ঢাকা, শনিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

প্রবাসে বাংলাদেশ

স্পেনে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচন ঘিরে ব্যস্ততা

নুরুল ওয়াহিদ, মাদ্রিদ থেকে | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৩২ ঘণ্টা, মার্চ ৪, ২০১২
স্পেনে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচন ঘিরে ব্যস্ততা

স্পেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মাদ্রিদে বাংলাদেশি কমিউনিটির মধ্যে জমে উঠেছে নির্বাচনী আমেজ। নির্বাচনকে ঘিরে ব্যস্ত সম্ভাব্য প্রার্থী ও সাধারণ ভোটাররা।

কফি বার কিংবা রেস্টুরেন্টে চায়ের টেবিলে জল্পনা কল্পনা; কে হচ্ছেন সভাপতি- সাধারণ সম্পাদক কাদের নেতৃত্বে আগামী দুই বছর পরিচালিত হবে এক যুগের পুরাতন এই সংগঠন। আবার কি পুরনো মুখ বসবে কমিউনিটির সর্বচ্চ আসনে নাকি নতুন মুখের সন্ধান করবেন সাধারণ ভোটার।

তবে সাধারণ ভোটাররা এবারের নির্বাচনে সৎ যোগ্য ব্যক্তিত্বের ব্যক্তিটিকে কমিউনিটির মুকুট পরাতে চান এটাই স্পষ্ট। এনিয়ে এলাকাভিত্তিক আলোচনা পর্যালোচনা চলছে মাদ্রিদে। তবে মাদ্রিদে বসবাসরত সবচেয়ে শক্তিশালী কমিউনিটি বলে পরিচিত সিলেট অঞ্চলের ভোটাররা নির্বাচনে সবসময় একটি বড় ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়ায় এবারও কি তাই হবে এনিয়ে কমিউনিটির বোদ্ধাদের চিন্তার শেষ নেই।

১১৯৯ সালে গঠিত বাংলাদেশ-স্পেন অ্যাসোসিয়েশন। চেয়ার আছে পদ আছে অফিস বিদ্যুৎ সবই আছে নেই উন্নয়ন। কমিউনিটির উন্নয়ন আর নতুন প্রজন্মের বেড়ে উঠা প্রবাসী বাংলাদেশি শিশুদের পাশাপাশি বিদেশিদের মাঝে দেশীয় সংস্কৃতি পরিচিত করার লক্ষ্য নিয়ে গড়া এই সংগঠনে পর পর ৫ জন সভাপতি বদল হলেও এর ভাগ্য বদল হয়নি একটুখানি। নির্বাচন এলে উন্নয়নের আশ্বাস শোনা যায়। কিন্তু নির্বাচিত হবার পর কাজের কাজ কিছু হয়নি। শুধু ব্যর্থতা আর অপারগতার ফিরিস্তি শুনতে হয় সবসময়। তাই এবারের নির্বাচনে সাধারণ ভোটাররা তাদের নেতা এমন কোন ব্যক্তিকে করতে চাচ্ছেন যাদের দিয়ে সত্যিকার কাজ হবে কমিউনিটির।

হাতেগোনা কয়েকটি দিন বাকি নির্বাচনের। এরই মধ্যে নির্বাচন কমিশন নির্বাচনী তফসিল ঘোষণা করেছে। আগামী ১৫ এপ্রিল স্পেন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে সম্ভাব্য প্রার্থীরা তাদের সমর্থন আদায়ের জন্য কাজ শুরু করে দিয়েছেন। প্রার্থী হবেন বলে কেউ কেউ জানিয়ে দিয়েছেন বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমেও।

এরই মধ্যে সিলেট অঞ্চল তাদের একক প্রার্থী দেওয়ার জন্য তাদের দীর্ঘ দিনের আঞ্চলিক সংঘটন জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন স্পেনের আভ্যন্তরীণ কোন্দল নিরসন করে এক প্ল্যাটফর্মে এসে দাঁড়িয়েছে। জানা গেছে, তাদের অঞ্চল হতে নতুন কোন মুখ নির্বাচনে না আসলে সাবেক সভাপতি আবদুল্লা আল মামুন কে ই তারা তাদের মনোনীত প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করবে। তবে সিলেটের অনেকে মনে করছে সৈয়দ আস্ফাকুল হক কিংবা আবুল খয়েরের মতো লোকে এবারের নির্বাচনে সিলেট অঞ্চল হতে আসা-প্রয়োজন।
ফরিদপুর/উত্তরবঙ্গের স্পেন প্রবাসী বাংলাদেশিদের সংখ্যা তুলনামূলক ভাবে কম হলে ও এই অঞ্চলের রয়েছেন শক্তিশালী প্রার্থী মোঃ শকত আলী। তিনি দীর্ঘ দিন হতে স্পেনে বসবাস করছেন। তিনি স্পেনে দোভাষী হিসেবে স্পেন পুলিশ ও আদালতের কাজ করেন । সেই সুবাদে অবৈধ বসবাসকারী বাংলাদেশিদের কাছে তিনি পরিচিত একটি মুখ। এছাড়া কমিউনিটিতে আঞ্চলিকতার বাহিরে রয়েছে তার একটি অবস্থান। এবারের নির্বাচনে তিনি সভাপতি পদে নির্বাচন করার চিন্তা করছেন।

অপর দিকে বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চল থেকে কমিউনিটি নেতা আন্তর্জাতিক বাঙালি স্পেন শাখার সাধারণ সম্পাদক দুলাল সাফার নাম শোনা যাচ্ছে অনেকের মুখে মুখে।

এছাড়া কামরুজ্জামান সুন্দুর, রবিন, মিজানুর রহমান বিপ্লব, আকবর শেঠ, হেমায়েত খান, মুকুল খানসহ অনেককেই সভাপতি- সাধারন সম্পাদক করার স্বপ্ন দেখছেন আঞ্চলিক নেতারা।

তবে সব আলোচনা সমালোচনার বাইরে থেকে মাদ্রিদের শক্তিশালী একটি নেতৃত্ব স্থানীয় কমিউনিটিকে সামনের দিকে নিয়ে যাওয়ার চিন্তা করে আলোচনার ভিত্তিতে সকল এলাকার প্রবাসীদের নিয়ে একটি যৌথ প্যানেল তৈরি করার চিন্তা করছে। তাদের মতে সম্মেলিত ভাবে একটি প্যানেল হলে সেই কমিটি কমিউনিটির গ্রহণযোগ্যতা পাবে।

অন্যদিকে নির্বাচন হবে কি না সর্বসম্মতি ক্রমে মনোনীত প্যানেল হবে সেই  সেই চিন্তা না করে নির্বাচন করারই প্রস্তুতি নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। তফসীল ঘোষণার পর ভোটার কার্ড নবায়ন ও নতুন ভোটার সংগ্রহসহ নির্বাচন আচরণ বিধি প্রচারণায় ব্যাস্ত কমিশনের সদস্যরা।

আগামী ১৯ মার্চ থেকে নমিনেশন ফর্ম বিক্রি এবং ২৮শে মার্চ রাত ১২টা পর্যন্ত নির্বাচনে আগ্রহী যে কোন প্রার্থী নমিনেশন ফর্ম ক্রয় ও জমা করতে পারবেন।

এপর্যন্ত নির্বাচন কমিশন মাদ্রিদ প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে সাধারণ সভাকারে পরামর্শ গ্রহণ করেছে। মাদ্রিদের দেয়ালে দেয়ালে বা দোকানে সেলফে ভোটার কার্ড নবায়ন ও নতুন ভোটার হওয়ার জন্য নির্দেশনা ও লিফলেট লাগানো হয়েছে।

ভোটার লিস্টের কাজ শেষ হলেই ভোটারদের আইডি কার্ড দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার আক্তার হোসেন আতা। তিনি বলেন, মাদ্রিদ প্রবাসী বাংলাদেশিদের সহযোগিতা পেলে কমিশনের সদস্যদের নিয়ে তিনি মাদ্রিদ বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশনের ইতিহাসে স্মরণ রাখার মতো একটি নির্বাচন উপহার দেবেন।

নির্বাচন কমিশনের প্রধান সদস্য ড. দুলাল আহমদ জানান সম্পূর্ণ ডিজিটাল পদ্ধতিতে তারা এবারের নির্বাচন উপহার দেওয়ার লক্ষে উন্নত মানের ভোটার আই ডি কার্ড, ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ভোটার লিস্ট প্রবাসীদের মাঝে তুলে দিবেন। যাতে করে ভোটার লিস্টে নাম নেই এমন কোন ভোটার ভোটের দিনে সমস্যা সৃষ্টি করার চেষ্টা করতে না পারেন।

নির্বাচন কমিশনের অন্য সদস্য রিয়াজ উদ্দিন লুৎফুর মনে করেন তাদের চেষ্টা থাকবে নিরপেক্ষতা, স্বচ্ছতা, সর্বোপরি জবাবদিহিতাকে মাথায় নিয়ে নির্বাচন সুন্দর এবং সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন করা।

একদিকে ইতিহাসের স্মরণীর নির্বাচন উপহার-দেওয়ার পাশাপাশি স্বচ্ছতা আর নিরপেক্ষতার বিষয়টি মাথায় নিয়ে নির্বাচন কমিশনের চিন্তা ভাবনা আর অন্য দিকে নতুনত্বের সম্ভাবনাময় নেতা নির্বাচন নাকি পুরনোদের আবার নতুন করে দায়িত্ব প্রদান এনিয়ে মাদ্রিদের প্রবীণ কমিউনিটি নেতাদেরও চিন্তার শেষ নেই।

কাকে দায়িত্বে নিয়ে আসলে কমিউনিটির উন্নয়ন হবে? কারা কমিউনিটির জন্য কাজ করবে? স্পেনের বাংলাদেশিদের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠানটি কাদের হাতে আগামী দুই বছর নিরাপদে থাকবে। অতীতের সম্মান ধরে রেখে আগামীতে কাদের হাতে আরও বেশি সম্মান অর্জন করবে সংগঠনটি এই হিসেব নিকেশ মেলাতেও ব্যস্ত তারা।

তবে মনোনয়নপত্র গ্রহণ ও জমাদানের পরই জানা যাবে আসলে কারা নিতে যাচ্ছে এই সংগঠনের দায়িত্ব আর আর নির্বাচনের দিনই প্রমাণ পাবে জনগণ কাকে দায়িত্ব দেবে।

বাংলাদেশ সময় ১২২৫ ঘণ্টা, মার্চ ০৪, ২০১২

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa