ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

খুবিতে অনলাইনে প্রথম টার্মের ফাইনাল পরীক্ষায় উপস্থিতি শতভাগ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬০১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১
খুবিতে অনলাইনে প্রথম টার্মের ফাইনাল পরীক্ষায় উপস্থিতি শতভাগ প্রথম টার্মের পরীক্ষা চলাকালে সিএসই ডিসিপ্লিনে কম্পিউটারে উত্তরপত্র আপলোড কার্যক্রম প্রত্যক্ষ করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন

খুলনা: খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) সব ডিসিপ্লিন ও ইনস্টিটিউটের স্নাতক, স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতকোত্তর শ্রেণির প্রথম বর্ষের প্রথম টার্মের ফাইনাল পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টায় উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্কুল ও ডিসিপ্লিনে যান এবং অনলাইনে পরীক্ষা গ্রহণ কার্যক্রম প্রত্যক্ষ করেন।

পরিদর্শনকালে স্ব স্ব স্কুলের ডিন ও চিফ ইনভিজিলেটররা তাকে স্বাগত জানান।

প্রথমে তিনি জীববিজ্ঞান স্কুলে যান এবং এ স্কুলের অধীন বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের অনলাইন পরীক্ষা গ্রহণের কার্যক্রম দেখেন। পরে তিনি ব্যবস্থাপনা ও ব্যবসায় প্রশাসন স্কুল, কলা ও মানবিক স্কুল, সামাজিক বিজ্ঞান স্কুল, ল স্কুল এবং শেষে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিদ্যা (সাইটে) স্কুলে যান। পরিদর্শনকালে তিনি এসব স্কুলের আওতাধীন বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের অনলাইন পরীক্ষা সম্পর্কে অবহিত হন। উপাচার্য কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ডিসিপ্লিনে অনলাইনে উত্তরপত্র আপলোড কার্যক্রমও দেখেন। পরে তিনি সাইটে স্কুলের ডিন অফিসে যান এবং আপলোডসহ পরীক্ষার অন্যান্য কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত হন। সব স্কুল ও ডিসিপ্লিন থেকে জানানো হয় পরীক্ষার্থীরা অনলাইনে সফলভাবে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পেরেছে। উপস্থিতিও প্রায় শতভাগ।

উপাচার্য অনলাইন পরীক্ষা কার্যক্রম পরিদর্শন শেষে বলেন, এটা আমাদের নতুন অভিজ্ঞতা। আমরা নতুন অধ্যায়ে প্রবেশ করলাম। এ অভিজ্ঞতা ভবিষ্যতে দুর্যোগ বা মহামারির মধ্যেও শিক্ষা কার্যক্রম অব্যাহত রাখার ক্ষেত্রে সহায়ক হবে। এক্ষেত্রে আমরা যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সক্ষম হবো।  

তিনি আরও বলেন, করোনা মহামারির কারণে একাডেমিক ক্ষেত্রে যে সময়টা পিছিয়ে আছে তার রিকভারি প্ল্যান করতে হবে। প্রয়োজনে অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রমের সহায়তায় তা পুষিয়ে নিতে হবে। উপাচার্য সফলভাবে অনলাইন পরীক্ষা কার্যক্রম গ্রহণে ডিন, ডিসিপ্লিন প্রধানসহ পরীক্ষার কাজে নিয়োজিত সব শিক্ষক এবং আইসিটি সেল, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক দফতরকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানান।

এ সময় উপাচার্যের সঙ্গে বিভিন্ন স্কুলের ডিন ও চিফ ইনভিজিলেটর, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত), ডিসিপ্লিন প্রধান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক (চলতি দায়িত্ব), জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৯ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ১২, ২০২১
এমআরএম/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa