ঢাকা, শনিবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

জাতীয়

মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৯ নভেম্বর সংসদে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০২০
মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৯ নভেম্বর সংসদে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ

ঢাকা: জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশনে ৯ নভেম্বর ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

সংসদ ভবনে গিয়ে এ অধিবেশন কভার করতে সাংবাদিকদের করোনা পরীক্ষার উদ্যোগ নেবে জাতীয় সংসদ সচিবালয়।

পরীক্ষায় করোনা নেগেটিভ এলে সংসদ ভবনে গিয়ে এ অধিবেশন কাভার করতে পারবেন সংসদ বিটের রিপোর্টাররা। জাতীয় সংসদ সচিবালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এলে তাদের বিশেষ অধিবেশন কাভার করার জন্য পাস দেওয়া হবে। আগামী ৮ নভেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে মুজিববর্ষ উপলক্ষে সংসদের এ বিশেষ অধিবেশন শুরু হবে।

এদিন শোক প্রস্তাব গ্রহণের মাধমে অধিবেশন মূলতবি করা হবে। ৯ নভেম্বর রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ মুজিববর্ষ উপলক্ষে সংসদে ভাষণ দেবেন। সংসদের এ বিশেষ অধিবেশন মোট চারদিন চলবে বলেও জানা গেছে। রাষ্ট্রপতি ভাষণের দিন বা এর পরদিন মোট দুই দিন সাংবাদিকদের এ অধিবেশন কাভার করার অনুমতি দেওয়া হতে পারে। তবে এ বিষয়টি এখনও আলোচনায় রয়েছে। এ ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলেও জানা গেছে।

এবিষয়ে জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, মুজিববর্ষ উপলক্ষে ৯ নভেম্বর রাষ্ট্রপতি ভাষণ দেবেন। শুধু ওই দিন অথবা তার পরের দিনসহ মোট দুই দিন সাংবাদিকদের অধিবেশন কাভার করতে সংসদ ভবনে আসার অনুমতি দেওয়া হতে পারে। তবে এ ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে সব সংসদ সদস্য (এমপি) এদিন অধিবেশনে যোগ দিতে পারবেন না।  শুধু করোনা ভাইরাস নেগেটিভ এমপিরা এদিন অধিবেশনে যোগ দেবেন। করোনা নেগেটিভ সাংবাদিকদরাও সরাসরি সংসদে হাজির হয়ে এ অধিবেশন কভার করার সুযোগ পাবেন।

করোনা সংক্রমণের কারণে জাতীয় সংসদের জুনে বাজেট অধিবেশন ও এরপর সেপ্টেম্বরে আরও একটি অধিবেশন স্বাস্থ্যবিধি মেনে অনুষ্ঠিত হয়। অধিবেশনে সীমিত সংখ্যক সংসদ সদস্যদের নিয়ে এ দু’টি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অধিবেশনে দর্শনার্থী এবং অধিবেশন কাভার করার জন্য সাংবাদিকদের সংসদ ভবনে প্রবেশের অনুমতি ছিল না।

সংসদ সচিবালয় সূত্র আরও জানায়, বিশেষ অধিবেশনে রাষ্ট্রপতির ভাষণ কভার করার জন্য সাংবাদিকদের সংসদ পাস দেওয়া হবে। তবে এজন্য সাংবাদিকদেরও করোনা নেগেটিভ সনদ লাগবে। তাই সংসদ সচিবালয় থেকে সাংবাদিকদের করোনা পরীক্ষার বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। আগামী ৬ নভেম্বর জাতীয় সংসদের উদ্যোগে সংসদ বিটের সাংবাদিকদের করোনা টেস্ট করা হবে। প্রতিটি গণমাধ্যম থেকে একজন করে সাংবাদিককে করোনা টেস্ট করার জন্য সকাল ১০টায় সংসদের মিডিয়া সেন্টারে উপস্থিত থাকতে হবে। ৮ নভেম্বর পরীক্ষার রিপোর্ট দেওয়া হবে। নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়ার পর ওই দিনই সাংবাদিকদের ৯ নভেম্বরের অধিবেশন কভার করার জন্য পাস দেওয়া হবে। সংসদের কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরও আগে থেকে টেস্ট করানো হবে। যাদের রিপোর্ট নেগেটিভ আসবে শুধু তারাই দায়িত্ব পালন করবেন।

মুজিববর্ষ উপলক্ষে গত ২১ ও ২২ মার্চ জাতীয় সংসদের বিশেষ অধিবেশন আহ্বান করা হয়েছিল। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারি করোনার সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর ওই অধিবেশন স্থগিত করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০২০
এসকে/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa