ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৭ আগস্ট ২০২০, ১৬ জিলহজ ১৪৪১

জাতীয়

মাদারীপুর শহর রক্ষা বাঁধে ভাঙন 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩০৭ ঘণ্টা, আগস্ট ২, ২০২০
মাদারীপুর শহর রক্ষা বাঁধে ভাঙন 

মাদারীপুর: মাদারীপুরে আড়িয়াল খাঁ নদীর শহর রক্ষা বাঁধে ভাঙন দেখা দিয়েছে। শনিবার (১ আগষ্ট) বিকেলে শহরের লঞ্চঘাট এলাকার বেড়িবাঁধসহ ওয়াক-ওয়ের ২০ মিটার এলাকা নদীতে বিলীন হয়ে যায়।

 

এদিকে হঠাৎ করে এ ভাঙনের কারণে আতঙ্কে রয়েছে শহরবাসী। নদী ভাঙনে বর্তমানে সংশ্লিষ্ট এলাকার শত শত বসতবাড়ি ঝুঁকিতে রয়েছে। বিকেল থেকেই এ ভাঙন প্রতিরোধে পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে বালুর বস্তা ফেলা হচ্ছে।  

জানা যায়, শনিবার বিকেলে হঠাৎ করেই ভাঙন শুরু হয় আড়িয়াল খাঁ নদীসংলগ্ন শহরের লঞ্চঘাট এলাকায়। প্রবল স্রোতে নদীর পাশের ওয়াক-ওয়েসহ শহর রক্ষা বাঁধের ২০ মিটার ধসে যায়। এ সময় পাশের একটি বসতঘরও পানিতে তলিয়ে যায়। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে স্থানীয়দের মাঝে। ঝুঁকিতে থাকা মানুষজন বসতবাড়ি থেকে প্রয়োজনীয় মালামাল সরিয়ে নিতে শুরু করে। ভাঙনের ঝুঁকিতে রয়েছে লঞ্চঘাট, পুলিশ ফাঁড়ি, পুরান শহর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ শহরের শত শত স্থাপনা।  

ভাঙনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যান জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন, পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পার্থ প্রতীম সাহা, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাড. ওবাইদুর রহমান খান, পৌরসভার মেয়র মো. খালিদ হোসেন ইয়াদসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা। এসময় ভাঙন রোধে রাতের মধ্যেই বালুভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার আশ্বাস দেন জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা।

এদিকে শিগগিরই টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণ ও ডাম্বিং কার্যক্রম শুরু না হলে এ এলাকায় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা স্থানীয়দের।  

সার্বিক পরিস্থিতি প্রসঙ্গে মাদারীপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী পার্থ প্রতীম সাহা বাংলানিউজকে বলেন, মাদারীপুর শহর রক্ষা বাঁধের একাংশ ভেঙে গেছে। এ মুহূর্তে বালুর বস্তা ফেলে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা চলছে। বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত তিন শতাধিক বালুর বস্তা ভাঙন কবলিত স্থানে ফেলা হয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ০৩০৬ ঘণ্টা, আগস্ট ০২, ২০২০
ইএ/এইচজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa