ঢাকা, শুক্রবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৪ মে ২০২৪, ১৫ জিলকদ ১৪৪৫

লাইফস্টাইল

এসির বাতাসে বাড়ছে ঠাণ্ডা-কাশি, ঘরোয়া উপায়ে সমাধান

লাইফস্টাইল ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩১ ঘণ্টা, এপ্রিল ১২, ২০২৪
এসির বাতাসে বাড়ছে ঠাণ্ডা-কাশি, ঘরোয়া উপায়ে সমাধান

বেশ কিছু দিন থেকেই চলছে তাপপ্রবাহ। আর এই গরমে এসি ছাড়া থাকা দায়।

ঘরে না চালালেও কাজের জায়গায় এসির বাতাসে কনকনে ঠাণ্ডা। ফলে ঠাণ্ডা-কাশি থামছেই না। ওষুধ, কাফ সিরাপ, অ্যান্টিবায়োটিক— সব রকমভাবে চেষ্টা চালিয়েও কাশি থামছে না কিছুতেই। তবে কাশি কমানোর কিছু ঘরোয়া টোটকা রয়েছে। সেগুলি মেনে চললে উপকার পেতে পারেন।

১) লবণ পানিতে গার্গল
কাশির দাপট নিয়ন্ত্রণে রাখার সবচেয়ে ভালো উপায় হল গরম পানিতে সামান্য লবণ দিয়ে গার্গল করা। সকালে ঘুম থেকে উঠে এবং রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে দু’বার গার্গল করতেই হবে। প্রয়োজনে আরও বেশি বার করা যেতে পারে।

২) মধু, তুলসীপাতা ও গোলমরিচ
প্রতিদিন এক চামচ করে এমনি মধু খেতে পারেন। আবার, এক চামচ মধুর সঙ্গে তুলসীপাতার রস এবং এক চিমটে গোলমরিচের গুঁড়ো মিশিয়ে খেতে পারেন। গলায় কোনো রকম সংক্রমণ হলে এই টোটকায় তা সেরে যাবে।

৩) হলুদ ও দুধ
রান্নাঘরের অপরিহার্য উপকরণ হল হলুদ। এতে রয়েছে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট। বিশেষ করে গরম দুধে হলুদ মিশিয়ে খেলে রোগ প্রতিরোধ শক্তি বাড়িয়ে তোলে। প্রতিদিন রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এক গ্লাস গরম দুধে হলুদ মিশিয়ে খেলে ঠাণ্ডা লাগা এবং সর্দি-কাশির সমস্যা থেকে দ্রুত রেহাই মিলতে পারে।

৪) গরম পানির ভাপ
ঠাণ্ডা লাগলে চিকিৎসকেরা প্রথমেই ভাপ নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন। গলায় পানিতে থাকা মিউকাস তাপের সংস্পর্শে বাইরে বেরিয়ে আসে। তবে শুধু গরম পানিতে ভাপ না নিয়ে তার মধ্যে লবঙ্গ কিংবা ইউক্যালিপটাস অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১২, ২০২৪
এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।