ঢাকা, রবিবার, ১ কার্তিক ১৪২৮, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আইন ও আদালত

হেরোইনে গড়মিল: ২ পুলিশকে তদন্ত কাজ থেকে বিরত রাখার নির্দেশ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৫, ২০২১
হেরোইনে গড়মিল: ২ পুলিশকে তদন্ত কাজ থেকে বিরত রাখার নির্দেশ

ঢাকা: আসামির জামিন শুনানিতে মাদকের পরিমাণে অসংগতির বিষয়টি উঠে আসায় আশুলিয়া থানায় দায়ের করা পৃথক মাদক মামলার বাদী দুই পুলিশ অফিসারকে এক বছর জন্য তদন্ত কার্যক্রম থেকে বিরত রাখতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মামলার দুই তদন্ত কর্মকর্তাকে ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করেছেন।

রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের ভার্চ্যুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আসামি পক্ষে শুনানি ছিলেন আইনজীবী মো. মতিউর রহমান ও আইনজীবী ফারজানা ইসলাম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মো. মিজানুর রহমান।

মামলার বাদীরা হলেন, উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মিরাজ হোসেন ও উপ-পরিদর্শক (এসআই) ফজর আলী। তদন্ত কর্মকর্তারা হলেন, এসআই কায়সার হামিদ ও এসআই আবদুল জলিল।

গত বছর ১৮ জুলাই শাহীনকে মাদকসহ আটক করা হয়। সেদিনই মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তার বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় মামলা হয়। একই বছরের ২১ জুলাই আলমগীরকে মাদকসহ আটক করার পর সেদিনই মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে তার বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় মামলা হয়।

পরে তারা হাইকোর্টে জামিন চেয়ে আবেদন করেন। ওই জামিন আবেদনের শুনানিতে বিষয়টি উঠে আসে।

সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মিজানুর বলেন, শাহীনের মামলার এজাহারে ১০ গ্রাম হেরোইন পাওয়ার কথা বলা হয়েছে। কিন্তু সিআইডির রাসায়নিক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে ৭১ দশমিক ২৫ গ্রামের কথা। আলমগীরের মামলার এজাহারে ১১ গ্রাম হেরোইন পাওয়ার কথা বলা হলেও সিআইডির রাসায়নিক প্রতিবেদনে তা ৮১ দশমিক শূন্য ৭ গ্রাম।

এ ঘটনায় চার কর্মকর্তাকে তলব করেন হাইকোর্ট। রোববার শুনানি শেষে আসামিদের জামিন দেন এবং দুই বাদীকে এক বছর তদন্ত কাজ থেকে বিরত রাখতে নির্দেশ দেন। এছাড়া দুই তদন্ত কর্মকর্তাকে ভবিষ্যতের জন্য সতর্ক করেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০২১
ইএস/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa