ঢাকা, শনিবার, ১১ ফাল্গুন ১৪৩০, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ শাবান ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

মোবাইল ব্যাংকিংসেবা ‘উপায়’ এর লাইসেন্স পেলো ইউসিবি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২১
মোবাইল ব্যাংকিংসেবা ‘উপায়’ এর লাইসেন্স পেলো ইউসিবি

ঢাকা: মোবাইল ব্যাংকিংসেবা দেওয়ার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের লাইসেন্স পেয়েছে বেসরকারি খাতের ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের (ইউসিবিএল) সাবসিডিয়ারি কোম্পানি ইউসিবি ফিনটেক কোম্পানি লিমিটেড।  

বেসরকারিখাতের সবচেয়ে পুরোনো এবং বড় ব্যাংক ইউসিবিএলের বিদ্যমান মোবাইল ব্যাংকিংসেবা ‘ইউক্যাশ’ এখন ‘উপায়’ নামে যাত্রা শুরু করবে।

বর্তমানে ইউক্যাশের ১০ লক্ষাধিক গ্রাহক রয়েছে। উপায় কার্যক্রম শুরুর পরে ‘ইউক্যাশ’ গ্রাহকরা স্বয়ংক্রিয়ভাবে উপায় প্ল্যাটফর্মে যুক্ত হবেন।

গত বছরের ২৮ ডিসেম্বর বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে লাইসেন্স পাওয়া ‘উপায়’ চলতি বছরের মার্চ মাসের মাঝামাঝি সময়ে চালু হতে পারে।

বিকাশের পরে এটি কোনো ব্যাংকের সবচেয় বড় সাবসিডিয়ারি মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস কোম্পানি। যার যাত্রা শুরু হয়েছে ২০১১ সালে।

ইউসিবি ফিনটেক কোম্পানি জানায়, মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস রেগুলেশন মেনে পরিচালিত হবে। ‘উপায়’ সেবা চালু হওয়ার দিন থেকেই ইউক্যাশ এবং ইউপে এর গ্রাহকরা নতুন মোবাইলসেবার গ্রাহক হয়ে যাবেন। উপায় এর এমএফএস প্ল্যাটফর্ম ব্লক চেইন ভিত্তিক। এখানে গ্রাহক নিরাপত্তাকে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছে।

‘উপায়’ এর মাধ্যমে মোবাইলে টাকা লেনদেন, ইউটিলিটি বিল পেমেন্ট, কেনাকাটার মূল্য পরিশোধ, রেমিট্যান্স গ্রহণ, বেতন দেওয়া, এয়ারটাইম ক্রয়, ইন্ডিয়ান ভিসা ফি, ট্রাফিক ফাইন পেমেন্টসহ নানা ধরনের ভ্যালু অ্যাডেড সেবা পাওয়া যাবে। গ্রাহকরা দেশজুড়ে উপায় এর এজেন্ট এবং মার্চেন্ট নেটওয়ার্ক থেকে এ সেবা নিতে পারবেন।   

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০২০ সালের ডিসেম্বর মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস প্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে লেনদেন হয়েছে ৫৫ হাজার ৫৫৭ কোটি টাকা। যা আগের মাসের তুলনায় ৫ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি।

বর্তমানে ১৫টি ব্যাংকের মোবাইল ফিন্যান্সিয়াল সার্ভিস চালু রয়েছে। গত বছরের ডিসেম্বরের শেষে গ্রাহকের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ২৩ লাখ।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ইউসিবি ফিনটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইদুল হক খন্দকার বলেন, “এ বছরের প্রথম প্রান্তিকেই ‘উপায়’ এর যাত্রা শুরু হবে। গ্রাহককে একটা সহজ, নিরাপদ এবং সাশ্রয়ী আর্থিকসেবা দেওয়ায় আমরা ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছি।

তিনি বলেন, দেশের কোটি কোটি মানুষকে ধারাবাহিক ডিজিটাল আর্থিক সেবা দেওয়ার মাধ্যমে আর্থিক অন্তর্ভুক্তিকে বেগবান করে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার সঙ্গী হতে চায় উপায়।  

তিনি আরও বলেন, ডিজিটাল আর্থিক সেবায় এক নতুন অধ্যায়ের সূচনা করতে যাচ্ছে উপায়। গ্রাহক চাহিদাকে সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়ে, উৎকৃষ্ট গ্রাহকসেবা, নিরাপদ লেনদেন আর নিত্য নতুন উদ্ভাবন নিয়ে সর্বদা তদের পাশে থেকে কাজ করবে উপায়।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২১
এসই/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।