ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১৭ মহররম ১৪৪৪

রাজনীতি

ভোলা-৩ উপ-নির্বাচন: সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়নে কাজ করছে ইসি- বিএনপি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৩২ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৮, ২০১০

ঢাকা: ভোলা -৩ আসনের উপ-নির্বাচনে সরকারের এজেন্ডা ও নীল নকশা বাস্তবায়নের জন্যই নির্বাচন কমিশন সেনাবাহিনী মোতায়েন করছে না এমন অভিযোগ করেছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী  দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। আজ শনিবার সকালে পল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যলয়ে সাংবাদিক  সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন তিনি।



রিজভী আহমেদ বলেন, ভোলা -৩ আসনে বিএনপি’র নেতা কর্মীসহ সমর্থকদের উপর যেভাবে অত্যাচার নির্যাতন শুরু হয়েছে তাতে নির্বাচন করা অসম্ভব হয়ে উঠতে  পারে। তিনি অভিযোগ করেন,  লালমোহনের প্রতিটি ইউনিয়নে শত শত বহিরাগত সন্ত্রাসী মটর সাইকেলে মহড়া দিচ্ছে এবং  বিএনপি’র নেতা কমী ও সমর্থকদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে।

র‌্যাব পুলিশ আইন শৃংঙ্খলার  দায়িত্বে থাকলেও  তারা আওয়ামী লীগের কর্মীর মত আচারন করছে বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, এতেই প্রমানিত হয় এই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না। গত শুক্রবার তমিজুদ্দিন থেকে লালমোহন যাওয়ার পথে বিএনপি প্রার্থী অবসরপ্রাপ্ত মেজর হাফিজের উপর হামালা চালানো হয়েছে বলেও জানান রিজভী আহমেদ।   হামলায় তার গাড়ীর ব্যাপক ক্ষতিসহ বিএনপির দুই কর্মী হাবিব ও সোহেল গুরুত্বর আহত হয়।

ভোলায় বিএনপি নেতা কর্মীদের উপর হামলা বন্ধের দাবি জানিয়ে বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ইতিমধ্যেই বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ভোলার সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে সেনাবাহিনী মোতায়েনের আহবান জানালেও নির্বাচন কমিশন তা অগ্রাহ্য করছে। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনের এহেন আচারণে বুঝা যায়, সরকারের নীল নকশা বাস্তাবায়নের জন্যই লেজুরবৃত্তি করছে নির্বাচন কমিশন। এহেন পরিস্থিতিতে ভোলা-৩ আসনে সুষ্ঠু নির্বাচন হবে কিনা তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেন বিএনপি’র এই নেতা। আওয়ামী লীগ নেতা তোফায়েল আহমেদের বিএনপি  নির্বাচন থেকে সরে যেতে চায় এমন বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করে রিজভী আহমেদ বলেন, ‘তোফায়েল সাহেব নিজেও অনেক অপকর্ম করে যাচ্ছেন। তাই বুঝতে পারছে না তারা কি করছেন। ’

প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সাম্প্রতিক বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে রিজভী বলেন, সুঠূ নির্বাচন  হলে এই আসনে বিএনপি প্রার্থীই বিজয়ী হবে। নির্বাচন কমিশনারের এধরনের বক্তব্য সামঞ্জস্যহীন  ও দুঃখজনক বলে মত দিয়ে তিনি বলেন,  ইসি’র এ ধরনের ‘অসহায়ত্ব প্রকাশেই’ বুঝাযায় এই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না।

সাংবাদিক সম্মেলনে বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম, আব্দুল লতিফ জনি ও আসাদুল করিম শাহিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ স্থানীয় সময় ১৭:০০, এপ্রিল ১৭, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa