ঢাকা, বুধবার, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ আগস্ট ২০২২, ১১ মহররম ১৪৪৪

রাজনীতি

বিএনপি নেতারা প্রবল জনরোষের আশঙ্কায় উদ্বিগ্ন: কাদের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৭ ঘণ্টা, জুন ২৭, ২০২২
বিএনপি নেতারা প্রবল জনরোষের আশঙ্কায় উদ্বিগ্ন: কাদের

ঢাকা: বিএনপি নেতারা প্রবল জনরোষের আশঙ্কায় উদ্বিগ্ন বলেও মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (২৭ জুন) ওবায়দুল কাদের এক বিবৃতিতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপি নেতাদের পদ্মা সেতু নিয়ে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এ কথা বলেন।

বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, গত ২৫ জুন বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা পদ্মা বহুমুখী সেতুর শুভ উদ্বোধন করেছেন। সাহস ও সংকল্পের আপসহীন মনোভাবকে ধারণ করে সফল রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা পদ্মা বহুমুখী সেতু বাস্তবায়নের মধ্য দিয়ে বিশ্বের কাছে সমৃদ্ধ বাংলাদেশের সক্ষমতা তুলে ধরেছেন। সারা বিশ্বের বাঙালি জাতি মহোৎসবের মধ্য দিয়ে পদ্মা বহুমুখী সেতুর উদ্বোধন উদযাপন করছে। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে পদ্মা সেতু উদ্বোধনের সংবাদ প্রকাশিত ও প্রচারিত হয়েছে। বিশ্বনেতাদের ও বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতরা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অর্জিত বাংলাদেশের এই সাফল্যের ভূয়সী প্রশংসা করছেন। পদ্মা সেতু বাঙালি জাতি ও বাংলাদেশের জন্য এক অনন্য মাইলফলক স্পর্শকারী গৌরবোজ্জ্বল অর্জন। পদ্মা সেতু নিয়ে সমগ্র বাঙালি জাতি যখন গর্ব করছে তখন বিএনপি নেতারা এই উৎসবে সামিল না হয়ে হীন রাজনৈতিক স্বার্থ হাসিলের লক্ষ্যে অসংলগ্ন ও মনগড়া বক্তব্য দিচ্ছেন। যার মাধ্যমে আবারও প্রমাণিত হয়েছে বিএনপি নামক রাজনৈতিক দলটি এখনও তাদের জন্মলগ্ন থেকে প্রাপ্ত সংকীর্ণতার ঊর্ধ্বে উঠতে পারেনি।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, সরকার না কি অজানা আতঙ্কে সব সময় উদ্বিগ্ন! মির্জা ফখরুল সাহেবের এ ধরনের কাল্পনিক ও অসার বক্তব্যের মাধ্যমে তাদের নিজেদের হতাশা এবং রাজনৈতিক দীনতা উন্মোচিত হয়েছে। বাংলার জনগণ আজ শেখ হাসিনা সরকারের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে, তাই আমাদের কোনো উদ্বেগ নেই। জনগণের ওপর আমাদের পরিপূর্ণ আস্থা এবং বিশ্বাস রয়েছে। শেখ হাসিনা স্পষ্টভাবে বলেছেন, ‘দেশের জনগণই আমার সাহসের ঠিকানা। , অন্যদিকে বিএনপি জনগণের মুখোমুখি হতে ভয় পায়। তাদের নেতারা নির্বাচন আতঙ্কে ভুগছেন। আসলে বিএনপি নেতারা প্রবল জনরোষের আশঙ্কায় উদ্বিগ্ন। বিএনপি পদ্মা সেতুর বিরোধিতা করেছিল। আজ বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার সাহসী নেতৃত্বে পদ্মা সেতু নির্মিত হয়েছে। তাদের গভীর ষড়যন্ত্র দেশরত্ন শেখ হাসিনা সরকারের উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করতে পারেনি। এই ব্যর্থতা থেকে বিএনপি নেতারা দিন দিন গভীর থেকে গভীরতর হতাশায় নিমজ্জিত হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার উন্নয়নের রাজনীতির কারণে বিএনপির নেতিবাচক রাজনীতি এখন পদ্মার অতলে হারিয়ে যাচ্ছে।

বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন, আমরা বার বার বলেছি, গণতন্ত্রের বিকাশে শক্তিশালী এবং দায়িত্বশীল বিরোধীদলের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু বিএনপির দায়িত্বহীনতা, দ্বিচারিতা গণতন্ত্রের বিকাশের পথে অন্তহীন বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। তাদের রাজনীতি ভুলের চোরাবালিতে ঘুরপাক খাচ্ছে। তবুও বিএনপি আত্মবিনাশী ও অপরিণামদর্শী রাজনীতি চর্চা করে যাচ্ছে। তারা লাগাতারভাবে দেশবিরোধী ও উন্নয়নবিরোধী অপপ্রচার এবং গুজব ছড়িয়ে যাচ্ছে। বিএনপি প্রকৃতপক্ষে ষড়যন্ত্রমুখী জনবিরোধী অপশক্তি। বিএনপি কখনও বিপদে মানুষের পাশে দাঁড়ায় না। বানভাসি মানুষের পাশে যখন সরকার এবং আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন কাজ করছে, তখন বিএনপি নেতারা লোক দেখানো ফটোসেশনে ব্যস্ত। আমরা বিএনপি নেতাদের আহ্বান জানাই, নেতিবাচক ও ষড়যন্ত্র নির্ভর অপরাজনীতি পরিহার করুন। পদ্মা সেতুর মতো গৌরব ও মর্যাদার প্রকল্প নিয়ে বিভ্রান্তিকর অপপ্রচারে লিপ্ত হওয়া থেকে বিরত থাকুন। দেশ ও জনগণের উন্নয়ন-অগ্রগতির পথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি না করে সহায়ক ভূমিকা পালন করুন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৮ ঘণ্টা, জুন ২৭, ২০২২
এসকে/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa