ঢাকা, সোমবার, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৮ আগস্ট ২০২২, ০৯ মহররম ১৪৪৪

ফিচার

সংখ্যাতত্ত্বের চোখে আপনার বছর

রাজা হাসান | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৩, ২০১১
সংখ্যাতত্ত্বের চোখে আপনার বছর

ক্যালেন্ডারের পাতায় আরেকটি নতুন বছরের আবির্ভাব ঘটল, ২০১১। নতুন বছর অনেক নতুন প্রত্যাশা ও জিজ্ঞাসা নিয়ে আমাদের সামনে হাজির।

বছরটি আমার কেমন যাবে? বিগত বছরের কষ্ট-কেশ কি নতুন বছরেও তাড়িয়ে বেড়াবে? চলতি সমস্যার সমাধান কি হবে? এবার কি প্রমোশনটা জুটবে? ঘর বাঁধার স্বপ্ন পূরণ হবে তো? ব্যবসায়ের মন্দা কি কাটবে এবার? শুনতে পাব কি বাবা-মা ডাক এই বছরে? এমন হাজারো প্রশ্ন ইতস্তত উঁকি দিয়ে যায় প্রত্যেক মানুষের মনে। আর এ অসংখ্য প্রশ্নের উত্তর বা উত্তরের ইঙ্গিত দেওয়ার জন্যই এ রচনা। ১ থেকে ৯ পর্যন্ত জন্মসংখ্যার জাতক-জাতিকাদের মনের কোণে জেগে ওঠা নানা প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্যই এই লেখা। এছাড়া আছে সম্ভাবনা ও সতর্কতার বিভিন্ন ইশারা। জানাচ্ছেন সংখ্যাতত্ত্ববিদ রাজা হাসান।

সংখ্যা ১ : পারিবারিক সৌহার্দ আর মমতা বৃদ্ধির বছর
যে কোনো মাসের ১, ১০, ১৯ বা ২৮ তারিখে জন্ম নেওয়া ব্যক্তিরা হয়ে থাকেন প্রথম সংখ্যার জাতক বা জাতিকা।
১ সংখ্যার জাতক-জাতিকাদের সব মিলিয়ে ভালোই কাটবে বলে আশা করা যায় ২০১১ সালটি। চাকরিস্থলে কাক্সিক্ষত প্রমোশনটা এ বছর হয়তো পেয়েই যাবেন। ব্যবসা-বাণিজ্যেও কাক্সিক্ষত মাত্রায় লাভবান হতে পারবেন।

পারিবারিক ক্ষেত্রে নানা উপলে পারস্পরিক যোগাযোগটা আরো গাঢ় হবার সম্ভাবনা। বন্ধুবান্ধব নিয়ে সামাজিকভাবে আনন্দঘন সময় কাটাবেন। বিয়ে করার চেষ্টা বা প্ল্যান করেও যারা এতদিন নানা কারণে পেরে উঠেননি, এ বছর আশা করা যায় তারা বাসর সাজাতে সমর্থ হবেন। সন্তানকেন্দ্রিক কোনো আনন্দ বা সুসংবাদ এ বছর লাভ করবেন বলেও আশা করা যায়। ছাত্রছাত্রীরা চেষ্টা-তদবিরে কাক্সিক্ষত ফল লাভ করতে পারেন। তবে রাজনীতি সংশ্লিষ্টদের এক বা একাধিকবার বিপর্যয়ের মুখোমুখি হবার শঙ্কা আছে। সমাজ সংশ্লিষ্টদের সামাজিক এবং পারিবারিক ক্ষেত্রে মানমর্যাদা বৃদ্ধি পেতে পারে। বন্ধুবান্ধবদের সহযোগিতা এ বছর আপনার জীবনে বিশেষ ভূমিকা রাখার সম্ভাবনা আছে। জানুয়ারি, এপ্রিল, জুলাই, আগস্ট এবং অক্টোবর মাসে দেশে-বিদেশে কোথাও কোনো উপলে সফরে যেতে পারেন।

শরীর-স্বাস্থ্য আশা করা যায় ভালোই কাটবে। তবে একটু বয়স্করা উচ্চ রক্তচাপ আর হৃৎযন্ত্র সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সতর্ক থাকবেন। প্রয়োজনীয় এবং পরিমিত বিশ্রাম গ্রহণ করুন। অত্যধিক টেনশন, মানসিক আর শারীরিক চাপ আপনার নার্ভাস ব্রেক ডাউনের কারণ হবার শঙ্কা আছে এ বছর। ১০, ১৩, ১৬, ১৯, ২২, ২৫, ২৮, ৩১, ৩৪, ৩৭, ৪০, ৪৩, ৪৬, ৪৯, ৫২, ৫৫, ৫৮, ৬১, ৬৪, ৬৭ ইত্যাদি বয়সে যারা পদার্পণ করবেন বিভিন্ন কারণে তাদের জীবনে কোনো স্মরণীয় ঘটনা ঘটতে পারে।

সংখ্যা ২ : অনেক আয়  এবং প্রচুর ব্যয়ের বছরRaja-Vai
যারা যে কোনো মাসের ২, ১১, ২০ কিংবা ২৯ তারিখে জন্মগ্রহণ করেছেন তাদের জন্মসংখ্যা ২।

২ সংখ্যার জাতক জাতিকারা এ বছর ভালোমন্দ আর শুভ-অশুভর মিশ্র ফল উপভোগ করবেন। বিবাহেচ্ছু আর বিবাহচেষ্ট অনেকেই পছন্দের স্ত্রী বা স্বামী পেয়ে যেতে পারেন একেবারে বছরের শুরুতেই অর্থাৎ ফেব্র“য়ারি মাসেই। কেউ কেউ আবার এই সঙ্গী বা সঙ্গিনী নির্বাচন করতে কিছুটা বা বেশ কিছুটা সময়  নিতে অর্থাৎ নভেম্বর পর্যন্ত যেতে পারেন। চাকুরিজীবী হলে আপনি চান বা না চান আপনার কোনো ট্রান্সফার নিতে হতে পারে এ বছর। ব্যবসায়ীরা বেশ কিছু বাধার মুখোমুখি হলেও শেষ অব্দি লাভজনক সমাপ্তিই অর্জন করতে সমর্থ হবেন।

পারিবারিক পরিবেশে যদিও শান্তি বিরাজ করবে, তবু শিার্থীরা পারিবারিক বা অন্য কোনো কারণে বিদ্যার্জনের কাজে বাধাবিঘ্নের সম্মুখীন হতে পারেন। চাকুরিজীবি, ব্যবসায়ী আর পেশাজীবী সবাই যথেষ্ট অর্থ উপার্জন করবেন। তবে নানা কারণে নানা পথে সে অর্থ ব্যয়ের পরিমাণের মাত্রাও হবে লণীয়। আইনশৃঙ্খলা, প্রশাসন এবং সরকারসংশ্লিষ্ট পেশার ব্যক্তিদের অবৈধভাবে অর্থ গ্রহণের দায়ে অভিযুক্ত হয়ে নাস্তানাবুদ, এমনকি চাকরিহারা হবারও শঙ্কা আছে। তাই সংশ্লিষ্টরা এ বিষয়ে সতর্ক থাকুন।

রাজনীতি সংশ্লিষ্টরা নানাভাবে আলোচিত বা সমালোচিত হবার পরেও লাইম লাইটে এসে পড়তে পারেন। ২ সংখ্যার জাতক জাতিকার পারিবারিক বা দাম্পত্য ক্ষেত্রে এ বছর পারস্পরিক হৃদ্যতা আগের চেয়ে বৃদ্ধি পাবে। বিদেশ গমনেচ্ছুদের বিদেশ যাত্রা বাধাগ্রস্ত হতে পারে। যারা পর্যটনের উদ্দেশ্যে বিদেশ যেতে চাচ্ছেন তাদেরও যাত্রায় বিঘ্ন ঘটতে পারে। তবে দূরের যাত্রায় বিঘ্নতা থাকলেও অ-দূরের যাত্রায় অর্থাৎ দেশের অভ্যন্তরের সফর আরামদায়ক ভাবেই উপভোগ করবেন বলে আশা করা যায়।

২ সংখ্যার জাতক-জাতিকার প্রায়শই ঠান্ডাজনিত রোগ বালাইয়ের কষ্ট পেয়ে থাকেন। এ বছরও সেরকমটি ঘটতে পারে, তাই সতর্ক থাকুন। এ ছাড়া উদরবিকার, বদহজম, ডায়রিয়া, ডিসেন্ট্রি এবং ফুড পয়জনিংয়ের ব্যাপারে সতর্ক থাকা জরুরি। আর রক্তশূন্যতা এবং হৃদযন্ত্রের দুর্বলতা যেন কোনো জটিল রোগের জন্ম না দেয় সে ব্যাপারেও সতর্ক থাকা প্রয়োজন।

সংখ্যা ৩ :  অর্থ আয় এবং ব্যাপক ভ্রমণের বছর
যে কোনো মাসের ৩, ১২, ২১ বা ৩০ তারিখের জন্ম নেওয়া ব্যক্তিদের বলা হয় ৩ সংখ্যার জাতক-জাতিকা।

স্বাস্থ্যগত দিক বাদ দিলে এ বছর ৩ সংখ্যার জাতক-জাতিকাদের ভালোই কাটবে বলে আশা করা যায়। শিার্থীরা এ বছর পরীায় ভালো ফল দেখাতে সমর্থ হবেন। এমনকি প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষাতেও অবাক করে দেয়ার মতো সাফল্য দেখাতে পারেন। এ বছরে বিয়েশাদির ক্ষেত্রে বাধার সম্মুখীন হলেও বছরের শেষার্ধে কেউ কেউ বাসর রচনায় সাফল্য দেখাতে পারবেন।

পারিবারিক ক্ষেত্রে অতটা শুভ ভাব বজায় নাও থাকতে পারে। চাকরিজীবীদের এ বছরটা প্রচ- ব্যস্ততার মধ্যে দিয়ে যাবে। ব্যবসায়ীরা আহামরি উন্নতি লাভ করতে না পারলেও চড়াইউতরাইও খুব একটা দেখবেন না। অর্থাৎ ব্যবসায়িক স্থিতি খানিকটা অপরিবর্তনীয় থাকবে বলেই আশা করা যায়।

৩ সংখ্যার জাতক-জাতিকাদের এ বছর প্রচুর ভ্রমণে করতে হতে পারে। ভ্রমণ আয়-ব্যয়ের সমতা রা করা খানিকটা কঠিনই হবে। তবে অন্যান্য ক্ষেত্রে আর্থিকভাবে লাভবান  হবার সম্ভবনা আছে। সামাজিক ক্ষেত্রে এ বছর যশখ্যাতি লাভের সম্ভাবনা আছে, রাষ্ট্রীয় এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রেও। যারা রাজনীতির সাথে জড়িত, তাদের নানারকম শুভ ফললাভের সম্ভাবনা আছে।

যাদের বয়স ৩, ৬, ১২, ১৫, ২১, ২৪, ৩০, ৩৩, ৩৯, ৪২, ৪৮, ৫১, ৫৭, ৬০, কোনো ঘটনার কারণে বছরটা তাদের জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। যিনি যে কাজে বা পেশাতেই নিয়োজিত থাকুন না কেন এ বছর ভাগ্য আপনার অনুকূলে থাকবে বলেই আশা করা যায়। তবে স্বাস্থ্যগত ব্যাপারে এ বছর বিশেষ সতর্কতা প্রয়োজন। বিশেষত রক্ত, ধমনী, নাক, চর্ম, কিডনি, গলা, ফুসফুস এবং বব্যাধির বিষয়ে এ বছর খুবই সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। এসবের যে কোনোটিতে কোনো ক্রটি বা সমস্যা দেখা দিলেই যথাযথ চিকিৎসকের পরামর্শ এবং প্রয়োজনীয় বিশ্রাম গ্রহন করা অতি জরুরি।

সংখ্যা ৪ : নানা দিক দিয়ে সফলতার বছর
কেনো মাসের ৪, ১৩, ২২ বা ৩১ তারিখে যে পুরুষ বা নারী জন্মগ্রহণ করেন তার জন্ম সংখ্যা ৪ হয়।

৪ সংখ্যার জাতক-জাতিকারা ২০১১ বছরটি নানাভাবে উপভোগ করবেন। যারা দীর্ঘ দিন বেকার ছিলেন তারা বছর শুরুতেই নতুন চাকরি বা কর্মপ্রাপ্তির সুসংবাদ লাভ করবেন। এমনকি যারা বর্তমান চাকরিতে বিরক্ত হয়ে জব পরিবর্তনের চেষ্টা করছেন তারাও সফল হয়ে যাবেন। প্রযোজ্য জনের কাক্সিক্ষত উন্নতি বা পদোন্নতির ফলে আর্থিক অবস্থার উন্নতি ঘটবে। যারা ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে জড়িত তারা ব্যবসায়িক কাজে যথেষ্ট সফলতা দেখাতে পারবেন। যারা দীর্ঘ দিন ধরে বিয়ে করার ব্যাপারে নানাভাবে ঢিলেমি করেছেন হঠাৎ করেই তারা নিজেকে বাসরঘরে আবিষ্কার করতে সমর্থ হবেন।

পরিবারে কোনো আনন্দদায়ক আর মঙ্গলকর অনুষ্ঠানের আয়োজন হতে পারে। শিক্ষার্থীরা পড়াশোনায় এবং পরীক্ষায় কাক্সিক্ষত সাফল্য লাভ করবেন। প্রতিযোগিতামূলক কোনো পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে সফলতা দেখাতে পারবেন। যারা ব্যবসা-বাণিজ্য শুরু করতে যাচ্ছেন তারা বেশ কৃতিত্ব আর সফলতার সাথে ব্যবসায়ে আত্মনিয়োগ করতে পরবেন। এ বছর আপনারা ভ্রমণ ও পর্যটনজাতীয় কাজ খুব আনন্দ  উপভোগের মাধ্যমে সম্পন্ন করতে পারবেন।

জাতক-জাতিকা নির্বিশেষে সচ্ছল আর্থিক অবস্থা আর আর্থিক উন্নতি দিয়ে বছরটি কাটাবেন। পারিবারিকভাবে নানা শুভকর আর আনন্দদায়ক ঘটনা আপনার মনকে প্রফুল্ল করবে আর জীবনকে করবে সমৃদ্ধ। দাম্পত্য ক্ষেত্রে পারস্পারিক সম্পর্ক আগের তুলনায় উন্নতি লাভ করবে। শরীর-স্বাস্থ্যও বেশ ভালো থাকবে আশা করি এ বছর। তবু মে, জুলাই এবং আগস্ট মাসে শরীরের প্রতি যত্নশীল থাকুন। আর যারা কিডনি, গলব্লাডার, ব্যাক পেইন এবং শরীর অভ্যন্তরের কোনো প্রদাহ রোগে ভুগছেন তারা রোগের প্রকোপ বৃদ্ধির কারণগুলি এড়িয়ে চলতে চেষ্টা করুন।

৪ সংখ্যার জাতক জাতিকাদের মধ্যে যারা এ বছর ৪, ১৩, ২২, ৩১, ৪০, ৫৮, ৬৭, ৭৬, ৮৫ ইত্যাদি বয়সে পদার্পণ করবেন যে কোনো উল্লেখযোগ্য ঘটনার কারণে ২০১১ সালটি তাদের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

সংখ্যা ৫ : সফল ভ্রমণের বছর
কোনো মাসের ৫, ১৪ বা ২৩ তারিখে যারা জন্মগ্রহণ করেন তাদের জন্মসংখ্যা হয় ৫।

২০১১ সালটি ৫ সংখ্যার জাতক-জাতিকার জন্য বেশ কিছু শুভ ঘটনার সূচনা করবে বলে আশা করা যায়। এ বছর কোনো শুভ অনুষ্ঠান ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। অবিবাহিত জাতক-জাতিকাদের বিবাহের সম্বন্ধ আসার বা স্থির হওয়ার ঘটনা ঘটতে পারে। ধর্মকর্মে অনেকে আগের তুলনায় বেশী উৎসাহী হয়ে উঠতে পারেন। এমনকি তীর্থ ভ্রমণ বা হজযাত্রায় উদ্যোগী হয়ে উঠতে পারেন কেউ কেউ।

পারিবারিক ক্ষেত্রে পারস্পারিক সম্প্রীতি বৃদ্ধি পাবে। নিজ বুদ্ধিমত্তার গুণে অনেকেই চলতি কোনো পারিবারিক সংকট কাটিয়ে উঠতে সমর্থ হবেন। আপনাদের আর্থিক অবস্থা এ বছর অনুকূলেই থাকবে। চাকরিজীবীরা বেশ আরামেই কাটাবেন বলে আশা করা যায়। ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে জড়িতরা ব্যবসায়ে ওঠানামার সাথে সাথে লাভজনক পর্যায়ে বেশ কিছু মুনাফা অর্জনেও সমর্থ হবেন। শিক্ষার্থীরা পড়াশোনার কাজ অনেকটা নির্বিঘেœই চালিয়ে যেতে পারবেন। সমাপনী বর্ষের পরীক্ষার্থীরা এ বছর কাক্সিক্ষত ফল লাভ করতে সমর্থ হবেন। যারা যাত্রা ভ্রমণে অভ্যস্ত বা প্রায়ই যাদের দেশে-বিদেশে ভ্রমণ করতে হয় তারা হয়তো কাক্সিক্ষত পরিমাণ মাত্রায় ভ্রমণ করতে সমর্থ নাও হতে পারেন। তবে যতটুকুই করুন না কেন তা সফলতার সাথে এবং লাভজনকভাবেই করতে পারবেন।

বাড়িতে বয়োবৃদ্ধ এবং গুরুজন থাকলে তাদের একটু বেশি যত্ন নেবার চেষ্টা করুন এই বছর। খাদ্য এবং পানীয় গ্রহণের ব্যাপারে এ বছর অতি সতর্কতা অবলম্বন করতে চেষ্টা করুন। আপনার স্নায়ুতন্ত্র বা স্নায়ুতন্ত্রের কাজ বিঘ্নিত হতে পারে এমন কাজ করা থেকে এ বছর বিরত থাকুন।

সব মিলিয়ে এ বছরটা আপনি ভালোই কাটাবেন বলে আশা করি। আর যারা ৫, ৮, ১৪, ১৭, ২৩, ২৬, ৩২, ৩৫, ৪১, ৪৪, ৫০, ৫৩, ৫৯, ৬২, ৬৮, ৭১ ইত্যাদি বয়সে পা রাখবেন, কোনো ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এ বছরটা আপনার জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

সংখ্যা ৬ : নানামুখী চাপ আর  তা থেকে উত্তরণের বছর
যারা কোনো মাসের ৬, ১৫ বা ২৪ তারিখে জন্মগ্রহণ করে থাকেন, তার জন্মসংখ্যা হয় ৬।

২০১১ সালটি ৬ সংখ্যার জাতক-জাতিকাদের জন্য শুভ ফলদায়ক হবে বলেই আশা করা যায়। পরিবারের সদস্যের মধ্যে সম্প্রীতি বজায় থাকবে। সন্তানবিষয়ক সমস্যার, আশা করা যায়,  সমাধান হয়ে পড়বে। ছাত্রছাত্রীরা একটু চাপের মধ্যে থাকলেও নিষ্ঠা এবং অধ্যবসায়ের গুণে ভালো ফলই করবেন।

রাজনীতি সংশ্লিষ্টরা নানা রকম সংকটে থাকলেও দৈবগুণে সমস্যা থেকে উত্তরণ ঘটাতে সমর্থ হবেন। চাকরিজীবীরা কর্মগুণে না হলেও অন্য কোনো উপায়ে ওপরওয়ালা বা বসকে তুষ্ট করতে সমর্থ হবেন এবং আশা করা যায় তার বিপরীতে কাক্সিক্ষত ফল লাভও করবেন। যারা চাকরি সন্ধান করছেন বছর শুরুতে বেশ কিছু দিন হতাশায় কাটালেও জুন মাসের দিকে তারা নতুন চাকরি লাভ করবেন বলে আশা করা যায়। বিবাহ-ইচ্ছুকরা বেশ কিছুদিন ধরেই হয়তো বিয়ের ব্যাপারে বাধাগ্রস্ত হয়ে আছেন, এ বছরেও তা অব্যাহত থাকবে বলে আশঙ্কা করি। তবে উপযুক্ত বিশেষজ্ঞের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করে সমস্যা থেকে পরিত্রাণ লাভ করতে পারেন।

ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে জড়িতরা নতুন নতুন পন্থায় ব্যবসায়ের উন্নতি ঘটাতে পারবেন বলে আশা করা যায়। এ বছরে ৬ সংখ্যার নর-নারীদের আর্থিক অবস্থা তুলনামূলক ভালো যাবে বলে আশা করা যায়। যারা অধ্যাপনা, গবেষণা ইত্যাদি কাজের সাথে জড়িত তারা এ বছরে উল্লেখযোগ্য কোনো সাফল্য দেখাতে পারবেন। ব্যক্তিগত, পেশাগত, পরিবারিক বা বিনোদনের উদ্দেশ্যে এ বছর  আপনাদের কিছু ভ্রমণ করতে হতে পারে। কেউ কেউ দীর্ঘ দিনের জন্য উড়াল দিতে পারেন সুদূর প্রবাসে। শরীর-স্বাস্থ্যের  ব্যাপারে এ বছর খুব একটা উদ্বিগ্ন হবার কিছু নেই। তবে জ্বর এবং ইনফুয়েঞ্জা থেকে সতর্ক থাকুন। আর একটু বয়স্করা ফুসফুস, স্নায়ু, হৃৎপিন্ড, মূত্রাশয় এবং কফজনিত রোগবালাই থেকে সতর্ক থাকুন।

৬, ১৫, ২৪, ৩৩, ৪২, ৫১, ৬০, ৭৮ ইত্যাদি বয়সে যারা পদার্পণ করছেন ২০১১ সালটি তাদের জন্য কোনো না কোনোভাবে ঘটনাবহুল এবং স্মরণীয় হয়ে থাকবে।

সংখ্যা ৭ : মানসিক সংকটের আর আধ্যাত্মিক উন্নতির বছর
কোনো মাসের ৭, ১৬, ২৫  তারিখে জন্ম নেওয়া ব্যক্তিরা হন ৭ সংখ্যার জাতক বা জাতিকা।

২০১১ সাল ৭ সংখ্যার জাতক-জাতিকাদের জন্য শুভাশুভ মিশ্রিত একটি বছর হিসেবে দেখা দেবে বলে মনে হয়।   পারিবারিক দিক মোটামুটি ভালোই কাটবে। পরিবারের সদস্যদের মধ্যে আন্তঃসম্পর্কের তেমন কোনো উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন হবে না। আর্থিক বিষয়ে বলা যায় যে, এ বছর আপনার অর্থ ব্যয়ের পরিমাণ অর্থ আয়ের মাত্রাকে ছাড়িয়ে যেতে পারে। তবে অর্থাগম ঘটার পরিমাণও হবে উল্লেখযোগ্য। চাকরীজীবীদের পদোন্নতি হয় হয় করেও নানাভাবে বাধাগ্রস্ত হতে পারে।

বিবাহ উদ্যোগীদের বিয়ের সম্ভাবনা আছে তবে তা বহু কাঠখড় পুড়িয়ে । ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে যারা জড়িত তারা এ বছর  কোনো ব্যবসায় আত্মনিয়োগ বা অর্থ বিনিয়োগ না করাই ভালো হবে। যারা যানবাহন নিজে চালান তারা পথচলায় খুব সতর্ক থাকবেন। জাতক-জাতিকাদের এ বছর বিভিন্ন উপলে প্রায়ই ছোটখাটো ভ্রমণ করতে হতে পারে। কোনো সন্তানের কারণে এ বছর আপনাকে কোনো সমস্যায় পড়তে হতে পারে। শিার্থীদের লেখাপড়ার কাজে মনোনিবেশ করতে বিশেষ বেগ পেতে হতে পারে এবং কাক্সিক্ষত ফলাফল অর্জন করতে প্রচুর পরিশ্রম করতে হতে পারে। রাজনীতি সংশ্লিষ্টরা মামলা ঝামেলা ইত্যাদি মোকাবিলার কাজেই ব্যস্ত থাকবেন। জাতক-জাতিকাদের কেউ কেউ কোনো আত্মীয় বা বন্ধুর সাথে ভুল বোঝাবুঝি শিকার হতে পারেন।

এ বছর আপনি প্রচুর কাজের চাপের  মধ্যে থাকতে পারেন। অত্যধিক পরিশ্রম আপনার স্নায়ুতন্ত্রের ওপর ভীষণ চাপ ফেলতে পারে। এছাড়া পরিবারের কোনো সদস্যের শরীর-স্বাস্থ্য চিন্তায়ও আপনি টেনশনে থাকতে পারেন। যাই হোক স্নায়ুবিক সমস্যা উদরবিকার, রক্তচলাচল সম্পর্কীয় বিষয় এবং ঠা-াজনিত জ্বর বা অসুস্থতার ব্যাপারে এ বছর আপনার বিশেষ সতর্ক থাকা উচিত।

এত কিছুর পরও একটি সুসংবাদ হচ্ছে এ বছর ধর্ম কর্ম এবং আধ্যাত্মিকতার দিকে আপনারা বিশেষভাবে ঝুঁকতে পারেন। যাদের বয়স ৭, ১৬, ২৫, ৩৪, ৪৩, ৫২, ৬১, ৭০ ইত্যাদিতে পড়বে,  এক বা একাধিক ঘটনা বা কারণে এ বছর আপনার জন্য বিশেষ স্মরণীয় হয়ে থাকার সম্ভাবনা আছে।

সংখ্যা ৮: নানা রকম ঝামেলা প্রতিহত করার বছর
কোনো মাসের ৮, ১৭ বা ২৬ তারিখে যারা জন্মগ্রহণ করে থাকেন, ৮ তাদের জন্মসংখ্যা।

২০১১ সালে সংখ্যা ৮-এর জাতক-জাতিকাদের সময় খুব একটা  ভালো যাবে বলে মনে হয় না। নানা দিকের নানা সমস্যা মোকাবিলা করতেই আপনারা কান্ত হয়ে পড়বেন। কোনো কোনো কাজে ব্যর্থতা আসারও সম্ভাবনা আছে। পারিবারিক ক্ষেত্রে অন্য সদস্যদের সাথে বনিবনার ঘাটতি দেখা দিতে পারে। জমি সম্পত্তি নিয়ে সৃষ্ট সংকট এ বছর আপনার মনোকষ্টের কারণ হতে পারে।

ব্যবসা-বাণিজ্যে অধিক মনোযোগ প্রয়োগ না করলে তা কোনো রকম তির আশঙ্কা নিয়ে আসবে। চাকরিতে সহকর্মীদের সাথে বিবাদ বা ভুল বোঝাবুঝি বিপর্যয়ের কারণ হতে পারে। পদোন্নতি প্রমোশন আরো দীর্ঘসূত্রতা পেতে পারে। যারা নির্দিষ্ট পোশাক পরিহিত বাহিনীর লোক তারা অকারণে বা বিশেষ কোনো কারণে নানা রকম হয়রানির শিকার হতে পারেন বা অপকর্মের জন্য শাস্তি পেতে পারেন। অফিস বা পরিবারের কেউ এ বছর আপনার নামে কলংকজনক কোনো অপবাদ আরোপ করতে পারে। এ বছর অন্ধভাবে কারো ওপর ভরসা করলে সে চোখ পাল্টি  দিতে পারে।

অবিবাহিতরা এ বছর বিয়ে করার কাজে নানা রকম উটকো ঝামেলার মুখোমুখি হতে পারেন। এ বছর আপনার দাম্পত্য জীবনেও অকারণ বচসা-বিবাদ সৃষ্টি হবার আশঙ্কা আছে। স্বামী বা স্ত্রীর শরীর স্বাস্থ্য নিয়েও বিস্তর টেনশন এবং দৌড়াদৌড়ি করতে হতে পারে। খুব বেশি রকম প্রয়োজন না থাকলে এ বছর যাত্রা ভ্রমণের কাজে বিরতি দিন।   কোন গুপ্ত রোগে এ বছর আপনার কষ্ট পাবার আশঙ্কা আছে। এ ছাড়া দাঁত, কান আর পায়ের কোনো রোগেও কষ্ট পেতে পারেন। বাত ব্যথা বৃদ্ধি এবং পাঘাতের ব্যাপারেও খুব সতর্ক থাকুন। কারণ এ বছর যে কোনো অসুস্থতায় আক্রান্ত হলে তা থেকে পরিত্রাণ পেতে আপনার বেশ কিছুদিন সময় লাগবে।

যাদের বয়স ৮, ১৭, ২৬, ৩৫, ৪৪, ৫৩, ৬২, ৭১ ইত্যাদি এ বছরটি কোনো না কোনোভাবে তাদের জন্য উল্লেখযোগ্য বছর হয়ে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। আর ১৩, ২২, ৩১, ৪০, ৫৮, ৬৭, ৭৬ ইত্যাদি বয়সে যারা পদার্পণ করবেন তারা সব কাজেই একটু বেশি মাত্রায় সতর্কতা অবলম্বন করতে চেষ্টা করুন।

সংখ্যা ৯ : অযথা অর্থ ব্যয়ের বছর
কোনো মাসের ৯, ১৮, বা ২৭ তারিখে জন্ম নেওয়া ব্যক্তিরাই হন ৯ সংখ্যার জাতক-জাতিকা।

নানা রকম শুভাশুভ ঘটনায় বছরটি পরিপূর্ণ হয়ে থাকবে ৯ সংখ্যার জাতক-জাতিকাদের জন্য। এ বছর ধৈর্য, সংযম এবং সাহসিকতার সাথে প্রতিটি কাজ করলে আপনি শুভ ফল আশা করতে পারেন। যারা চাকরি  সন্ধান করেছেন তাদের চাকরিপ্রাপ্তি এ বছর বিঘিœত আর বিলম্বিত হতে পারে। আর যারা চাকরি করছেন নানা ইস্যুতে এ বছর সহকর্মী বা উপরওয়ালার সাথে তাদের ঝামেলা সৃষ্টি হতে পারে। পারিবারিক ক্ষেত্রেও খুব একটা শুভ কিছু আশা করা ঠিক হবে না। পরিবারের কোনো প্রিয়জনের সাথে দীর্ঘ বিচ্ছেদ সৃষ্টি হতে পারে। বহুদিনের বন্ধুও কোনো কারণে আপনার সাথে প্রতারণা করতে পারে। সন্তানের স্বাস্থ্য আর লেখাপড়া নিয়ে চিন্তা বা টেনশন করতে হতে পারে।

আপনার শত্র“রা এ বছর সক্রিয় থাকবে এবং ত্রে বিশেষে তারা আপনার উপর প্রভাব বিস্তারের সুযোগ নিতে পারে। এ বছর প্রচুর অর্থ ব্যয় করতে হতে পারে আপনাকে। ব্যবসায়ীরা খুব একটা লাভবান হতে পারবেন বলে মনে হয় না। আয়-ব্যয়েও এ বছর ভারসাম্যের অভাব দেখা দিতে পারে। ব্যবসায়ে কোনোভাবে তিগ্রস্ত না হন সে বিষয়ে সতর্ক দৃষ্টি রাখুন। যাত্রা বা ভ্রমণে অকারণে এবং অবাঞ্ছিত দুর্ভোগ পোহাতে হতে পারে। শরীর-স্বাস্থ্য এ বছর খুব একটা ভালো যাবে বলে মনে হয় না। কারো কারো দেহে কোনো অস্ত্রোপ্রচার করতে হতে পারে। গরমের মৌসুমে রৌদ্র এবং গরম থেকে সতর্ক থাকবেন। নতুন বা পুরনো অর্শ রোগের কারণে কষ্ট পেতে পারেন কেউ কেউ। এছাড়া গলার সমস্যা, কফ, কাশি ইত্যাদিতেও ভোগার আশঙ্কা আছে। কারো কারো কিডনি গল ব্লাডারে স্টোন ধরা পড়ার আশঙ্কা আছে। সব মিলিয়ে সতর্কতা অবলম্বন করুন সবাই।

যাদের বয়স ৯, ১৮, ২৭, ২৬, ৩৬, ৪৫, ৫৪, ৬৩, ৭২ ইত্যাদিতে পড়বে এ বছরটা তাদের জন্য উল্লেখযোগ্য নানা ঘটনার কারণে স্মরনীয় হয়ে থাকবে।

আরো কয়েকটি জরুরি কথা
২০১১ সালের সংখ্যা হচ্ছে  (২+০+১+১)= ৪। এখানে ১ থেকে ৯ সংখ্যার জাতক-জাতিকার এ বছরটি কেমন যাবে তা সাদামাটাভাবে বর্ণনা করা হলো। ১ থেকে ৯-এর প্রতিটি সংখ্যার সাথে এ বছরের সংখ্যা ৪-এর সম্পর্ক কেমন তার ওপর ভিত্তি করেই খুব সতর্কভাবে এ রচনা তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু কোনো জাতক বা জাতিকার ব্যক্তিগত জন্মতারিখ পূর্ণভাবে বিচারের সাথে সাথে এর অনেক বর্ণনাই হয়তো পাল্টে যাবে। কারণ কোনো জাতকের বর্তমান-ভবিষ্যৎ বিচারে জন্মসংখ্যার সাথে জন্ম মাস এবং বছরটি গণনায় এবং বিবেচনায় রাখতে হয়। তাই অতি উৎসাহী কোনো পাঠক বা পাঠিকা এ লেখায় তার সংখ্যার অশুভ কোনো ভবিষ্যদ্বাণী দেখে মুষড়ে পড়বেন, বা খুব শুভ ভবিষ্যদ্বাণী পড়ে আনন্দে উদ্বেলিত হবেন, কোনোটাই  কাম্য নয়। কারণ মানুষ তার কর্মের দ্বারা ভাগ্যকে  অনেকটাই পরিবর্তন করে ফেলতে পারে। যে কাজ কখনই হবার নয় সে কাজেও মানুষ বহু চেষ্টায় সফল হয়। আবার কর্মের দোষে সৌভাগ্যকে অর্জন করতে ব্যর্থ হয়।

পাঠক-পাঠিকাকে মনে রাখার অনুরোধ করি, মা-বাবা, গুরুজন আর বয়োবৃদ্ধের ভক্তি করলে মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন ঘটে। প্রার্থনায় নাশ হয় দুর্ভাগ্যযোগ। সর্বোপরি দানশীলতায় ভাগ্য ফেরে। যার সময় খারাপ যায়, দানকর্ম তার সৌভাগ্যকে ডেকে নিয়ে আসে। আর সৌভাগ্যপ্রাপ্তদের দান তাদের ভাগ্যকে  সমৃদ্ধ থেকে সমৃদ্ধতর করে। তাই আশা করি আপনার সংখ্যা যাই হোক না কেন আপনি নিজেই আপনার সৌভাগ্য অর্জন করার জন্য সচেষ্ট হবেন।

বাংলাদেশ সময় ১৮০০, জানুয়ারি ১৩, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa