ঢাকা, শনিবার, ২০ মাঘ ১৪২৯, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১২ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

কুড়িগ্রামে শয়নকক্ষে গৃহবধুর গলাকাটা মরদেহ, স্বামী পলাতক

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০১৭ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১, ২০২২
কুড়িগ্রামে শয়নকক্ষে গৃহবধুর গলাকাটা মরদেহ, স্বামী পলাতক নিহতের স্বজনদের আহাজারি

কুড়িগ্রাম: কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের পশ্চিম পলাশবাড়ী গ্রামের নিজ বাড়ির শয়ন কক্ষ থেকে শাহেরা বেগম (৩৫) নামের এক গৃহবধূর গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) রাত সাড়ে ৯টার দিকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনার পর থেকে নিহতের স্বামী মো. মোখলেছুর রহমান পলাতক রয়েছেন।

নিহত শাহেরা বেগম কুড়িগ্রাম সদর উপজেলার বেলগাছা ইউনিয়নের পলাশবাড়ী পশ্চিম পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস ছাত্তারের মেয়ে।

পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বুধবার সন্ধ্যার পর নিহত গৃহবধূর ছেলে শামীম কাজ শেষে বাড়ি ফিরে ঘর তালাবদ্ধ দেখতে পায়। পরে তালা ভেঙে মাকে বিছানায় গলাকাটা অবস্থায় দেখে চিৎকার শুরু করায় স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে।

দীর্ঘদিন ধরে নিহত শাহেরা বেগম ও তার স্বামী মোখলেছুর রহমানের মধ্যে পারিবারিক দ্বন্দ্বের জেরে স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামী পালিয়েছে বলে ধারণা।

নিহতের মাসহ পরিবারের লোকজনের দাবি, পারিবারিক কলহের জেরে স্বামী তাকে গলাকেটে হত্যা করে ঘর তালাবদ্ধ করে পালিয়েছে।

নিহত শাহেরা বেগমের মা ফাতেমা বেগম জানান, আমার জামাই মেয়েকে হত্যা করে পালিয়ে গেছে। আমি সারাদিন বাইরে ছিলাম। খবর শুনে এসে মেয়ের গলাকাটা মরদেহ দেখতে পাই। আমি আমার মেয়ে হত্যার বিচার চাই।

কুড়িগ্রামের পুলিশ সুপার আল আসাদ মো. মাহফুজুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, খবর পেয়ে আমি নিজেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের কারণে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তদন্ত চলছে। এ ঘটনার সঙ্গে যেই জড়িত থাকুক দ্রুত তাকে আইনের আওতায় আনা হবে।

বাংলাদশে সময়: ০০১৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০২২
এফইএস/এসএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa