ঢাকা, মঙ্গলবার, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৫ জিলহজ ১৪৪৩

জাতীয়

৭ জুনের পর ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালুর অনুরোধ চাষিদের

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭২০ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২২
৭ জুনের পর ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালুর অনুরোধ চাষিদের

চাঁপাইনবাবগঞ্জ: অবশেষে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে রাজধানী ঢাকায় আম পরিবহনের জন্য চলতি মৌসুমেও ‘ম্যাংগো স্পেশাল’ ট্রেন চালুর সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে। এ নিয়ে চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুরে বিভিন্ন পেশাজীবীদের সঙ্গে বৈঠকে বসে রেল কর্তৃপক্ষ।

তবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম পাকতে আরও দেরি থাকায় চাষিরা আগামী ৭ জুনের পর ট্রেনটি চালুর দাবি জানান।

আসন্ন আম মৌসুমে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনের প্রারম্ভিক স্টেশন হবে চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর। তাই শুক্রবার (২০ মে) সকালে রহনপুর স্টেশন প্লাটফর্মে আয়োজিত আম স্পেশাল ট্রেন চালু উপলক্ষে স্থানীয়দের সঙ্গে মতবিনিময় করেছে রেল কর্তৃপক্ষ।  

সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলীয় জোনের বিভাগীয় রেলওয়ে ম্যানেজার শাহীদুল ইসলাম।

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলীয় জোনের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) অসীম কুমার তালুকদার। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলীয় জোনের সিওপিএস শহিদুল ইসলাম।

স্থানীয়দের পক্ষে বক্তব্য দেন-রহনপুর পৌর মেয়র মতিউর রহমান খান, চৌডালা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গোলাম কিবরিয়া হাবিব, বোয়ালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সামিউল আলম শ্যামল, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন বুলবুল, চাঁপাই এগ্রো প্রডাক্টের ব্যবস্থাপক পরিচালক গোলাম মোহাম্মদ ফিটু, আম চাষি সমবায় সমিতির সভাপতি আফতাবউদ্দীন লালন, আম আড়তদার সমবায় সমিতির সভাপতি আশরাফুল ইসলাম আশরাফ, বীর মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইসলাম সোনার্দী, রহনপুর রেলবন্দর বাস্তবায়ন পরিষদের আহ্বায়ক নাজমুল হুদা খান রুবেল প্রমুখ।

স্থানীয়রা স্পেশাল ট্রেন পরিচালনার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, আম চাষি ও ব্যবসায়ীদের স্বার্থে ঢাকা আনলোডিং এর সময় বেশি চার্জ না করা এবং ট্রেনের সময়সূচি পেছানো জরুরি। আম চাষিরা আগামী জুনের ৭ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে ট্রেনটি উদ্বোধন তারিখ নির্ধারণের পরামর্শ দেন।

পরে জিএমকে রহনপুর রেলবন্দর বাস্তবায়ন পরিষদের নেতারা বিভিন্ন দাবি সম্বলিত বুকলেট দেন।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে সূত্র জানায়, সারাদেশে আমের জন্য প্রসিদ্ধ রাজশাহী ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ। এখানে আমের মৌসুম কেবলই শুরু হয়েছে। সাধারণত রাজশাহীর আম একটু আগেভাগে ওঠে এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম একটু দেরিতে। তাই এ বিষয়টি মাথায় রেখে দুই জেলার সঙ্গে সমন্বয় করেই চাষি ও ব্যবসায়ীদের সুবিধার্থে ভরা মৌসুমেই গেল বছরের ধারাবাহিকতায় ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালু করতে চায় পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে। চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর থেকে প্রতি কেজি আম পরিবহনের ভাড়া প্রস্তাব করা হয়েছে এক টাকা ৩০ পয়সা। আর রাজশাহী থেকে ঢাকা পর্যন্ত ৩৪৩ কিলোমিটার পথের জন্য প্রতি কেজি আমে ভাড়া দিতে হবে এক টাকা ১৭ পয়সা। ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালু হলে এটি রহনপুর-চাঁপাইনবাবগঞ্জ-রাজশাহী হয়ে রাজধানী ঢাকায় যাবে। আবার ঢাকা থেকে রাজশাহী হয়ে রহনপুর আসবে। পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের এই বিশেষ ট্রেনে প্রতি বছরের মতো এবারও খুব কম খরচে আম ছাড়াও টাটকা শাক-সবজিসহ অন্যান্য ফলমূল ঢাকায় নিয়ে যাওয়া যাবে।

এ ব্যাপারে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) অসীম কুমার তালুকদার বলেন, ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালুর ব্যাপারে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। এ নিয়ে রহনপুরে আম সংশ্লিষ্ট ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সভাও হয়েছে। সভায় ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন চালানোর জন্য জুনের প্রথম সপ্তাহের পর সম্ভাব্য দিন-তারিখ প্রস্তাব করা হয়েছে, তা রেল মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। এরপর রেল মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দেবেন। দিন ঠিক হলে মন্ত্রী নিজেই উপস্থিত থেকে ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেনের উদ্বোধন করবেন। ট্রেনটি চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ছেড়ে যাবে এবং ঢাকায় রাত ২টার দিকে পৌঁছাবে। তবে ট্রেন ছাড়ার সময়সূচির ব্যাপারে আম সংশ্লিষ্টদের অনুরোধের বিষয়টি ভেবে দেখা হবে।

তিনি আরও বলেন, ট্রেন চালু হলে খুব অল্প সময়ের মধ্যে ঢাকার বাজারগুলোতে তরতাজা সতেজ আম পৌঁছানো সম্ভব হবে। দীর্ঘ যানজট ও উঁচু-নিচু জায়গা না থাকায় আমেরও কোনো ক্ষতির সম্ভাবনা নেই।

প্রসঙ্গত: গত বছর ২৫ মে ‘ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন’ চালু হয়। গতবারের সিডিউল অনুযায়ী, প্রতিদিন দুপুর ২টায় রহনপুর থেকে ছেড়ে রাত ১টায় আমবাহী ট্রেনটি ঢাকায় পৌঁছায়। আবার রাত ২টা ১৫ মিনিটে ঢাকা থেকে ছেড়ে রহনপুরে পৌঁছায় বেলা ১১টায়। পাঁচটি ওয়াগনে ঢাকায় এ এলাকা থেকে আম পৌঁছায়। প্রতি বগির ক্যারিং ক্যাপাসিটি ৪৩ মেট্রিক টন হলেও আম বহন করা হয় ৩০ মেট্রিক টন। নাম ম্যাংগো স্পেশাল ট্রেন হলেও কেবল আম নয়, আমের সঙ্গে শাক-সবজিসহ অন্যান্য ফলমূলও পরিবহন করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭১৮ ঘণ্টা, মে ২০, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa