ঢাকা, সোমবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

ভরাট আর দখলদারের রাজত্বে কর্ণফুলী 

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৫২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৭
ভরাট আর দখলদারের রাজত্বে কর্ণফুলী  ভরাট হয়ে যাচ্ছে কর্ণফুলী নদী। ছবি: উজ্জল ধর/বাংলানিউজ

চট্টগ্রাম: ভারতের মিজোরামের লুসাই পাহড়ে থেকে নেমে সুদীর্ঘ ৩২০ কিলোমিটার পথ বয়ে কর্ণফুলী নদী মিলেছে বঙ্গোপসাগরে। বাংলাদেশ অংশের প্রায় ১৬১ কিলোমিটার পথচলা এই নদীর দুই পাশে হাজারো বর্ণিল দৃশ্য চোখে পড়ে। 

দখল হয়ে যাচ্ছে কর্ণফুলী নদী।  ছবি: উজ্জল ধর/বাংলানিউজ
দুই পাড়জুড়ে মুগ্ধতা ছড়ানো এই নদীকে কেন্দ্র করেই চট্টগ্রাম বন্দরসহ হাজারো স্থাপনা গড়ে ওঠেছে।

তৃতীয় কর্ণফুলী সেতু নির্মাণের সময় চট্টগ্রাম বন্দরকে রক্ষা করতে ব্যাপক আন্দোলন হয়। তখনই দাবি ওঠেছিল, নদীতে ঝুলন্ত সেতু নির্মাণের।
 

পলি জমে ভরাট হয়ে যাচ্ছে কর্ণফুলী।  ছবি: উজ্জল ধর/বাংলানিউজ
নদীতে পলি জমে ব্যাপক হারে। নিয়মিত ড্রেজিং করে এর নাব্যতা রক্ষা ব্যাপক ব্যয়সাধ্য কর্ম। নদীর নাব্যতার উপরই নির্ভর করে সারা দেশের প্রাণ ভোমরা চট্টগ্রাম বন্দরের অস্থিত্ব।

পলি জমে ভরাট হয়ে যাচ্ছে কর্ণফুলী।  ছবি: উজ্জল ধর/বাংলানিউজকিন্তু ২০০৬ সালের আগস্ট মাসে জনগণের ব্যাপক আন্দোলনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ঝুলন্ত সেতুর পরিবর্তে তৈরি করা হয় কংক্রিটের সেতু। সে দিন আন্দোলন ব্যর্থ হলেও আজ চট্টগ্রামের মানুষ হারে হারে বুঝতে পারছে কেন ঝুলন্ত সেতু প্রয়োজন ছিলো।  

পলি জমে ভরাট হয়ে যাচ্ছে কর্ণফুলী।  ছবি: উজ্জল ধর/বাংলানিউজএকদিকে কংক্রিট পিলারের কারণে পলি জমে নদী অর্ধেক ভরাট হয়ে গেছে । তার উপর কর্তৃপক্ষের অপরিকল্পিত ড্রেজিংয়ের কারণে আরও সংকীর্ণ হয়ে পড়েছে এই নদী।  

দখল হয়ে যাচ্ছে কর্ণফুলী।  ছবি: উজ্জল ধর/বাংলানিউজ
ড্রেজিং করা মাঠিতে গড়ে উঠেছে অবৈধ হাজারো ঘর-বাড়ি আর অট্টালিকা। ভূমিদস্যুরা বিভিন্ন ছিন্নমূল, বাস্তুহারা সমিতির নাম দিয়ে নদী দখল করে মাসোহারা দিয়ে গড়ে তুলছে ছোট বড় স্থাপনা।  

পলি জমে ও দখলে ভরাট হয়ে যাচ্ছে কর্ণফুলী।  ছবি: উজ্জল ধর/বাংলানিউজ
নদীতে জমা পলির কারণে এর শাখা খালগুলো এখন মৃতপ্রায়। পলি জমে থাকার কারণে বর্ষায় নগরী থেকে বের হতে পারে না বৃষ্টির পানি। তাই সামান্য বৃষ্টিতেই নগরী রূপ নেয় ‘জলাবদ্ধ চট্টগ্রামে’।  

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৮ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৭
এমএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa