ঢাকা, সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

সিলেটে ‘ছদ্মবেশে’ থাকা যুবক খুন: ছয় হিজড়া গ্রেফতার

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০২৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২
সিলেটে ‘ছদ্মবেশে’ থাকা যুবক খুন: ছয় হিজড়া গ্রেফতার

সিলেট: সিলেটে ছদ্মবেশে থাকা যুবক তুষার আহমদ হত্যার ঘটনায় ছয় হিজড়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে।  

সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) পৃথক অভিযান চালিয়ে এ ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে এসএমপির কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

 

গ্রেফতাররা হলেন- সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার ছোটদেশ গ্রামের মৃত মনাই মিয়ার সন্তান হৃদয় (২৮), ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার আখাউড়া থানার মৃত সিদ্দিক মিয়ার সন্তান তানহা (২৫), সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার হোসেনপুর গ্রামের মৃত এমরাজুল হকের সন্তান সুমি উজ্জ্বল (১৮), হবিগঞ্জের চুনারুঘাট থানার পাঁচগাঁও গ্রামের মৃত কনাই মিয়ার সন্তান চাঁদনী সজল (৩০), পাপ্পু পাপিয়া ও হৃদয় রুপা।  

সিলেট এসএমপি পুলিশের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আলী মাহমুদ এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, পাপ্পু পাপিয়া ও হৃদয় রুপা খুনের ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী বলে জানিয়েছে।  

এর আগে গত রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) ভোরে নগরের সুবহানীঘাট সবজিবাজার সংলগ্ন বনফুল অ্যান্ড কোংয়ের পাশে খালি জায়গা থেকে তুষার আহমদের (২০) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।  

নিহত তুষার মিয়া ময়মনসিংহ জেলার আবুল হাশেমের ছেলে ও নগরের খাসদবির সাজু মিয়ার বাসার ভাড়াটিয়া হিসেবে থাকতেন।  

এ ঘটনায় রোববার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহত তুষারের ভাই হিমেল আহমদ রাফি।  

খবর পেয়ে তুষারের মা নাছিমা বেগম ঘটনাস্থলে গিয়ে ছেলের মরদেহ শনাক্ত করেন। ময়নাতদন্ত শেষে রোববার বিকেলেই মরদেহ নগরের মানিকপীর মাজার সংলগ্ন কবরস্থানে দাফন করা হয়।

পুলিশ জানায়, তুষার নিজেকে তৃতীয় লিঙ্গের পরিচয় দিতেন এবং তিনি ছদ্মবেশে হিজড়াদের সঙ্গে চলাফেরা করতেন। তার গলায় ফাঁস লাগানোর চিহ্ন পাওয়া গেছে।  

ঘটনার পর নিহত তুষারের ভাই হিমেল আহমদ রাফি বলেন, আমার ভাই হিজড়া নয়। তবে তিনি তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের সঙ্গে চলাফেরা করতে সাচ্ছন্দবোধ করতেন। ঘটনার রাতে হিজড়া বন্ধুরা তাকে ঘর থেকে ডেকে নিয়ে যায়। পরদিন সকালে তার মরদেহ পাওয়া যায়।  

কোতোয়ালি থানার ওসি মোহাম্মদ আলী মাহমুদ বলেন, মামলা দায়েরের পরপরই সোমবার ভোররাতে অভিযান চালিয়ে প্রথমকে চারজনকে গ্রেফতার করি। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে পরিকল্পনাকারী দুজনকেও গ্রেফতার করা হয়। প্রথমে গ্রেফতার করা চারজন ঘটনার সঙ্গে সম্পৃক্ত স্বীকার করেছে। সোমবার বিকেলে চারজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অপর দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) তাদের আদালতে পাঠানো হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০২৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২২
এনইউ/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa