ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৮ জিলহজ ১৪৪২

অর্থনীতি-ব্যবসা

জাতীয় আয়ের ৩৭.৫ শতাংশ কালো অর্থনীতি: ফরাসউদ্দিন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮১০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০১০
জাতীয় আয়ের ৩৭.৫ শতাংশ কালো অর্থনীতি: ফরাসউদ্দিন

ঢাকা: দেশের মোট জাতীয় আয়ের ৩৭.৫ শতাংশ কালো অর্থনীতি। এই কারণেই বাড়ছে ইচ্ছাকৃত বৈষম্য।

এক শ্রেণীর বিত্তশালী এর জন্মদাতা। তারা এটাকে ধারণ ও লালন করেন।

শনিবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে ‘বাংলাদেশে সহস্রাব্দ উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার অগ্রগতি ২০১০’ শীর্ষক এক পর্যালোচনা বৈঠকে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ও বাংলাদেশ উন্নয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন এ কথা বলেন।
 
তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ সৃষ্টির মূল লক্ষ্য ছিল দারিদ্র নির্মূল করা এবং বৈষম্যহীন ও সমতাভিত্তিক মানবিক সমাজ গঠন। এই লক্ষ্যেই ১৯৭৩ সালে প্রথম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়েছিল। ’
 
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সাবেক গভর্নর আরও বলেন, ‘জনসংখ্যাকে সম্পদে রূপান্তরিত করতে না পারলে দারিদ্র দূর করা সম্ভব নয়। একইসঙ্গে জনসংখ্যা বৃদ্ধি কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। ’

পরিবেশ প্রসঙ্গে ড. ফরাসউদ্দিন জানান, গুটিকয়েক লোকের স্বার্থে চিংড়ি চাষের নামে দেশের কোনো কোনো এলাকা ইচ্ছাকৃতভাবে লবনাক্ত করে ফেলা হচ্ছে। চিংড়ি রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা আয় হলেও আমাদের ঠিক করতে হবে বাংলাদেশের জন্য কোনটি বেশি প্রয়োজনীÑ চিংড়ি চাষ না কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধি।

আলোচনায় অংশ নিয়ে পিকেএসএফ’র চেয়ারম্যান ড. কাজী খলিকুজ্জমান ‘দারিদ্র’কে ‘বহুমুখী’ আখ্যায়িত করে বলেন, দারিদ্র দূরীকরণে বৈদেশিক সহায়তার ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে নিজেদের সম্পদের ওপর নির্ভরশীলতা বাড়াতে হবে। জলবায়ু সংকটে যে কোনো ধরনের অনিশ্চিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় নিজেদের তৈরি করতে হবে।

‘পিপলস ফোরাম অন এমডিজি’স (পিএফএম) আয়োজিত পর্যালোচনা বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন পিএফএম বাংলাদেশের আহবায়ক ও সাবেক উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বেসরকারি সংস্থা সুপ্র’র প্রধান আবদুল আউয়াল।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৯৫২ ঘণ্টা, ২৮ আগস্ট, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa