ঢাকা, সোমবার, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

জাতীয়

ঘরে বসেই তুষারের আয় লাখ টাকা 

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৬ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০২২
ঘরে বসেই তুষারের আয় লাখ টাকা 

ঢাকা: ঘরে বসেই আমেরিকান অফিসে চাকরি করছেন তরিকুল ইসলাম তুষার। তরিকুল আমেরিকান একটি ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সিতে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (এসইও) স্পেশালিস্ট হিসেবে কর্মরত।

এখন তার মাসিক আয় লাখের বেশি। শুধু নিজেই আয় করছেন তা কিন্ত নয় তুষার, ফ্রিল্যান্সিং ট্রেনিং দিয়ে বেকার যুবকদেরও আয়ের পথ খুলে দিয়েছেন।  

তুষার ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস ফাইবার ও আপওয়ার্কে টপ রেটেড ফ্রিল্যান্সার হিসেবে যুক্ত রয়েছেন এবং ২০২১ সালে তিনি আপওয়ার্কে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন।  

এখন নিজের ফ্রিল্যান্সিংয়ের পাশাপাশি তুষার তার নিজের গ্রামের তরুণদের ফ্রিল্যান্সিং শেখাতে শুরু করেছেন। রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলায় নিজের নামে গড়ে তুলেছেন ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ কেন্দ্র (লার্ন ফ্রিল্যান্সিং উইথ তুষার)। এছাড়াও অনলাইনে ‘Toriqul Islam Tusher’ নামে ফেসবুক পেজ এবং ‘Learn Freelancing with Tusher’ নামক ইউটিউব চ্যানেল রয়েছে তার। সেখানে লাইভ ক্লাস নেওয়ার মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং বিষয়ক বিভিন্ন দিক নির্দেশনা দিচ্ছেন। এখান থেকে এসইও (সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন), সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিংসহ আউটসোর্সিংয়ে বিভিন্ন মাধ্যম সম্পর্কে তরুণ-তরুণীরা উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন। এখন পর্যন্ত তার এলাকায় ৫০ জন এবং অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে ৩০০ এর বেশি বেকার যুবক-তরুণীকে ফ্রিল্যান্সার হিসেবে গড়ে তুলতে সক্ষম হয়েছেন তিনি।

তুষার বলেন, দেশের ছেলে-মেয়েরা অনেক মেধাবী ও স্মার্ট। তারা সহজেই ফ্রিল্যান্সিং করতে পারবে। কারণ, ফ্রিল্যান্সিং দুনিয়া অবারিত। এখানে অনেক বিষয়ে দক্ষতা অর্জন না করে শুরুতে একটি বিশেষ দক্ষতা অর্জন জরুরি। নতুন যারা ফ্রিল্যাসিংয়ে যুক্ত হতে চায়, তাদের প্রধান লক্ষ্য থাকে অর্থ উপার্জন, এজন্য তারা ভালো কিছু করতে পারে না। দক্ষতা অর্জন করা শুরু করলে টাকার দিকে দেখতে হবে না।  

তিনি জানান, তরুণদের জন্য বড় সমস্যা ক্লায়েন্ট ম্যানেজমেন্ট। আর অনেকেই সেটি ঠিকমতো করতে পারেন না। ফলে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য পান না। এই সমস্যা কাটাতে অবশ্যই ইংরেজিতে যোগাযোগে পারদর্শী হতে হবে। ছাত্র অবস্থায় যদি কেউ ফ্রিল্যান্সিংয়ের সঙ্গে যুক্ত হয়, এটি হবে তার জন্য বাড়তি আয়ের পথ।  

ফ্রিল্যান্সিং যোগ্যতা নিয়ে তুষার জানান, আগ্রহীদের প্রথমত একাডেমিক শিক্ষা অর্জন করতে হবে। দ্বিতীয়ত, ফ্লিল্যান্সিং পেশায় আপনি যে কাজটি করতে চাইছেন তার সম্পর্কে শিক্ষা লাভ করা। যদি তা হয় চিত্রাংকন কিংবা ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বা ডিজিটাল মার্কেটিং তবে সেই বিষয়ে আপনাকে শিক্ষাগ্রহণ করতে হবে।  

তরিকুল জানান, ফ্রিল্যান্সিং কোনো রাতারাতি বড়লোক হবার শর্ট কার্ট রাস্তা নয়। শুধুমাত্র একজন ব্যক্তি কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে বড় হতে পারে। যখন লোকেরা আমাকে বিলাসিতায় থাকতে দেখে, তারা ধরে নেয় যে আমার কাছে এটি সহজ, কিন্তু সত্য হলো যে আমি কঠোর পরিশ্রম করি।  

ফ্রিল্যান্সিংয়ে বাংলাদেশের যুবকরা বেশ ভালোই করছে জানিয়ে তুষার বলেন, বিশ্বব্যাপী অর্থ লেনদেন বিষয়ক প্ল্যাটফর্ম পাইওনিয়ারস গ্লোবাল গিগ ইকোনমি ইনডেস্ক প্রকাশিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী ম্যাগাজিন ফোর্বসে। এতে দেখা যায় বিশ্বজুড়ে ফ্রিল্যান্স মার্কেটে বাংলাদেশের অবস্থান অষ্টম। এটি সম্ভব হয়েছে ফ্রিল্যান্সারদের কঠোর পরিশ্রম আর অধ্যাবসায়ের মাধ্যমেই।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৬ ঘণ্টা, মে ২৪, ২০২২
এমআইএইচ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa