ঢাকা, রবিবার, ৮ কার্তিক ১৪২৮, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

মোল্লা আবদুল গনির নেতৃত্বেই হচ্ছে তালেবানের নতুন সরকার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩, ২০২১
মোল্লা আবদুল গনির নেতৃত্বেই হচ্ছে তালেবানের নতুন সরকার

ঢাকা: শুক্রবারের (৩ সেপ্টেম্বর) মধ্যেই আফগানিস্তানে নতুন সরকারের নাম ঘোষণা করবে তালেবানরা। তারা এমন এক সময় এই সরকার গঠন করতে যাচ্ছে যখন দেশ পরিচালনায় আরও সহনশীল, বিশেষ করে নারীদের অধিকারের প্রতি আরও নমনীয় হওয়ার জন্য তাদের ওপর স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক চাপ বেড়েছে।

 

দুই তালেবান নেতার বরাত দিয়ে এএফপি খবর দিয়েছে শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) পবিত্র জুমার নামাজের পর যে কোনো সময় নতুন সরকারের সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হবে। এজন্য যাবতীয় প্রস্তুতি শেষ পর্যায়ে। সব শীর্ষ নেতা এরই মধ্যে কাবুলে পৌঁছেছেন।

রয়টার্সের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আফগানিস্তানের নতুন সরকারের প্রধান হবেন তালেবানের রাজনৈতিক শাখার প্রধান মোল্লা আবদুল গনি বারাদার। তার শীর্ষ নির্বাহী হিসেবে থাকবেন তালেবানের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা মরহুম মোল্লা মোহাম্মদ ওমরের ছেলে মোল্লা মোহাম্মদ ইয়াকুব এবং শের মোহাম্মদ আব্বাস স্তানিকজাই।

আর সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা হচ্ছেন হাইবাতুল্লাহ আখুনজাদা। দেশটির ধর্মীয় বিষয় এবং ইসলামি বিধিবিধান অনুযায়ী প্রশাসন পরিচালনার বিষয়ে নতুন সরকারের প্রধান উপদেষ্টা বা নীতি নির্ধারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি।

এদিকে আফগানিস্তানের প্রায় সব এলাকার নিয়ন্ত্রণ নিতে পারলেও পাঞ্জশির উপত্যকা এখনও তালেবান বিরোধী ন্যাশনাল রেজিস্ট্যান্স ফ্রন্টের (এনআরএফ) দখলে রয়েছে। সেখানে তালেবান যোদ্ধা ও পাঞ্জশিরের সিংহ খ্যাত মরহুম আহমেদ শাহ মাসুদের ছেলে আহমেদ মাসুদের নেতৃত্বাধীন এনআরএফ সদস্যদের মধ্যে বড় ধরনের সংঘর্ষ চলছে।

এনআরএফের মুখপাত্র ফাহিম দাশতি জানিয়েছেন, লড়াইয়ে তালেবানের ৩৫০ সদস্য নিহত এবং অনেকে আটক হয়েছেন।

অপরদিকে শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) পাঞ্জশির প্রদেশের বেশ কিছু অঞ্চল দখলের দাবি করেছে তালেবান।

তালেবানের মুখপাত্র জাবিহউল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, ‌তাদের যোদ্ধারা পাঞ্জশিরে প্রবেশ করে কিছু ভূখণ্ডের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। ‌‘স্থানীয় সশস্ত্র গোষ্ঠীর সঙ্গে আলোচনা ব্যর্থ হওয়ার পর আমরা অভিযান শুরু করেছি। তাদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ’

এমন অবস্থায় জাতিসংঘ জানিয়েছে তারা আফগানিস্তানের কিছু অংশে মানবিক কার্যক্রম পুনরায় চালু করেছে। পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদের সঙ্গে আকাশপথে উত্তর আফগানিস্তানের মাজার-ই-শরীফ এবং দক্ষিণের কান্দাহারকে সংযুক্ত করে এই কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৩, ২০২১ 

এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa