ঢাকা, রবিবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

হরতাল-অবরোধে যাচ্ছে ট্রেন, চলছে না বাস

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০১৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৪, ২০১৪
হরতাল-অবরোধে যাচ্ছে ট্রেন, চলছে না বাস ছবি: প্রতীকী

চট্টগ্রাম: দশম জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮দলের ডাকা অবরোধ ও হরতালের মধ্যেও চট্টগ্রাম থেকে দেশের বিভিন্ন রুটে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। তবে দূরপাল্লার কোন বাস ছেড়ে যাচ্ছে না।



রাজনৈতিক কর্মসূচিতে নাশকতার আশঙ্কায় এসব যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

শনিবার সকালে চট্টগ্রাম রেলওয়ে স্টেশন এবং বিভিন্ন বাস কাউন্টার সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে বাংলানিউজ এ বিষয়ে নিশ্চিত হয়েছে।  

রেলওয়ে সূত্র জানায়, শনিবার সকাল থেকে দুটি ট্রেন নির্দিষ্ট সময়েই চট্টগ্রাম ছেড়ে গেছে। সকাল পৌনে ৭টার দিকে ঢাকামুখী সুবর্ণ এক্সপ্রেস এবং সাড়ে ৮টার দিকে চাঁদপুরগামী সাগরিকা এক্সপ্রেস চট্টগ্রাম স্টেশন ত্যাগ করে।

তবে মহানগর প্রভাতী এবং সিলেটগামী পাহাড়িকা এক্সপ্রেস ট্রেন এখনও চট্টগ্রামে পৌঁছায়নি। ঢাকাগামী চট্টলা এবং কর্ণফুলী এক্সপ্রেস ট্রেন ছেড়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানান।

চট্টগ্রাম রেলস্টেশনের ব্যবস্থাপক এএ সামসুল আলম বাংলানিউজকে বলেন,‘সকালে আন্ত:নগর সুবর্ণ এবং সাগরিকা নির্দিষ্ট সময়েই স্টেশন ত্যাগ করেছে। চট্টলা ও কর্ণফুলীও ছেড়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে। ’

দুটি ট্রেন ছাড়তে বিলম্ব হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন,‘মহানগর প্রভাতী হয়ে যে ট্রেনটি সকাল ঢাকার উদ্দেশ্যে যাওয়ার কথা সেটি এখনও কমলাপুর স্টেশনই ত্যাগ করেনি। সিলেট থেকে ছেড়ে আসা পাহাড়িকা ট্রেনও এসে চট্টগ্রামে পৌঁছায়নি। ’

এসব ট্রেন চট্টগ্রামে এলে তারপর গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছাড়া হবে বলে জানান স্টেশন ম্যানেজার সামসুল আলম।

এদিকে নগরীর দামপাড়া, বিআরটিসি মোড় ও একেখান গেইট থেকে কোন দূরপাল্লার ‍বাস ছাড়ছে না। ফলে এসব কাউন্টারে যাত্রীদের কিংবা কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও তেমন তৎপরতাও চোখে পড়েনি।

দামপাড়ায় টিআর ট্রাভেলসের কর্মকর্তা আবুল বাশার সোহাগ জানান, হরতাল-অবরোধে তাদের কোন বাসই চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে যায়নি।

উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলাসহ কক্সবাজার রুটেও তাদের এসি/ননএসি বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে বলে তিনি জানান।

দূরপাল্লার বাস সৌদিয়া এক্সপ্রেসের বিআরটিসি মোড় কাউন্টারের ম্যানেজার সাইফুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, মালিক সমিতির নির্দেশে তাদের বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে।

কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন,‘হরতাল-অবরোধ থাকলে রাস্তায় গাড়ি বের রিস্ক (ঝুঁকিপূর্ণ)। ভাংচুর ও পোড়ানোর ভয় থাকে। তাই মালিক সমিতি গাড়ি চলাচল বন্ধ রেখেছে। ’

ঢাকাসহ উত্তরবঙ্গ এবং বরিশাল রুটে সব গাড়ি বন্ধ রয়েছে বলে জানালেন গ্রীণ লাইনের একেখান মোড় কাউন্টারের কর্মকর্তা সৈয়দ আমিনুল হক।

এছাড়া সোহাগ পরিবহন, শ্যামলী, ঈগল, সেন্টমার্টিন, ইউনাইটেডসহ দেশের বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী সব ধরনের দূরপাল্লার বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট জানান।

হাইওয়ে পুলিশের বারআউলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ জাকির হোসেন বাংলানিউজকে বলেন,‘মহাসড়কে দূরপাল্লার কোন যান না চললেও কাভার্ডভ্যান ও ট্রাক চলাচল করছে। ’

প্রসঙ্গত,   প্রসঙ্গত, রোববার অনুষ্ঠ্যেয় দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঠেকাতে শুক্রবার দেশে ৪৮ ঘণ্টার হরতাল দেয় বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোট। শনিবার সকাল ৬টা থেকে এ হরতাল চলবে সোমবার সকাল ৬টা পর্যন্ত। এ ছাড়া ১ জানুয়ারি থেকে দলটির ডাকা অনির্দিষ্টকালের অবরোধ কর্মসূচি চলছে।

নগর বিএনপিও ভোটের আগের দিন থেকে পরদিন সোমবার পর্যন্ত ৪৮ঘণ্টার হরতাল ডেকেছে।


বাংলাদেশ সময়: ০৯১৭ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০১৩
সম্পাদনা: তপন চক্রবর্তী, ব্যুরো এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa