ঢাকা, বুধবার, ৪ বৈশাখ ১৪৩১, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৭ শাওয়াল ১৪৪৫

মালয়েশিয়া

মালয়েশিয়া পৌঁছালো এমএইচ-১৭’র ২০ আরোহীর দেহাবশেষ

মাহমুদ খায়রুল, কুয়ালালামপুর করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০৭ ঘণ্টা, আগস্ট ২২, ২০১৪
মালয়েশিয়া পৌঁছালো এমএইচ-১৭’র ২০ আরোহীর দেহাবশেষ

ঢাকা: ইউক্রেনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় বিধ্বস্ত উড়োজাহাজ এমএইচ-১৭ এর হতভাগ্য আরোহীদের মধ্যে ২০ মালয়েশীয় নাগরিকের দেহাবশেষ শুক্রবার মালয়েশিয়া পৌঁছেছে।

স্থানীয় সময় শুক্রবার সকাল দশটায় একটি বিশেষ উড়োজাহাজে ওই মরদেহগুলো কুয়ালালামপুর বিমানবন্দরে  পৌঁছায়।



লাশগুলো সংগ্রহ করে ইউক্রেন থেকে প্রথমে নেদারল্যান্ডে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে বিশেষ ফ্লাইট এমএইচ ৬১২৯ এ শুক্রবার কুয়ালালামপুর পৌঁছায় মরদেহগুলো। বিশেষ সম্মানের সঙ্গে কুয়ালালামপুরের বিমানবন্দরে মরদেহগুলোকে গ্রহণ করে মালয়েশীয় কর্তৃপক্ষ। মালয়েশিয়ার পুত্রাজায়াতে নিহতদের শেষ সম্মান প্রদর্শনের মাধ্যমে তাদের নিজ নিজ ধর্মমতে সৎকার করা হবে।

এদিকে নিহত আরোহীদের প্রতি সম্মান দেখিয়ে মালয়েশিয়ায় ১ মিনিটের জন্য নীরবতা পালন করা হয়, অর্ধনমিত রাখা হয় জাতীয় পতাকা। পাশাপাশি দেহাবশেষ ফিরিয়ে আনাকে কেন্দ্র করে শোকের ছায়া নেমে এসেছে পুরো মালয়েশিয়ায়। মালয়েশিয়ান প্রধানমন্ত্রী নাজিব তুন রাজজাক সকল মালয়েশীয় নাগরিককে এক হয়ে নিহতদের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের আহ্বান জানিয়েছেন।

মালয়েশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী দাতুক হিসামুদ্দিন বৃহস্পতিবার এক প্রেস কনফারেন্সে বলেন, ওই ঘটনায় নিহত ৪৭ মালয়েশীয় নাগরিকের মধ্যে শনাক্ত হওয়া ২০ জনের মৃতদেহ আনা হচ্ছে।   এছাড়া আরও ৮টি মরদেহ নেদারল্যান্ড সরকার শনাক্ত করতে পেরেছে। তাদের মরদেহ রোববার দেশে ফিরিয়ে আনা হবে।

গত ১৭ জুলাই পূর্ব ইউক্রেন ও রাশিয়ার সীমান্তে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় বিধ্বস্ত হয় ২৯৮ জন আরোহী সহ মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট এমএইচ-১৭। কেউ এ হামলার দায় স্বীকার না করলেও ধারণা করা হয় ইউক্রেনের সরকারের বিরুদ্ধে লড়াইরত দেশটি রুশপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদীরা এ হামলার জন্য দায়ী। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে বিদ্রোহীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১০০৩ ঘণ্টা, আগস্ট ২২, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

মালয়েশিয়া এর সর্বশেষ