ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৯ ডিসেম্বর ২০২১, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

বিদেশি কোচের তত্ত্বাবধানে চট্টগ্রামে স্কোয়াশ প্রশিক্ষণ শুরু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
বিদেশি কোচের তত্ত্বাবধানে চট্টগ্রামে স্কোয়াশ প্রশিক্ষণ শুরু বক্তব্য দেন স্কোয়াশ রেকেটস ফেডারেশনের জেনারেল সেক্রেটারি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জিএম কামরুল ইসলাম। ছবি: সোহেল সরওয়ার

চট্টগ্রাম: প্রথমবারের মতো বিদেশি কোচের তত্ত্বাবধানে চট্টগ্রাম ক্লাবে শুরু হলো ‘সিসিএল-স্কোয়াশ ট্রেনিং ক্যাম্প’। এসএ গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের পৃষ্ঠপোষকতায় সপ্তাহজুড়ে সকাল ৮টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত বিশ্বমানের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে নিবন্ধিত খেলোয়াড়দের।

ইতিমধ্যে বিকেএসপির স্কোয়াশ বিভাগের ৬ শিক্ষার্থী আগ্রহী ২৪ জন খেলোয়াড় নাম নিবন্ধন করেছেন। উদ্যোক্তাদের আশা এ সংখ্যা শিগগির ৩০ জনে উন্নীত হবে।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সকালে চট্টগ্রাম ক্লাবের স্কোয়াশ কোর্টে  সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান এসএ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সাজ্জাদ আরেফিন আলম।

তিনি বলেন, কর্মসংস্থান, সামাজিক ও ক্রীড়া ক্ষেত্রে এসএ গ্রুপ অবদান রাখার চেষ্টা করছে। তারই ধারাবাহিকতায় স্কোয়াশের উন্নয়নে বিদেশি কোচ আনা। এসএ গ্রুপের ‘মুসকান ড্রিংকিং ওয়াটার’ স্কোয়াশ প্রশিক্ষণের সম্পূর্ণ প্রোগ্রামে বেভারেজ পার্টনার। স্কোয়াশ আমি নিজে খেলি। জেলা পর্যায়ে এ খেলা শুরু করতে চাই। প্লেয়ার সিলেক্ট করতে চাই। দেশের জন্য সম্মান আনতে চাই। স্কোয়াশের প্রচারে মিডিয়ার সহযোগিতা চাই।

সংবাদ সম্মেলনে ইরানি কোচ গোলামনিজাদ জাবিদ মহসিনকে পরিচয় করিয়ে দেন বাংলাদেশ স্কোয়াশ রেকেটস ফেডারেশনের জেনারেল সেক্রেটারি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জিএম কামরুল ইসলাম।

জিএম কামরুল ইসলাম বলেন, খেলাধুলা জাতি গঠনে, জাতির সম্মান ও গৌরব বাড়াতে সবচেয়ে বড় মাধ্যম। একজন ভালো খেলোয়াড় দেশের মুখ উজ্জ্বল করে। সবার কোনো না কোনো খেলা করা উচিত। স্কোয়াশ নিয়ে আমরা কাজ করতে চাই। দেশে স্কোয়াশ খুব ভালো অবস্থায় নেই। এক বছর আগে মাইনাসে ছিলাম। আমরা আর নিচে যেতে চাই না। এগিয়ে যাওয়ার প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে ভালো খেলোয়াড়, প্রশিক্ষণ ও দক্ষ জনশক্তি তৈরির জন্য বিদেশি কোচ এনেছি। আপনারা জানেন, স্কোয়াশ বিশ্বে ক্রীড়া অর্থনীতির ক্ষেত্রে দ্বিতীয় অবস্থানে। এসএ গ্রুপ আমাদের উদ্যোগ স্পন্সর করেছে, আমরা কৃতজ্ঞতা জানাই।  

তিনি বলেন, আমাদের প্রশিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেবেন এ কোচ। আমরা স্কোয়াশে নারী টিমও গঠন করতে চাই। বয়সভিত্তিক টিম গঠন ও পরিচর্যা করতে চাই। যারা একটু খেলা পারে, আগ্রহী তাদের নিতে চাই। স্কোয়াশ ছোট্ট পরিসরে শীত, গ্রীষ্ম, বর্ষা সারা বছর খেলা ও চর্চা করা যায়। স্কুলে দালানের একটি রুম থাকলে, একটা দেয়াল থাকলেই স্কোয়াশ চর্চা করা যায়। স্কুল পর্যায়ে স্কোয়াশকে জনপ্রিয় করাতে চাই। ট্যালেন্ট হান্ট করতে চাই। এটি বেসিক গেম। পুরা শরীর মন নাড়া দেয়। এ খেলায় ডিসিশন কুইক নিতে হয়। এতে খেলোয়াড়দের মধ্যে স্পিড তৈরি করে৷ বিকেএসপিতে স্কোয়াশ বিভাগে ৬ জন ভর্তি হয়েছে। ওদের উৎসাহ দেবেন। চট্টগ্রাম ক্লাবের একজন সদস্য স্কোয়াশে আন্তর্জাতিক র‌্যাংকিংয়ে স্থান করে নিয়েছেন, তার নাম ফায়াজ রহমান। এসএ গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) সাজ্জাদ আরেফিন আলম দেশে আন্তর্জাতিক স্কোয়াশ টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে চান। আমরা চেষ্টা করে দেখছি।

কোচ গোলামনিজাদ জাবিদ মহসিন বলেন, আমি চট্টগ্রামে এসে অভিভূত। প্রশিক্ষণে আমার সর্বোচ্চটা দেওয়ার চেষ্টা করব।  

ইসি কমিটির সদস্য ইউসুফ মনসুর বলেন, আমরা চেষ্টা করছি বাংলাদেশের স্কোয়াশ খেলাকে আন্তর্জাতিক মানে উন্নীত করতে। আশাকরি পারব।

চট্টগ্রাম ক্লাবের মেম্বার ইনচার্জ  (স্কোয়াশ) ইমতিয়াজ হাবীব রনি বলেন, চট্টগ্রাম স্কোয়াশে কিছুটা পিছিয়ে আছে। প্রশিক্ষণের জন্য বিদেশি কোচ আনা হয়েছে এটি আমাদের জন্য আনন্দের।

চট্টগ্রামের প্রশিক্ষণ শেষে ঢাকায় প্রশিক্ষণ শুরু হবে। প্রায় দেড় মাস কোচ গোলামনিজাদ জাবিদ মহসিন বাংলাদেশে থাকবেন।    

বাংলাদেশ সময়: ১২৩২ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১ 
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa