ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ আশ্বিন ১৪২৯, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে হয়রানির শিকার মাসুম কবীর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪২৩ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০২২
পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করে হয়রানির শিকার মাসুম কবীর

যশোর: যশোর মাদকাসক্তি নিরাময় ও পুনর্বাসন কেন্দ্রের সাবেক পরিচালক মাসুম কবীর দাবি করেছেন, এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ করায় এখন তাকে হয়রানি করা হচ্ছে। ওই কর্মকর্তার ইন্ধনে মিহির মিত্র নামে এক ব্যক্তি তার নামে প্রতারণা মামলা দায়ের করেছেন।

 

তিনি জানান, মিহির মিত্র নামের কারো সঙ্গে আমার পরিচয়ও নেই। শুধু হয়রানি করতেই এই মামলা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) বিকেলে যশোর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন মাসুম কবীর।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মাসুম কবীর বলেন, ২০২১ সালের ২২ মে মাদকাসক্তি নিরাময় ও পুনর্বাসন কেন্দ্রে মাহাফুজুর রহমান নামের এক রোগীকে পিটিয়ে হত্যা করে অন্য রোগীরা। ঘটনায় দায়ের করা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ছিলেন পুলিশ পরিদর্শক রোকিবুজ্জামান। এ ঘটনার সিসি ফুটেজ দেখে অপরাধীরা শনাক্ত হয়। তাদেরকে আটকও করা হয়। এরপর ওই মামলায় আমাকে জড়ানোর ভয় দেখিয়ে ১০ লাখ টাকা দাবি করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। দাবিকৃত টাকা না দেওয়ায় আটক আসামিদের মারপিট করে তাদের মুখ দিয়ে আমার নাম বলানো হয়। এক পর্যায়ে আমাকে এ হত্যা মামলার আসামি করা হয়। কিছুদিন জেল খেটে জামিনে মুক্তি পাই।

তিনি বলেন, তদন্ত কর্মকর্তার টাকা চাওয়ার বিষয়ে দুদকে অভিযোগ ও আদালতে মামলা করি। এরপর তিনি মামলা তুলে নিতে ভয়ভীতিসহ আরও মামলা দেওয়ার হুমকি দেন। এ ব্যাপারে পুলিশ সদর দপ্তর ও খুলনা রেঞ্জ ডিআইজি বরাবর লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়।

তিনি আরও বলেন, গত ১২ আগস্ট আমার বিরুদ্ধে মিহির মিত্র থানায় প্রতারণা মামলা করেছেন। তার সাথে আমার পরিচয় বা কোনদিন দেখা হয়নি। আসলে পুলিশের বিরুদ্ধে মামলা করায় এ ষড়যন্ত্র মামলা করা হয়েছে আমার বিরুদ্ধে। তিনি সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে সঠিক বিষয়টি তুলে আনার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন জানিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন তার স্ত্রী ফারজানা ইয়াসমিন ও দুই শিশু পুত্র ইসমাম হাসিম এবং ইসায়াত হাসিম।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৮ ঘণ্টা, আগস্ট ১৭, ২০২২
নিউজ ডেস্ক

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa