ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

নির্মাণের এক মাসেই রাস্তায় গর্ত!

মো. আমিরুজ্জামান, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৪ ঘণ্টা, আগস্ট ১, ২০২০
নির্মাণের এক মাসেই রাস্তায় গর্ত! নির্মাণের এক মাসেই রাস্তায় গর্ত। ছবি: বাংলানিউজ

নীলফামারী: নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার বাঙালিপুর ইউনিয়নের শাইল্ল্যার মোড় চরকপাড়ায় একটি রাস্তা নির্মাণের এক মাসের ব্যবধানে ভেঙে গেছে। এছাড়া বৃষ্টির পানিতে রাস্তায় ইটের সলিংয়ের নিচের বালু সরে গিয়ে সেখানে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।

এতে এ রাস্তায় চলাচলকারীদের পড়তে হচ্ছে চরম দুর্ভোগে।

জানা যায়, চরকপাড়ার ওই রাস্তাটি দিয়ে এলাকার প্রায় কয়েক হাজার মানুষের চলাচল করে থাকেন। রাস্তাটি মাটির থাকায় প্রায়ই সামান্য বৃষ্টিতেই কাদা হয়ে চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয় এলাকাবাসীকে। বিষয়টি বার বার জানানোর পরও ওয়ার্ড মেম্বার বা চেয়ারম্যানরা সংস্কার না করায় এলাকাবাসী উপজেলা প্রশাসনকে জানালে বিগত অর্থ বছরে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) অর্থায়নে ৬৪ মিটার রাস্তায় ইট বিছিয়ে (সলিং) দেওয়া হয়।  

এলাকাবাসীর অভিযোগ, দুই লাখ টাকার বিনিময়ে সলিং করার ক্ষেত্রে চরম অনিয়মের আশ্রয় নেয় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ঠাকুরগাঁওয়ের এম. ইসলাম কোম্পানি। যার তত্ত্বাবধানে ছিলেন স্থানীয় প্রতিনিধি জিকরুল হক নামে এক ইটভাটার মালিক।

এলাকাবাসী জানান, জিকরুল হক নিয়মানুযায়ী রাস্তায় ইট বিছায়নি। নিচের সলিংয়ের সময় বেড করে বালু ফেলে পানি দেওয়ার কথা থাকলেও তা না করেই প্রায় ২-৩ ইঞ্চি পরপর ইট বিছায়। ফলে তৈরি হওয়া ফাঁকাগুলোতে বালু দিয়ে পূরণ করা হয়। এছাড়া ওপরের স্তরের ইটও একইভাবে করে বিছানো হয়। তাছাড়া ব্যবহৃত ইটগুলো ছিল দুই নম্বরসহ নিম্নমানের। তাই আগেই মাটির রাস্তাটি ভাল ছিল। পাকা করার নামে নিম্নমানের কাজ করার কারণে তৈরি করতে না করতেই রাস্তাটি চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এতে আগের চেয়ে সমস্যা আরও বেড়েছে।

এ ব্যাপারে ঠিকাদারের প্রতিনিধি ইটভাটা মালিক জিকরুল হক বাংলানিউজকে বলেন, বর্ষার কারণে এ ধরনের রাস্তা একটু ভেঙে যায়। তবে তা ঠিক করে দেওয়া হবে।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের (এলজিইডি) উপজেলা প্রকৌশলী এএফএম রায়হানুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, রাস্তা যদি ভেঙে গিয়ে থাকে, তাহলে ঠিক করা হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯২০ ঘণ্টা, আগস্ট ০১, ২০২০
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa