ঢাকা, শুক্রবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৭ মে ২০২২, ২৫ শাওয়াল ১৪৪৩

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

একসঙ্গে ৪ নবজাতক প্রসব, বেঁচে নেই কেউ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৮ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০২২
একসঙ্গে ৪ নবজাতক প্রসব, বেঁচে নেই কেউ ...

চট্টগ্রাম: কামরুন নাহার সুমু একসঙ্গে ৪ নবজাতক প্রসব করলেও বাঁচানো গেল না। অসুস্থ হয়ে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে থাকা সুমু তখনো জানে না বিষয়টি।

বাবা মো. শাহ আলম এ ঘটনায় শোকে পাথর। সেই শোক ছড়িয়ে পড়ে তার সহকর্মী  ও স্বজনদের মধ্যেও।

রোববার (২৩ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মচারী শাহ আলমের স্ত্রী চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একসঙ্গে প্রিম্যাচিউর চার সন্তানের জন্ম দেন।

শাহ আলম বাংলানিউজকে বলেন, গত বছরের এপ্রিলে আমাদের বিয়ে হয়। হঠাৎ জ্বর আসায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে সুমু। এরপর তাকে প্রথমে বন্দর হাসপাতাল ও পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই। চমেক হাসপাতালের ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে একসঙ্গে চারটি ছেলে সন্তান প্রসব হয়। এর মধ্যে প্রথমটি মৃত ছিল। পরের তিনটি জীবিত ছিল। কিন্তু ৫ মাসের হওয়ায় তাদের বাঁচানো সম্ভব হয়নি।

তিনি বলেন, চার সন্তানের নাম চার খলিফার নামে রেখে বন্দর কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।  

বন্দর সিবিএ সাধারণ সম্পাদক মো. নায়েবুল ইসলাম ফটিক বাংলানিউজকে বলেন, শাহ আলমের পরিবারে চারটি নবজাতকের জন্ম হলেও কাউকে বাঁচানো সম্ভব হয়নি। বিষয়টি অত্যন্ত শোকের।   

বাংলাদেশ সময়: ২১১০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৩, ২০২২ 
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa