আমরা সিপিবির পক্ষ থেকে জানাচ্ছি। আমরা উল্লেখ করতে চাই- শুধু অধ্যাপক আসহাব উদ্দীন আহমেদ নয়, দেশের কোনো নাগরিকেই সঙ্গেই রাষ্ট্রের একটি প্রতিষ্ঠানের এমন অবমাননাকর আচরণ সমীচীন নয়। আসহাব উদ্দিনের পরিবার তো সিটি করপোরেশনের কাছ থেকে কোনো পদক প্রার্থনা করেনি, তাহলে প্রয়াত এ মানুষটিকে কেন অসম্মান করা হল? কেন তার পরিবারকে বিব্রত করা হল? আমরা সিটি করপোরেশনের কাছে ভবিষ্যতে এসব ক্ষেত্রে আরও দায়িত্বশীল আচরণ প্রত্যাশা করছি।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২৪
পিডি/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।