ঢাকা, সোমবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ মে ২০২২, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

পুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে সাড়ে ২১০০ কোটি টাকা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৯ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২২
পুঁজিবাজারে লেনদেন কমেছে সাড়ে ২১০০ কোটি টাকা

ঢাকা: বিদায়ী সপ্তাহে (২৩ থেকে ২৭ জানুয়ারি) সূচকের পতনের মধ্যে দিয়ে পুঁজিবাজারে লেনদেন শেষ হয়েছে। বিদায়ী সপ্তাহে পাঁচ কার্যদিবস লেনদেন হয়।

সপ্তাহজুড়ে চার কার্যদিবসই সূচকের পতন হয়। বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন এবং বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর কমায় পুঁজিবাজারে ২ হাজার ১৪৬ কোটি টাকার লেনদেন কমেছে। এরমধ্যে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ২ হাজার ৯৩ কোটি ৯০ লাখ টাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ৫২ কোটি ৫০ লাখ টাকার লেনদেন কমেছে।

ডিএসই ও সিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। জানা গেছে, বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে ৬ হাজার ১৪৯ কোটি ২৮ লাখ ৮৭ হাজার ৯২০ টাকার লেনদেন হয়েছে। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৮ হাজার ২৪৩ কোটি ১৯ লাখ ২৫ হাজার ১৩৫ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন ২ হাজার ৯৩ কোটি ৯০ লাখ ৩৭ হাজার ২১৫ টাকা বা ২৫ শতাংশ কমেছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭৮.১৪ পয়েন্ট বা ১.১০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ২৭.৫৫ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৮.৪২ পয়েন্ট বা ০.৫৬ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৩৩.০৪ পয়েন্ট বা ১.২৫ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১ হাজার ৪৯৯.৯৭ পয়েন্টে এবং ২ হাজার ৬০২.৩৪ পয়েন্টে।

বিদায়ী সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ৬৫ হাজার ২৩৪ কোটি ২৩ লাখ ৫৪ হাজার ১১ টাকা। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়ায় ৫ লাখ ৬২ হাজার ৯০২ কোটি ৯৬ লাখ ১৪ হাজার ১৩৪ টাকা। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ২ হাজার ৩৩২ কোটি ২৭ লাখ ৩৯ হাজার ৮৭৭ টাকার মূলধন কমেছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইর সার্বিক মূল্য আয় অনুপাত (পিই রেশিও) কিছুটা কমেছে। গত সপ্তাহের শুরুতে ডিএসইর পিই ছিল ১৬.৯৩ পয়েন্টে। যা সপ্তাহ শেষে ১৬.৮০ পয়েন্টে অবস্থান করছে। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে পিই রেশিও ০.১৩ পয়েন্ট বা ০.৭৭ শতাংশ কমেছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৮৮টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ৯৯টির, কমেছে ২৬৮টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২১টির শেয়ার ও ইউনিট দর।

গত সপ্তাহে ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হওয়া ১০ কোম্পানি হলো- বেক্সিমকো লিমিটেড, বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন, পাওয়ার গ্রিড, এশিয়া ইন্স্যুরেন্স, আরএকে সিরামিকস, ব্রিটিশ আমেরিকান টোবাকো, ফরচুন সুজ, অ্যাপেক্স ফুটওয়্যার, ফু-ওয়াং ফুড ও ওরিয়ন ফার্মা।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ১৭৮ কোটি ২২ লাখ ৮১ হাজার ৭০৯ টাকার। আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ২৩০ কোটি ৭২ লাখ ৮৯ হাজার ৭৩৫ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ৫২ কোটি ৫০ লাখ ৮ হাজার ২৬ টাকা বা ২৩ শতাংশ কম হয়েছে।

সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২৩০.৫৫ পয়েন্ট বা ১.১০ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ২০ হাজার ৫৮৬.৬২ পয়েন্টে।  

সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩৫০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নেয়। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ৮৪টির দর বেড়েছে, ২৩৫টির কমেছে এবং ৩১টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৮, ২০২২
এসএমএকে/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa