ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

মোটরসাইকেলে বাড়ি যাওয়ার অনুমতি পাওয়া যাবে যেভাবে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪২৯ ঘণ্টা, জুলাই ৭, ২০২২
মোটরসাইকেলে বাড়ি যাওয়ার অনুমতি পাওয়া যাবে যেভাবে

ঢাকা: ঈদ উপলক্ষে সাতদিন মহাসড়কে আন্তঃজেলা মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। তার মানে হলো মোটরসাইকেল নিয়ে এক জেলা থেকে আরেক জেলায় যাওয়া যাবে না।

এ নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা চলছে।

এ অবস্থায় ‘যৌক্তিক কারণ’ দেখালে নাগরিকদের মোটরসাইকেল চলাচলে ছাড় দেওয়ার কথা জানিয়েছে পুলিশ। স্বল্প দূরত্বে পার্শ্ববর্তী জেলার যাত্রায় উপযুক্ত কারণ দেখাতে পারলে নিজ মোটরসাইকেলে পরিবারের সদস্যদের নিয়েও যাতায়াত করা যাবে।  

তবে জরুরি প্রয়োজনে এক জেলা থেকে অন্য জেলায় মোটরসাইকেলে যাতায়াত করতে পুলিশের লিখিত অনুমতি বা মুভমেন্ট পাস প্রয়োজন হবে। আগ্রহীদের মহানগর পুলিশের ট্রাফিক বিভাগের উপ-কমিশনার (ডিসি), জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) বা সংশ্লিষ্ট জেলার হাইওয়ে পুলিশ সুপারের কার্যালয় থেকে নির্ধারিত ফর্মে আবেদন করতে হবে।

আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সংশ্লিষ্ট দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা বিষয়টি যাচাই করে মোটরসাইকেল আরোহীদের চলার অনুমতি দিবেন। এক্ষেত্রে একটি পাস শুধুমাত্র একবার যাতায়াতের জন্য ব্যবহার করা যাবে।

সরকারি নির্দেশ অনুযায়ী মহাসড়কে মোটরসাইকেল চলাচল না করতে অনুরোধ জানিয়ে টাঙ্গাইল জেলা পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, যদি কোনো নাগরিক ঈদ উপলক্ষে সড়ক বা মহাসড়ক ব্যবহার করে নিজ বাড়িতে যেতে চান, তাহলে তাকে মুভমেন্টে পাস সংগ্রহ করতে হবে। নিকটস্থ পুলিশ চেক পোস্ট, ডিউটিতে নিয়োজিত পুলিশ আফিসারের কাছ থেকে মুভমেন্ট পাস সংগ্রহ করা যাবে। একটা মুভমেন্ট পাস একবারই ব্যবহার যোগ্য হবে।

জেলা পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা জানান, বিআরটিএ পরিপত্রে বলা আছে- এক জেলায় রেজিস্ট্রেশন করা মোটরসাইকেল অন্য জেলায় চালানো যাবে না। তবে যৌক্তিক ও অনিবার্য প্রয়োজনে পুলিশের অনুমতি নিয়ে মোটরসাইকেল চালানো যাবে। কেউ যদি যৌক্তিক কারণ নিয়ে মুভমেন্ট পাস নিতে আসেন তাহলে তাকে পাস দেওয়া হবে।

ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) মো. মারুফ হোসেন সরদার বলেন, বিআরটিএর নীতিমালা আমরা অনুসরণ করবো। আমাদের কাছে মুভমেন্ট পাসের ফরম্যাট করা আছে। কেউ যদি আমাদের কাছে আবেদন করেন অবশ্যই তাকে পাস দেবো। পাস ছাড়া মহাসড়কে কাউকে চলতে দেওয়া হবে না।

এ বিষয়ে ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মো. মুনিবর রহমান বলেন, দূরপাল্লার মোটরসাইকেল যাতায়াত বন্ধ রাখাটা যৌক্তিক। তবে একজন মানুষের মোটরসাইকেল চালানো তার ব্যক্তিগত অধিকার। মোটরসাইকেলে একজন মানুষকে প্রয়োজনীয়তার জন্যই মুভ করতে হতে পারে। কেউ যদি যৌক্তিক ও সন্তোষজনক কারণ দেখাতে পারেন তাহলে অবশ্যই আমরা বিবেচনা করবো।

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) এবারের ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করার কথা বলে জাতীয় মহাসড়কে ৭ জুলাই থেকে পরবর্তী সাত দিন মোটরসাইকেল চলাচল নিষিদ্ধ করেছে। বুধবার (৬ জুলাই) রাজধানীর রাজারবাগে পুলিশের ত্রৈমাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। সেখানে জরুরি প্রয়োজনে বা যৌক্তিক কারণে নাগরিকদের মোটরসাইকেলে চলাচলে ছাড় দেওয়ার বিষয়টি আলোচনা হয়।

যেভাবে মিলবে মুভমেন্ট পাস
কেউ যদি ঢাকা থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে নিজ জেলায় যেতে চান তাহলে প্রথম যে জেলা পার হবেন সেই জেলা থেকে সংশ্লিষ্ট ফরম্যাটে গন্তব্য, রুট, ভ্রমণের কারণ, তারিখ ও সময়, মোটরসাইকেলের রেজিস্ট্রেশন নম্বর, আরোহীর সংখ্যা ও রাইডারের মোবাইল নম্বর দিয়ে মুভমেন্ট পাস নিতে হবে। মুভমেন্ট পাসে অনুমোদনকারী অফিসার স্বাক্ষর করবেন। এর একটি কপি রাইডারের কাছে থাকবে, অন্যটি অফিস কপি হিসেবে সংশ্লিষ্ট জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়ে থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৮ ঘণ্টা, জুলাই ০৭, ২০২২
পিএম/কেএআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa