ঢাকা, সোমবার, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৩ মে ২০২২, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

সাত মণের শাপলা পাতা মাছ লাখ টাকায় বিক্রি 

উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৭, ২০২২
সাত মণের শাপলা পাতা মাছ লাখ টাকায় বিক্রি  শাপলা পাতা মাছ

পাথরঘাটা (বরগুনা): বরগুনায় গভীর সাগরে জেলের জালে ধরা পড়েছে সাত মণ ওজনের একটি শাপলা পাতা মাছ। পরে মাছটি নিলামে সোয়া লাখ টাকায় বিক্রি করা হয়েছে।

সোমবার (১৬ জানুয়ারি) সকালে বৃহত্তম পাথরঘাটা বিএফডিসি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র থেকে মাছটি কেনেন পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার মো. সোহরাব হোসেন নামে এক পাইকারি মৎস্য ব্যবসায়ী।

এফবি মায়ের দোয়া ট্রলারের মাঝি মো. ওসমানের বরাত দিয়ে আড়তদার মো. টিপু জানান, গভীর সাগরে অন্য মাছের সঙ্গে একটি শাপলা পাতা মাছ জালে ধরা পড়ে। পরে মাছটি পাথরঘাটা বিএফডিসি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রে নিয়ে এসে প্রকাশ্যে নিলামে ডাকা হয়। নিলামে সোহরাব হোসেন ১৬ হাজার টাকা মণ দরে মোট ১ লাখ ১২ হাজার টাকায় মাছটি কেনন।

এটি হচ্ছে স্ট্রিং রে প্রজাতির মাছ। বৈজ্ঞানিক নাম হিমানটুরা ইমব্রিকাটা (Himantura Imbricata)। ইংরেজি নাম (Leopard Stingray)। এ প্রজাতির মাছ অগভীর সমুদ্রের বেশি পাওয়া যায়। সমুদ্রের অগভীর স্থানে তলদেশ ঘেঁষে বিচরণ করে শাপলা পাতা মাছ।

জানা যায়, শাপলা পাতা খেতে সুস্বাদু, এতে ভিটামিন এবং খনিজ যেমন ভিটামিন বি১২ এবং ভিটামিন ডি রয়েছে। প্রোটিন রয়েছে ২০ শতাংশ। সাধারণ পুষ্টির বিবেচনায় এটি একটি ভালো খাবার।  

তবে এ মাছে মার্কারি থাকায় এটি খাওয়ার কিছু অপকারিতাও রয়েছে বলে অনেক গবেষণায় উল্লেখ করা হয়েছে। শাপলা পাতা মাছ খেলে ক্যানসার, হার্ট, কিডনি ও লিভারের ক্ষতি, ডেমেনশিয়া (স্মৃতিভ্রম), হরমোনের ভারসাম্যহীনতা ও অন্তঃসত্ত্বাদের ক্ষেত্রে রক্তক্ষরণ হতে পারে। এছাড়া মাছটির লেজের কাঁটা খুব বিষাক্ত। এর আঘাতে মানবদেহে ক্ষত হলে বমি বমি ভাব, দুর্বলতা দেখা দিতে পারে। এমনকি অজ্ঞানও হতে পারে। ২০০৬ সালে স্টিং রে মাছ নিয়ে ডকুমেন্টারি করার সময় এ মাছের আঘাতেই মৃত্যু হয় বিখ্যাত কুমির শিকারি ও অস্ট্রেলিয়ান প্রকৃতিবিজ্ঞানী স্টিভ আরউইনের।  

বাংলাদেশ সময়: ১২৩১ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৭, ২০২২
জেডএ/এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa