ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

ঈশ্বর পুত্রদের ভালবেসে একটি দিন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৫৮ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৪
ঈশ্বর পুত্রদের ভালবেসে একটি দিন ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

চট্টগ্রাম: ইট, পাথরের এই শহরের সব ময়লা, আবর্জনা তুলে নিয়ে শহরকে সমাজের উঁচুতলার নাগরিকদের বাসযোগ্য করেন যারা তাদের পরিচয় কারও কাছে মেথর, কারও কাছে হরিজন। অথচ তারাই উঁচুতলার মানুষের কাছে অস্পৃশ্য।



মহাত্মা গান্ধী তাদের নাম দিয়েছিলেন ‘ঈশ্বর পুত্র’।  

সেই ঈশ্বর পুত্রদের অবহেলা নয়, ভালবাসা দিয়ে একটি দিন কাটিয়েছেন স্রোতের সদস্যরা। ভালবাসা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার স্রোত ব্যতিক্রমধর্মী এ আয়োজন করেছে।

শুক্রবার সকালে স্রোতের সদস্যরা ভালবাসার উপহার হিসেবে শিশুদের হাতে দিয়েছে লাল গোলাপ আর সর্দারের হাতে বেলুন। আর ‘ভালোবাসা দিবসে ঈশ্বর পুত্রদের সাথে ভালোবাসা ভাগাভাগি’ শিরোনামে এ আনন্দ আয়োজনে ভিন্ন সাজে সেজেছিল নগরীর পাথরঘাটার বান্ডেল রোডের সেবক কলোনি।

মায়াদিন আর গগুলা সর্দারের হাতে থাকা বেলুন উড়িয়ে যখন অনুষ্ঠান শুরু হল তখন সেবক কলোনির তিনটি ভবন আর একতলা সেমিপাকা ঘরের সব জানালায় মানুষের মুখ। আগ্রহীরা সবাই উঁকি দিয়ে দেখছে কি হচ্ছে?

আয়োজক সংগঠন স্রোতের সংগঠক শুভাশিষ পাল বাংলানিউজকে বলেন, ভালোবাসা হতে হবে সার্বজনীন। যাদের শ্রমে ঘামে আমরা ভালো থাকি সমাজে তাদের পরিচয় মেথর, হরিজন বা ঈশ্বরপুত্র নামে। কিন্তু বিনিময়ে তারা শুধু অবহেলাই পান। তাদের সাথে ভালোবাসা ভাগাভাগি করতেই এ আয়োজন।

সেবক কলোনির সর্দার মায়াদিন বলেন, এমন তো কেউ করেনি কখনো। খুব ভাল লাগছে। বাচ্চারা খুব খুশি।

স্রোতের সংগঠক জুয়েল, শামিমা আর সবুজরা কলোনির বাসিন্দাদের হাতে যখন রাখি পড়িয়ে দিচ্ছেন ততক্ষণে শিশুরা ব্যস্ত হয়ে পড়েছে বেলুন নিয়ে।

দুপুর ১২টায় সেবক কলোনির শিশু বিকাশ কেন্দ্রে শুরু হলো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। শিল্পী সাজ্জাদ তপুর বাঁশিতে জাতীয় সঙ্গীতের সুর। তারপর গান, নাচ আর ফাঁকে ফাঁকে চলছিল অনুভূতির বিনিময়।

শুক্রবার সেবক কলোনি বাসিন্দাদের অন্য ব্যস্ততাও ছিল। সাতটি বিয়ের নানা আয়োজন কলোনি জুড়ে। ভালোবাসা ভাগাভাগি থেকে যেন নববধূরাও বাধ না যায়, সেজন্য নববধূ আর তাদের সঙ্গীদের হাতে মেহেদী পড়িয়েছেন স্রোতের বন্ধুরা।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa