ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

‘বাঙালির বিশুদ্ধ স্লোগান জয় বাংলা’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৪
‘বাঙালির বিশুদ্ধ স্লোগান জয় বাংলা’

চট্টগ্রাম: সময়ের প্রয়োজনে মানুষের জীবনে মাটির টানই সবচেয়ে বড় হয়ে দাঁড়ায় উল্লেখ করে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী বলেন, একাত্তরের চেতনা আমাদের সেই বিষয়টি বারবার মনে করিয়ে দেয়।

তিনি বলেন,‘একাত্তরের চেতনা ধরে রাখতে হলে জয় বাংলা বলতে হবে।

বাঙালিত্বের চেতনায় বিশ্বাসী মানুষদের বিশুদ্ধ স্লোগান জয় বাংলা। ’

শুক্রবার বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি চট্টগ্রাম জেলা আয়োজিত শহীদ জননী জাহানারা ইমামের আন্দোলনের ২২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

মহসিন আলী বলেন, শহীদ জননী জাহানারা ইমাম অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দিতে আমৃত্যু সংগ্রাম করেছেন। তার অসমাপ্ত সংগ্রামকে পরিপূর্ণতার দিকে নিয়ে গেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।   

শহীদজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী বলেন, শহীদ জননীর কাছে আমাদের ঋনের শেষ নেই। তিনি আমাদের শিখিয়ে গেছেন কিভাবে যুদ্ধাপরাধীদের ঘৃণা করতে হয়। দেশকে মায়ের সাথে তুলনা করে তিনি আরো বলেন, আমার মায়ের সম্ভ্রম রা করতে, আমার মাটিকে রক্ষা করতে মুক্তিযুদ্ধ বিরোধীদের সর্বশক্তি দিয়ে রুখতে হবে। সামাজিকভাবে, রাজনৈতিকভাবে, অর্থনৈতিকভাবে সর্বপরি তাদের বয়কট করতে হবে।

সূচনা বক্তব্যে শওকত বাঙালি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় যে নতুন প্রজন্ম সৃষ্টি হয়েছে তার পেছনে নির্মূল কমিটির অবদান অনস্বীকার্য। শাহবাগের গণজাগরণ মঞ্চের নেতারা ঘোষণা করেছে তারা জাহানারা ইমামের আন্দোলনের সন্তান। এতে প্রমাণিত হয় জাহানারা ইমাম ও তাঁর সংগঠন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ২২ বছরের নিরবিচ্ছিন্ন আন্দোলন বিফলে যায়নি।

সভাপতির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট সীমান্ত তালুকদার বলেন, নির্মূল কমিটি মনে করে কয়েকজন যুদ্ধাপরাধীকে ফাঁসি দিলেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন হবে না। দীর্ঘ লড়াই সংগ্রামের মাধ্যমেই মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করতে হবে। যতদিন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন হবে না ততোদিন  একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সদস্যরা প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম জীবন বাজী রেখে লড়ে যাবে।

সংগঠনের জেলা আহবায়ক সাবেক ছাত্রনেতা অ্যাডভোকেট সীমান্ত তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি শহীদজায়া শ্যামলী নাসরিন চৌধুরী, সংগঠনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিভাগীয় সমন্বয়ক লেখক-সাংবাদিক শওকত বাঙালি,  জেলা নেতা অলীদ চৌধুরী, জাতীয় মহিলা সংস্থা মৌলভীবাজার জেলার চেয়ারম্যান সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন, সংগঠনের সাবেক সহ-সভাপতি দীপংকর চৌধুরী কাজল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

বাংলাদেশ সময়:২১৩২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৪, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa