ঢাকা, শনিবার, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরও ‘টপলেস’ থাকব!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০২১
প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরও ‘টপলেস’ থাকব! লরা আমহার্স্ট

লরা আমহার্স্ট। ‘টপলেন’ বা ঊর্ধ্বাঙ্গ উন্মুক্ত করে অনেক আন্দোলনে যোগ দিয়ে আলোচনায় আসেন এই তরুণী।

যুক্তরাজ্যের পূর্ব সাসেক্সের ব্রাইটনের এই বাসিন্দা একজন পরিবেশকর্মী।  

লরা আমহার্স্ট জানালেন, ব্রিটেনের প্রথম ‘টপলেস’ প্রধানমন্ত্রী হতে চান তিনি।  

যদিও ‘টপলেস’ হওয়াটা লরার জন্য নতুন নয়। সম্প্রতি কয়েক মাসে বেশ কয়েকবার তাকে বক্ষ উন্মুক্ত করতে দেখা গেছে। মূলত জলবায়ুর পরিবর্তনের বিষয়ে সবাইকে সচেতন করতেই এই পদক্ষেপ নেন তিনি।  

যুক্তরাজ্যের সংবাদমাধ্যম ডেইলি স্টারের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ৩১ বছর বয়সী লরা আমহার্স্ট ব্রিটেনের একটি কলেজে রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে পড়াশোনা করছেন। একই সঙ্গে তিনি জলবায়ু পরিবর্তন সংক্রান্ত একজন কর্মীও।  

লরার দাবি, তিনি যদি ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সুযোগ পান, তবে বরিস জনসনের থেকেও ভালোভাবে রাজ্যপাট সামলাতে পারবেন।

স্নাতক স্তরের পড়াশোনা শেষ হলে আগামী বছরেই রাজনীতির আঙিনায় পা রাখতে চান এই তরুণী। তিনি বলেন, এ বছর আমার স্নাতক শেষ। এরপর আমি রাজনীতিতেই ফোকাস করব। আমি প্রধানমন্ত্রী হতে চাই। আর প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পরও টপলেস থাকব। তাতে অন্যদের থেকে আমাকে কিছুটা আলাদাই লাগবে।

এর আগে সাসেক্সে প্রথমবার টপলেস হয়েছিলেন লরা। তারপর থেকে মাঝেমধ্যেই তাকে টপলেস হতে দেখা গেছে। টিভির পর্দাতে উন্মুক্ত শরীরেও দেখা যায় তাকে।  

লরা বলেন, এমন সিদ্ধান্তে তার মা অবশ্য প্রথমে হতভম্ব হয়েছিলেন। যদিও পরে তিনি মেয়ের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৭, ২০২১
জেএইচটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa