ঢাকা, রবিবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিনোদন

ঢাকায় প্রসেনজিত : আমার পরিশ্রম বৃথা যায় নি

বিনোদন প্রতিবেদন | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৫, ২০১০
ঢাকায় প্রসেনজিত : আমার পরিশ্রম বৃথা যায় নি

লালন সাইয়ের জীবন ও দর্শন নিয়ে গৌতম ঘোষ নির্মিত ছবি ‘মনের মানুষ’-এর বিশেষ প্রদর্শনীতে যোগ দিতে ০৫ ডিসেম্বর সকালে ঢাকা এসেছেন কলকাতার সুপারস্টার প্রসেনজিত চট্রোপাধ্যায়। সন্ধায় বসুন্ধরা সিটির স্টার সিনেপ্লেক্সে তিনি ছবির কলাকুশলী, নেপথ্যকর্মী ও পরিবেশকদের সঙ্গে বসে ছবিটি উপভোগ করেন।



‘মনের মানুষ’ ছবির এই বৈঠকী প্রদশর্ণীতে প্রসেনজিতসহ উপস্থিত ছিলেন ছবির পরিচালক গৌতম ঘোষ, অন্যতম প্রযোজক  ভারতের রোজ বেলি ফিল্মসের কর্ণধার গৌতম কুন্ডু, আশির্বাদ চলচ্চিত্রের কর্ণধার হাবিবুর রহমান, ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, অভিনেতা রাইসুল ইসলাম আসাদ, চঞ্চল চৌধুরী  এবং অন্যান্য কলাকুশলী আমন্ত্রিত অতিথিরা।

‘মনের মানুষ’ ছবিতে লালনের ভূমিকায় অভিনয় করাকে তার শিল্পীজীবনের অন্যতম সেরা কাজ বলে মনে করেন প্রসেনজিত। ঢাকায় পা রেখে তিনি নিজের অনুভূতির কথা জানিয়ে বাংলানিউজকে বলেন, ছবিটি কলকাতার মানুষ বেশ আগ্রহের সঙ্গে দেখছেন। বাংলাদেশের মানুষ ছবিটি কীভাবে নিচ্ছে তা দেখার  জন্য নিজের একান্ত আগ্রহেই আমার ঢাকায় আসা। লালনের চরিত্রে অভিনয় করতে পারায় নিজেকে আমি সম্মানিত মনে করি।

প্রসেনজিত ‘মনের মানুষ’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য এরই মধ্যে গোয়া ফিল্ম ফ্যাস্টিভ্যালে বিশেষ সম্মাননা পেয়েছেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আসলে আনুষ্ঠানিক পুরস্কার বা সম্মাননাকে আমি বড় করে দেখছি না। সাধারণ দর্শকের কাছে আমার অভিনয় গ্রহণযোগ্য হলেই পাবো সার্থকতা। লালন সম্পর্কে তিনি বলেন, লালন আমার কাছে প্রিয় একটি বিষয়। আমি সঙ্গীতপ্রিয় মানুষ। অভিনয়ে আসার আগে থেকেই লালনসঙ্গীতের আমি একজন মনোযোগী শ্রোতা। বাংলাভাষায় কথা বলবো আর লালনকে চিনবো তা হয় না।

এক প্রশ্নের উত্তরে প্রসেনজিত বলেন, লালনের চরিত্রে অভিনয়ের জন্য প্রায় এক বছর আগে থেকেই আমি প্রস্তুতি গ্রহণ করি। অভিনয়ে মনোসংযোগ যাতে ব্যাহত না হয়, তাই ‘মনের মানুষ’-এর শুটিং চলার সময় প্রায় ৬মাস আমি অন্য ছবিতে কাজ করা থেকে বিরত ছিলাম। ছবিটি দেখার পর মনে হয়েছে, আমার পরিশ্রম বৃথা যায় নি।

বাংলাদেশে ছবি সম্পর্কে তার ধারণ জানতে চাইলে প্রসেনজিত বলেন, একটা সময় তো বাংলাদেশে বেশ ভালো ছবি তৈরি হতো। মাঝে কিছুদিন বাজে সময় গেছে। এখন আবার ভালো ছবি তৈরি হচ্ছে বলে শুনেছি। কলকাতার বিভিন্ন ফিল্ম ফ্যাস্টিভ্যালে বাংলাদেশের ছবি নিয়মিত অংশ নিচ্ছে। আমি সময়-সূযোগ পেলে সেগুলো দেখার চেষ্টা করি।

৬ ডিসেম্বর সোমবার সকালে চ্যানেল আই কার্যালয়ে ‘মনের মানুষ’ শুভমুক্তি পরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে। এতে উপস্থিত থাকবেন প্রসেনজিত। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত থাকবেন ছবির পরিচালক গৌতম ঘোষ এবং ছবির দুই প্রযোজক ইমপ্রেস টেলিফিল্মের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর এবং  আশির্বাদ চলচ্চিত্রের কর্ণধার হাবিবুর রহমান।

উল্লেখ্য, ৫৮ বছর পর বাংলাদেশ ও ভারতে একইদিন গত ৩ ডিসেম্বর মুক্তি পায় ‘মনের মানুষ’ ছবিটি। বাংলাদেশে এখন ছবিটি চলছে ঢাকার স্টার সিনেপ্লেক্স, বলাকা, গ্যারিসন, অভিসার, খুলনার সঙ্গীতা, যশোহরের মনিহার, বরিশালের অভিরুচি, দিনাজপুরের মর্ডান, সাভারের সেনা অডিটরিয়াম, পাবনার রূপকথা, নওঁগার তাজ ও ময়মনসিংহের পূরবী সিনেমা হলে। একইদিন থেকে ভারতজুড়ে মুক্তি পেয়েছে প্রায় ১০০টি সিনেমা হলে একযোগে। সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত ‘মনের মানুষ’ ছবিতে আরো অভিনয় করেছেন রাইসুল ইসলাম আসাদ, চম্পা, চঞ্চল চৌধুরী, পাওলি ধাম, রোকেয়া প্রাচী প্রমুখ। চলচ্চিত্রটি যৌথভাবে প্রযোজনা করেছে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম, আশীর্বাদ চলচ্চিত্র এবং রোজ বেলি ফিল্মস।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ২১৫০, ডিসেম্বর ০৫,২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa