ঢাকা, সোমবার, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮, ১৪ জুন ২০২১, ০৩ জিলকদ ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

কেয়া কসমেটিক ও ডিটারজেন্টের শেয়ার লেনদেন ৩০ মিনিট স্থগিত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭০৩ ঘণ্টা, আগস্ট ২২, ২০১০
কেয়া কসমেটিক ও ডিটারজেন্টের শেয়ার লেনদেন ৩০ মিনিট স্থগিত

ঢাকা: অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির কারণ জানতে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) অনুসন্ধানের জবাব দিতে দেরি করায় কেয়া কসমেটিক এবং কেয়া ডিটারজেন্ট লিমিটেডের শেয়ার লেনদেন রোববার ৩০ মিনিট স্থগিত থাকে। দুপুর ১টা থেকে ৩০ মিনিট এদের লেনদেন স্থগিত থাকে।


 
দিনের লেনদেনের শুরু থেকেই বাজারে দুই কোম্পানির শেয়ার নিয়ে ব্যাপক গুজব এবং অস্বাভাবিক দরবৃদ্ধির প্রেক্ষিতে ডিএসইর পক্ষ থেকে এই ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। অবশ্য দিনের লেনদেন শেষে কোম্পানির পক্ষ থেকে অনুসন্ধানের জবাব পাওয়ার পর স্থগিতাদেশ তুলে নিয়েছে ডিএসই।

রোববার লেনদেন শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই কেয়া কসমেটিকের শেয়ারের দাম বাড়ার গুজব বাজারে ছড়িয়ে পড়ে। দুপুর ১টার মধ্যে এর ৩৫ লাখ ৪৯ হাজার শেয়ার বিক্রি হয়ে যায়। আগের দিন ৯০.৮০ টাকায় লেনদেন হওয়া শেয়ারটির দর এক লাফে ১০০ টাকা ছাড়িয়ে যায়।

এই পরিস্থিতিতে ডিএসইর পক্ষ থেকে কোম্পানির কাছে শেয়ারের দরবৃদ্ধির পেছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য রয়েছে কি নাÑ জানতে চাওয়া হয়। তবে কোম্পানির পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে জবাব না দেওয়ায় ডিএসই বেলা ১টার দিকে এর শেয়ার লেনদেন স্থগিত করে দেয়।

কেয়া কসমেটিকের দরবৃদ্ধির গুজবের প্রভাব পড়ে কেয়া ডিটারজেন্টের শেয়ারের ওপর। ফলে এই কোম্পানির শেয়ারের দরও বাড়তে থাকে। প্রতিটি শেয়ারের দর বেড়ে যায় ৪.১০ টাকা। এর পরিপ্রেক্ষিতে এই কোম্পানির কাছেও মূল্য সংবেদনশীল তথ্য সম্পর্কে জানতে চায় ডিএসই। সঠিক সময়ে জবাব না পাওয়ায় এই কোম্পানির লেনদেনও স্থগিত করা হয়।

বিকেলে দুই কোম্পানির পক্ষ থেকে ডিএসইকে জানানো হয়, শেয়ারের দর প্রভাবিত করার মতো কোনো অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য তাদের কাছে নেই। এরপরই কোম্পানি দু’টির শেয়ার লেনদেনের ওপর থেকে স্থগিতাদেশ তুলে নেয় ডিএসই।

স্থানীয় সময়ঃ ১৮১৩ ঘন্টা ২২ আগস্ট ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa