ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

আওয়ামী লীগের হাতে দেশ নিরাপদ নয়: মীর নাছির

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২১ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০২২
আওয়ামী লীগের হাতে দেশ নিরাপদ নয়: মীর নাছির ...

চট্টগ্রাম: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন বলেছেন, পৃথিবীর কোথাও এক লাফে এত জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির নজির নেই। কুইক রেন্টালে বিদ্যুৎ উৎপাদনের নামে সরকার ভর্তুকি দিয়ে দেশের রিজার্ভ খেয়ে ফেলছে।

দেশটাকে আওয়ামী লীগ দেউলিয়া করে দিয়েছে। গতকাল ঢাকায় আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে বিএনপির সমাবেশ ছিল ৭ নম্বর বিপদ সংকেত। আর চট্টগ্রামের সমাবেশ আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ১০ নম্বর বিপদ সংকেত। আওয়ামী লীগের হাতে দেশ নিরাপদ নয়।  

শুক্রবার (১২ আগস্ট) বিকেলে কাজীর দেউড়ি নাসিমন ভবন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদে কেন্দ্র ঘোষিত এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।  

মীর নাছির বলেন, আওয়ামী লীগ জনগণের সরকার নয়। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সরকার। বাহিনীর আশ্রয়ে তারা টিকে আছে। দেশের মানুষ আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে অত্যন্ত ক্ষুব্ধ। তাদের রাস্তায় নামতে দেবে না। রাস্তায় নামলে জনগণ তাদের লাঠিপেটা করবে।

সভাপতির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহবায়ক ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, আজকের জ্বালানি সংকট, অর্থনৈতিক সংকট, বিদ্যুতের লোডশেডিং, বিদ্যুতের সংকট সবকিছুর মূলে এই সরকারের দুর্নীতি। লুটপাট ও চুরি করে সরকার দেশকে ফোকলা করে দিয়েছে।  

বর্তমান সরকার টিকেই আছে মানুষকে প্রতারণা করে এমন মন্তব্য করে ডা. শাহাদাত বলেন, কুইক রেন্টাল পাওয়ার প্ল্যান্টের নামে সরকার হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করেছে। তাদের নিজস্ব লোকজনকে মুনাফা পাইয়ে দিয়েছে। আজকে বাংলাদেশে যে অর্থনৈতিক সংকট, বাংলাদেশ যে দেউলিয়াত্বের দিকে যাচ্ছে, তার জন্য সম্পূর্ণ দায়ী এই আওয়ামী লীগ সরকার। এর জবাব তাদের দিতে হবে।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সদস্যসচিব আবুল হাশেম বক্কর বলেন, দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির কারণে মানুষ যখন হিমশিম খাচ্ছে, বাজারে গিয়ে আলু চাল কিনতে পারছে না, তখন জ্বালানি তেলের দাম আরও বাড়িয়ে দেওয়া অমানবিক ও নিষ্ঠুরতা। বর্তমান সরকার জেনেশুনে দেশকে ধ্বংস করছে। সাধারণ মানুষকে কষ্ট দিচ্ছে। একটি সরকারের যখন কোনো জবাবদিহি থাকে না, জনগণের সামনে দাঁড়াতে হয় না, তখন মানুষের কী হলো না হলো, মানুষ মরল কি বাঁচল, এটা তাদের কাছে বড় বিষয় হয়ে দাঁড়ায় না।

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মো. শাহ আলমের পরিচালনায় বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রম বিষয়ক সম্পাদক এএম নাজিম উদ্দীন, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক এমএ আজিজ, যুগ্ম আহবায়ক মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশাররফ হোসেন দিপ্তী, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহেদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচএম রাশেদ খান, সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু, ম‌হিলা দল‌ের ম‌নোয়ারা বেগম মনি।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫২ ঘণ্টা, আগস্ট ১২, ২০২২
এমআই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa