ঢাকা, বুধবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

অর্থনীতি রক্ষায় কঠিন ও সাহসী উদ্যোগ নিয়েছে সরকার: শিক্ষামন্ত্রী

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৫৯ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০২২
অর্থনীতি রক্ষায় কঠিন ও সাহসী উদ্যোগ নিয়েছে সরকার: শিক্ষামন্ত্রী ফাইল ছবি

ঢাকা: সাম্প্রতিক সময়ে তেলের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, অর্থনীতি যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে জন্য সরকার কঠিন ও সাহসী উদ্যোগ নিয়েছে। বৈশ্বিক মহামারি এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে পৃথিবীর অনেক দেশে যখন লঙ্গরখানা খোলা হচ্ছে,  যুক্তরাজ্যের এক-তৃতীয়াংশ মানুষ দরিদ্র হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে সেই প্রেক্ষিতে সরকার এই সাহসী সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

রোববার (১৪ আগস্ট) জাতীয় প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরাম আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ‘অশ্রুঝরা আগস্টে শোকসঞ্জাত শক্তির অন্বেষা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের সভাপতি অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমানের সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আতিকুল ইসলাম, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মশিউর রহমান, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর, সর্ব ইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের সভাপতি এম নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী প্রমুখ।  

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কলামিস্ট ও সিনিয়র সাংবাদিক বিভু রঞ্জন সরকার, স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তেলের মূল্যবৃদ্ধি এবং বিদ্যুৎ  নিয়ে যারা আন্দোলন করছেন, তারা ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় এক মেগাওয়াটও বিদ্যুৎ উৎপাদন করতে পারেনি।

তিনি বলেন, মূলত বঙ্গবন্ধুর আকাশ ছোঁয়া  জনপ্রিয়তাকে বিশ্ব মোড়লরা হুমকি মনে করেছিল। তারা মুবঙ্গবন্ধু ও তার বংশধরদের ভয় পেত। তাই বিশ্ব মোড়ল ও তাদের এ দেশীয় দালালরা  বঙ্গবন্ধুকে নির্বংশ করার জন্য তাকে স্বপরিবারে হত্যা করেছিল। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর জয় বাংলা, ৭ মার্চের ভাষণ ওবা ঙালি জাতীয়তাবাদকে নিষিদ্ধ করে বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ চালু করা হয়েছিল। পাকিস্তানের আদলে বাংলাদেশ জিন্দাবাদ চালু করেছিল। শেখ রাসেল ছাড়া বঙ্গবন্ধু পরিবারের প্রত্যেকটি মানুষের চরিত্রে কালিমা লেপন করেছিল।  

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ঘাতকদের ভয় অমুলক ছিল না। শেখ হাসিনাই তার প্রমাণ। বিগত ৪৭ বছর ধরে শেখ হাসিনাকে ২১ বার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। শেখ হাসিনা তার বাবার মতোই যা বলেন, তা করেন।

তিনি বলেন, ইতোমধ্যে আমরা শোককে শক্তিতে রূপান্তর করেছি। সেখান থেকে জাগরণ হয়েছে। সে জাগরণের ফলে বাংলাদেশ আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অপ্রতিরোধ্য গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৯ ঘণ্টা, আগস্ট ১৪, ২০২২
এমআইএইচ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa