ঢাকা, সোমবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৫ ডিসেম্বর ২০২২, ১০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

জাতীয়

সার্টিফিকেট-এনআইডি তৈরির নামে প্রতারণা: গ্রেফতার ১

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩, ২০২২
সার্টিফিকেট-এনআইডি তৈরির নামে প্রতারণা: গ্রেফতার ১

ঢাকা: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক গ্রুপ ও পেজে সার্টিফিকেট ও জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) তৈরির প্রলোভন দেখিয়ে অর্থ আত্মসাৎ ও প্রতারণার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রোববার (২ অক্টোবর) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগ তাকে গ্রেফতার করেছে।

গ্রেফতার প্রতারক হলেন- মো. ফয়সাল আহমেদ। অভিযানকালে তার কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ২টি মোবাইল ফোন ও ৪টি সিম কার্ড, কম্পিউটার, মনিটর ও প্রিন্টার এবং ৬টি ফেসবুক আইডি ও শতাধিক ফেসবুক গ্রুপ জব্দ করা হয়।

সোমবার (৩ অক্টোবর) সিটিটিসির সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের ই-ফ্রড টিমের সহকারী কমিশনার সুরঞ্জনা সাহা বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, নিয়মিত অনলাইন মনিটরিংয়ের সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কয়েকটি গ্রুপ এবং পেজ সিটিটিসির নজরে আসে। এসব পেজে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক, বিবিএ এবং এমবিএ সার্টিফিকেট দেওয়া, বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষার রেজাল্ট পরিবর্তন, ফেল করা পরীক্ষার্থীকে পাস করিয়ে দেওয়া, পলিটেকনিক্যাল কলেজের টিসি দেওয়া, পছন্দমতো পলিটেকনিক্যাল কলেজে ভর্তি, সরকারি পলিটেকনিক্যাল কলেজে ভর্তির সুযোগ না হলে সরাসরি ভর্তির ব্যবস্থা করবে বলে লোভনীয় পোস্ট দেয় চক্রটি। সেই সঙ্গে আগ্রহীদের ইনবক্সে যোগাযোগ করতে বলা হয়। এসব তথ্যের ভিত্তিতে অবস্থান শনাক্ত করে রোববার ঢাকার আশুলিয়া থানার ডেন্ডাবর পল্লী বিদ্যুৎ এলাকায় অভিযান চালিয়ে প্রতারক ফয়সালকে গ্রেফতার করা হয়।

তিনি আরও বলেন, প্রতারক এই চক্রটি ১-৩ ঘণ্টার মধ্যে জাতীয় পরিচয়পত্র ও জন্মসনদ তৈরি, সংশোধনের কাজ করে দেবে বলেও পোস্ট দিয়েছিল। আগ্রহীরা যখন প্রতারক চক্রের ফেসবুক পেজের ইনবক্সে এবং হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করে, তখন তারা অগ্রিম টাকা চায়। টাকা হাতে পেয়ে সেবা প্রত্যাশীদের ব্লক করে দিত। এরপর তারা আগ্রহীদের সঙ্গে আর যোগাযোগ করতো না।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে রমনা মডেল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করা হয়েছে। এর আগে একই মামলায় নাঈম চৌধুরী ও আয়ান খান শান্ত নামে আরও দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই চক্রের বাকি সদস্যদের গ্রেফতারে সিটিটিসির সাইবার ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন বিভাগের ই-ফ্রড টিমের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

গ্রেফতার প্রতারক ফয়সাল আহমেদকে রমনা থানার ওই মামলায় রিমান্ড আবেদন জানিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়। এতে আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪০ ঘণ্টা, অক্টোবর ০৩, ২০২২
এসজেএ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa