ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

বিএনপি লাঠি নিয়ে রাস্তায় নামলে জবাব দেওয়া হবে: কাদের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭১১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
বিএনপি লাঠি নিয়ে রাস্তায় নামলে জবাব দেওয়া হবে: কাদের সভায় বক্তব্য রাখছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ছবি: জি এম মুজিবুর

ঢাকা: বিএনপি জাতীয় পতাকার সঙ্গে লাঠি নিয়ে রাস্তায় নামলে জবাব দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। লাঠি নিয়ে খেলা, আগুন নিয়ে খেলা চলবে না বলেও তিনি হুঁশিয়ার করে দেন।

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৬তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

বিএনপিকে উদ্দেশ্যে করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, কোমর ভাঙা বিএনপি হাটুভাঙা বিএনপি এখন লাঠির ওপর ভর করেছে। আমি বলছি না, বলেছেন জাফরুল্লাহ। লাঠি চলে গিয়েছিল আবার বিএনপি লাঠি ফিরিয়ে এনেছে। লাঠির মাথায় জাতীয় পতাকা বাঁধা আবার বলে লাঠি আরও বড় হবে। কত বড় আস্ফালন। এর জবাব আমরা দেব। যদি জাতীয় পতাকার সঙ্গে লাঠি নিয়ে রাস্তায় নামেন আস্ফালন করেন, জবাব আছে। আমি পরিষ্কার করে বলছি লাঠি নিয়ে খেলা, আগুন নিয়ে খেলা চলবে না।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ রাজপথ কাউকে ইজারা দেয়নি। আওয়ামী লীগ রাজপথে আছে, রাজপথ কারো পৈত্রিক সম্পত্তি নয়। রাজপথে আমরা নামবো জনগণের জন্য আমাদের উন্নয়নের জন্য। রাজপথ দখল করবেন দেখা যাবে, অপেক্ষায় আছি। বিএনপি আবারও বাঁশ দলের জগা খিচুড়ি জোট নিয়ে মাঠে নেমেছে লাঠি নিয়ে। আবার অভিযোগ করে আওয়ামী লীগ হামলা করে, পুলিশ হামলা করে। হাজারীবাগে আওয়ামী লীগের ওপরে হামলা হলো আমাদের দলের দুইজন মারাত্মক আহত হয়েছেন। তারা হাসপাতালে গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন। পত্রিকায় নিউজ নেই। বিএনপির সংঘাতে জানানোর জন্য আওয়ামী লীগকে উসকানি দেয়। এভারেজ নেই। সকালে পত্রিকা পড়লে মনে হয় বিএনপি দেশ দখল করে নিয়েছে।

আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগ আবারও বিজয়ী হবে জানিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা আবারও বিজয়ের বন্দরে। আমরা আছি। মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসকে বলবো তার আগের যিনি দায়িত্বে ছিলেন সেই জেমস মরিয়ার বক্তব্যটা পড়ার জন্য। জেমস মরিয়া কি বলেছিলেন, তারেক রহমান দুর্নীতির প্রতীক। বাংলাদেশের সহিংস রাজনীতির প্রবর্তক।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার লক্ষ্য ছিল ডিজিটাল বাংলাদেশ, ডিজিটাল বাংলাদেশ হয়ে গেছে। এবারের লক্ষ্য স্মার্ট বাংলাদেশ। এবারে স্মার্ট বাংলাদেশের লক্ষ্য তুলে ধরেছেন আমাদের ক্রাইসিস ম্যানেজার শেখ হাসিনা। আমরা জানি বিএনপি ভোটে শেখ হাসিনাকে হটাতে পারবেন তাই ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছেন। খেলা হবে, মোকাবিলা হবে আন্দোলনে, নির্বাচনে প্রমাণ হয়ে যাবে এদেশের মানুষ কাকে চায়।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য মতিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ,  আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিস, দপ্তর সম্পাদক বারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, দক্ষিণের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
এসকে/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa