ঢাকা, রবিবার, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

আজিজুল হকের স্মরণসভায় মামুনুলের মুক্তি দাবি ওলামাদের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২
আজিজুল হকের স্মরণসভায় মামুনুলের মুক্তি দাবি ওলামাদের

ঢাকা: শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হকের স্মরণসভায় তার ছেলে মাওলানা মামুনুল হকের মুক্তি চেয়েছেন দেশের আলেম-ওলামারা।

শুক্রবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর গুলিস্তানে কাজী বশির মিলনায়তনে ‘শায়খুল হাদীস আল্লামা আজিজুল হকের জীবন ও কর্ম’ শীর্ষক আলোচনা সভায় এ দাবি করা হয়।

সভার আয়োজন করে শায়খুল হাদীস পরিষদ।

অনুষ্ঠানে খেলাফত মজলিসের মহাসচিব আহমদ আব্দুল কাদের বলেন, ‘শায়খুল হাদিস বলতে বাংলাদেশে একমাত্র আল্লামা আজিজুল হককেই বোঝায়। তার জীবনের খেদমতের জন্য যেন আল্লাহ তাকে বেহেশত নসিব করেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে তার মতো মানুষের প্রয়োজন। আমরা যদি এক হতে পারি তাহলে কোনো কিছুই আমাদের বাধা হতে পারে না। আসুন আমরা এক হই।

ইত্তেফাকুল উলামা বৃহত্তর মোমেনশাহির সেক্রেটারি হযরত মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ বলেন, 'আমি আজ কিছু কথা ইঙ্গিতে বলতে চাই। আপনারা যারা বুদ্ধিমান ও বুঝের মানুষ আছেন তারা বুঝবেন। শায়খুল হাদিসের ওপর যে ঝড় এসেছে তা উপেক্ষা করে তিনি এখন অনেক শক্ত অবস্থানে আছেন। শায়খুল হাদিস কখনো কোনো অন্যায়ের সঙ্গে আপোষ করেননি। আমরা যারা তার অনুসারী আছি আমরাও তা করব না।

তিনি আরও বলেন, উষার দুয়ারে হানি আঘাত, আমরা আনিব রাঙা প্রভাত। আল্লাহ পাক আমাদের শায়খুল হাদিসের ওপর জীবন পরিচালনার তৌফিক দান করুন।

ইসলামী বক্তা আবুল হাসানাত বলেন, শায়খুল হাদিস আল্লামা আজিজুল হক যেমন বারবার কারাবরণ করেছেন, তেমনি মামুনুল হককেও বারবার কারাগারে যেতে হচ্ছে। অন্তরে কষ্ট নিয়ে আমরা দিনাতিপাত করছি। এ অবস্থা থেকে উত্তরনের জন্য সরকার যেন দ্রুত মামুনুল হককে মুক্তি দেন।

মানিকগঞ্জের পীর হযরত মাওলানা সাঈদ নূর বলেন, যারাই জেলে বন্দি আছেন, তাদের মুক্তি দেওয়া হোক।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ কওমি মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড (বেফাক) এর মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাওলানা তাফাজুল হক আজিজ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমাদ, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নায়েবে আমির মাওলানা রেজাউল করীম জালালী, হাটহাজারী মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা ইয়াহইয়া, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সভাপতি জিয়া উদ্দিন, খেলাফত আন্দোলনের আমির আতাউল্লাহ হাফেজ্জী, মধুপুরের পীর সাহেব আব্দুল হামিদ, হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব মাওলানা সাজিদুর রহমানসহ বিভিন্ন মাদরাসার সহস্রাধিক শিক্ষার্থী।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৩০, ২০২২
এমএইচ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa