ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১২ কার্তিক ১৪২৮, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

রাজনীতি

যুক্তরাষ্ট্রে বসে এলাকার উন্নয়ন! শিগগির ফিরছেন সোহেল তাজ

আবুল হোসেন | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮১১ ঘণ্টা, জুলাই ২৬, ২০১০
যুক্তরাষ্ট্রে বসে এলাকার উন্নয়ন! শিগগির ফিরছেন সোহেল তাজ

গাজীপুর: শিগগিরই দেশে ফিরছেন গাজীপুর-৪ (কাপাসিয়া) আসনের আলোচিত সাংসদ তানজিম আহমেদ সোহেল তাজ।

সোহেল তাজের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ একাধিক নেতা এমনটাই নিশ্চিত করেছেন।



সোহেল তাজ স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর পদ ছেড়ে আলোচনার মধ্যমণি হয়ে ২০০৯ সালে ৯ জুন যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশে দেশ ছাড়েন। সাত মাস পরে চলতি বছরের ২৭ জানুয়ারি আবার দেশে ফিরলেও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ করে ১৫ ফেব্রুয়ারি আবার যুক্তরাষ্ট্রে চলে যান।

যুক্তরাষ্ট্রে থেকেই তিনি এলাকার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন বলে দাবি করেছেন তার ঘনিষ্টরা। স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে টেলিকনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে তিনি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন।
 
কাপাসিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আজগর রশীদ খান বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন, ‘তাজ বিদেশে অবস্থান করলেও এলাকার উন্নয়নমূলক কাজ থেমে নেই। তার নির্দেশ মতো সব কাজই হচ্ছে। প্রতি সপ্তাহেই তার সঙ্গে আমাদের ৩-৪ বার টেলিফোনে কথা হয়। ’

 ফ্যাক্স কিংবা কুরিয়ার ডাকে তিনি তার স্বাক্ষর করা সংসদ সদস্যের প্যাডে চাহিদাপত্র (ডিও লেটার) পাঠান বলেও আজগর রশীদ জানান। এছাড়া এলাকার উন্নয়নমূলক কাজে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গেও তিনি নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন।

সোহেল তাজের সঙ্গে আজগর রশীদের শেষবার কথা হয়েছে ২২ জুলাই। সোহেল তাজ আগস্টের প্রথম সপ্তাহে দেশে ফিরবেন বলে তাকে জানিয়েছেন।

তবে উল্টো ধারণা পাওয়া গেছে এলাকার ভোটারদের কাছ থেকে। পাবুর গ্রামের ব্যবসায়ী আলী আকবর বলেন, ‘আশা করেছিলাম সোহেল তাজ নির্বাচিত হয়ে এলাকাতেই থাকবেন। এলাকার উন্নয়ন করবেন। কিন্তু উনি না থাকায় উন্নয়ন হচ্ছে না। ’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘উনি আসলে দেশ নয়, আমেরিকা নিয়ে ব্যস্ত। দেশের প্রতি তার কোনো টান নেই। থাকলে দল তাকে যে ক্ষমতা দিয়েছিল, তা পায়ে ঠেলতেন না। ’

রাওতকোণা ফাজিল মাদ্রাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘উনি এলাকায় থাকলে উন্নয়ন কাজ ত্বরান্বিত হতো। ’

উদাহরণ হিসাবে তিনি জানান, তার মাদ্রাসার সীমানা প্রাচীর ও তিনটি ফটকের নির্মাণকাজে সোহেল তাজের অনুপস্থিতিতে তাকে ৩১০ সংরক্ষিত আসনের সাংসদ জাহানারা বেগমের সুপারিশ নিতে হয়েছে।

সাংসদ জাহানারা বেগম বলেন, ‘সোহেল তাজের অনুপস্থিতির কারণে তার কাজ এখন আমাকেই করতে হচ্ছে। ’

সোহেল তাজের নাটকীয় পদত্যাগে মহাজোট সরকার বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়ে। এ নিয়ে সে সময় সরকার বিভিন্ন বিবৃতি দেওয়া শুরু করে। সরকারের একাধিক মন্ত্রী তখন ‘সোহেল তাজ পদত্যাগ করেননি’ বলে দাবি করেছিলেন।

তবে গত বছরের ১৯জুন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বাংলাভাষী সংবাদ সংস্থা নিউজ ওয়ার্ল্ডকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সোহেল তাজ জানান, পদত্যাগ করেই তিনি যুক্তরাষ্ট্রে এসেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৬ ঘণ্টা, জুলাই ২৬, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa