ঢাকা, বুধবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

‘পুলিশ কমিশনারের বক্তব্য পুলিশি রাষ্ট্রের নগ্ন প্রকাশ’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০৩ ঘণ্টা, মার্চ ১৫, ২০২১
‘পুলিশ কমিশনারের বক্তব্য পুলিশি রাষ্ট্রের নগ্ন প্রকাশ’

ঢাকা: ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনারের বক্তব্য পুলিশি রাষ্ট্রের নগ্ন প্রকাশ উল্লেখ করে তার বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।

সোমবার (১৫ মার্চ) বিকেলে পল্টনের সিপিবি কার্যালয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের সভা থেকে এ নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয়।

সভা শেষে এদিন রাত ৮টার দিকে পাঠানো এক সংবাদ বিবৃতিতে বাম জোটের সভার প্রস্তাবগুলো গণমাধ্যমে জানানো হয়।  
 
বাম গণতান্ত্রিক জোটের আহ্বায়ক ও সিপিবির প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফী রতনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন- সিপিবির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ্ আলম, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাসদ নেতা বজলুর রশীদ ফিরোজ, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, ইউসিএলবির সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, বাসদের (মার্কসবাদী) নেতা ফখরুদ্দিন কবির আতিক, ওয়ার্কাস পার্টির (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক ইকবাল কবির জাহিদ, সিপিবির সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আবাদুল আলী, গণসংহতি আন্দোলনের বাচ্চু ভুইয়া, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির শহীদুল ইসলাম সবুজ, ওয়ার্কাস পার্টির আকবর খান ও সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের রুবেল সিকদার প্রমুখ।
বাম গণতান্ত্রিক জোটের সভার প্রস্তাবে বলা হয়, মুজিব জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তি পালন উপলক্ষে সরকারের কর্মসূচি উদযাপনকালে ১৭ মার্চ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত বিরোধী দলগুলোকে রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন না করার জন্য ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কমিশনার অনুরোধ জানিয়েছেন। একইসঙ্গে অনুরোধ উপেক্ষা করে যারা কর্মসূচি পালন করবে তাদের রাষ্ট্রদ্রোহী হিসেবে চিহ্নিত করে কঠোর হস্তে দমন করার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, যা প্রমাণ করে বাংলাদেশ কার্যত একটি পুলিশি রাষ্ট্র।

প্রস্তাবে আরও বলা হয়, পুলিশ কমিশনারকে এধরনের বক্তব্য দেওয়ার এখতিয়ার কে দিয়েছে? ২০১৮ সালে দিনের ভোট রাতে করে পুলিশ শেখ হাসিনার সরকারকে ক্ষমতায় বসিয়েছে। ফলে পুলিশ এহেন ঔদ্ধত্য দেখাতে পারছে।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের পক্ষ থেকে পুলিশ কমিশনারের এহেন এখতিয়ার বহির্ভূত ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে ঐ বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়।

অপর এক প্রস্তাবে বলা হয়, নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ জানানো মুক্তিযুদ্ধের ধর্মনিরপেক্ষ চেতনার পরিপন্থী। সভায় মোদীকে সুবর্ণজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে দেওয়া আমন্ত্রণ প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। সেসঙ্গে মোদীর আগমনের প্রতিবাদে সব দেশপ্রেমিক গণতান্ত্রিক শক্তিকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২১০২ ঘণ্টা, মার্চ ১৫, ২০২১
আরকেআর/এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa