ঢাকা, শুক্রবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২১ জানুয়ারি ২০২২, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

রাজনীতি

‘ছাত্রলীগকে কঠিন কথা বলে লাভ নেই, কঠিন শাস্তি দিতে হবে’

আনছার হোসেন, জেলা প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮০২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১০
‘ছাত্রলীগকে কঠিন কথা বলে লাভ নেই, কঠিন শাস্তি দিতে হবে’

কক্সবাজার: দেশব্যাপী ছাত্রলীগ-যুবলীগের টেন্ডারবাজি দমনে আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ওবায়দুল কাদের বলেছেন, কঠিন কথা বলে লাভ নেই, কঠিন শাস্তি দিতে হবে।

শনিবার দুপুরে কক্সবাজার সার্কিট হাউজে জেলার সাংবাদিক ইউনিয়নের (একাংশ) সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।



ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এদের (ছাত্রলীগ-যুবলীগ) অপকর্মের দায় আমরা এড়াতে পারি না। তাই কঠিন কথা না বলে কঠিন শাস্তি দিতে হবে। ’

সম্প্রতি পাবনায় ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কর্মকাণ্ড সরকারের জন্য অত্যন্ত মানহানিকর হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

এ সময় বিএনপির সংসদে যোগ না দেওয়া প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘জনমতের বিরুদ্ধে আন্দোলন হলে জনবিচ্ছিন্ন হতে হবে। তারা (বিএনপি) সংসদে যোগ না দিলে সরকার ও বিরোধী দলের মধ্যে দেয়াল তৈরি হবে। ’
 
এ কারণে যদি সংসদ ও রাজনীতি দুর্বল হয়ে পড়ে, তবে দেশে জঙ্গিবাদ ও চরমপন্থা মাথাচাড়া দেবে বলেও তিনি অশঙ্কা করেন।

তবে তিনি বলেন, ‘আরেকটা ১/১১ নিয়ে আমরা বিচলিত নই। আমি বিশ্বাস করি এটা কোনো দিন হবে না। ’  

সঠিক সাংবাদিকতা ও রাজনীতির গুরুত্ব ব্যাখ্যা করতে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘গণসংযোগহীন সাংবাদিকতা ও জনসংযোগহীন রাজনীতি জাতির জন্য বেশি ভয়ঙ্কর। ’

এ সময় সংসদ সদস্য  ও সাংবাদিকদের পরস্পরের পরিপূরক হিসাবেও উল্লেখ করেন তিনি।
 
তথ্য অধিকার আইন প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এ আইনের সুবিধা যাতে সঠিকভাবে পাওয়া যায় সেজন্য সাংবাদিকদেরই ক্যাম্পেইন করতে হবে। ’

সম্প্রতি সরকারের এক উপদেষ্টা তথ্য দেবেন না বলে যে উক্তি করেছেন তা ঠিক হয়নি বলেও মনে করেন কাদের।
 
তিনি আরও বলেন, ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ মানে নেতার ভাগ্য বদল নয়, দেশের দারিদ্র্যসীমার নিচে বসবাসকারী ৪০ শতাংশ মানুষের ভাগ্য বদল। ’

উল্লেখ্য, কক্সবাজারের সাবেক সাংসদ ও রাষ্ট্রদূত মরহুম ওসমান সরওয়ার আলম চৌধুরীর স্মরণে এক নাগরিক শোকসভায় যোগ দিতে কক্সবাজার সফর করছেন ওবায়দুল কাদের।

এ সময় কক্সবাজার-৪ আসনের সাংসদ আবদুর রহমান বদি, আওয়ামী লীগ নেতা নজরুল ইসলাম চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সালাহউদ্দিন আহমদ সিআইপি, প্রচার সম্পাদক আবু হেনা মোস্তফা কামাল, সাবেক সাংসদ মোস্তাক আহমদ চৌধুরী, চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল করিম ও সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি আবু তাহের চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল কুদ্দুস রানা উপস্থিত ছিলেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa