ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

ঈদের দিন নানাবাড়ি যাওয়া হলো না সাব্বিরের

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৫৯ ঘণ্টা, আগস্ট ১, ২০২০
ঈদের দিন নানাবাড়ি যাওয়া হলো না সাব্বিরের প্রতীকি ছবি

শরীয়তপুর: সকালে ঈদের নামাজ পড়ে মায়ের হাতে সেমাই খেয়ে প্রিয় বাইসাইকেল চালিয়ে নানা বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিল স্কুলছাত্র সাব্বির (১৪)। পথিমধ্যে দ্রুতগতির মটরবাইক কেড়ে নেয় সাব্বিরের প্রান।

 

তাই ঈদের দিন নানাবাড়ি যাওয়া হয়নি সাব্বিরের। লাশ হয়ে নিজ বাড়িতে মায়ের কাছে ফিরতে হয়েছে তাকে।  

শনিবার (১ আগষ্ট) বেলা ১১টার দিকে শরীয়তপুর সদর উপজেলার সুবচনী বাজার সংলগ্ন বালার বাজার-নাগেরপাড়া সড়কে মটরবাইক চাপায় মারা যায় সাব্বির। সাব্বির সদর উপজেলার পূর্ব সোনামুখি গ্রামের অটোরিক্সা চালক আফজাল মৃধার ছেলে ও সুবচনী উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেনীর ছাত্র।  

নিহত সাব্বিরের চাচা মোহাম্মদ আলী মৃধা ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সাব্বির ঈদের নামাজ পড়ে মায়ের হাতে সেমাই খেয়ে বাইসাইকেল চালিয়ে পাশ্ববর্তী পশ্চিম সোনামুখি গ্রামের নানা বাড়ি যাচ্ছিল। সুবচনী বাজারের কাছাকাছি পৌঁছলে দ্রুতগতির একটি মটরবাইক সাব্বিরকে পেছন থেকে চাপা দেয়।  

এতে সাব্বির, মটরবাইক চালক রাজা বেপারী (১৬) ও মটরবাইক আরোহী মাহিম (১৫) গুরুতর আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক সাব্বিরকে মৃত ঘোষণা করেন এবং রাজা ও মাহিমকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় প্রেরণ করেন। রাজা পশ্চিম সোনামুখি গ্রামের সাঈদ বেপারীর ছেলে ও মাহিম ডামুড্যা উপজেলার মডেরহাট পূর্বকান্দি গ্রামের রিপন খালিফার ছেলে।  

পালং মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এ ঘটনায় এখনও কেউ মামলা দায়ের করেনি। মামলা হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৫৯ ঘণ্টা, আগস্ট ০১, ২০২০
ওএফবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa