ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

চট্টগ্রামে শিক্ষক হত্যা-নির্যাতনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৩৪ ঘণ্টা, জুলাই ৩, ২০২২
চট্টগ্রামে শিক্ষক হত্যা-নির্যাতনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামে শিক্ষক হত্যা ও নির্যাতনের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছে পিপলস ভয়েস।  

শনিবার (২ জুলাই) সন্ধ্যায়  চট্টগ্রামের চেরাগী পাহাড় মোড়ে আয়োজিত প্রতিবাদ সমাবেশ ও আলোক প্রজ্বলন কর্মসূচির মাধ্যমে এ দাবি জানানো হয়।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

নড়াইল ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে জুতার মালা পরিয়ে অপমান এবং সাভারের একটি কলেজের অধ্যাপক উৎপল কুমার সরকারকে এক শিক্ষার্থী কর্তৃক পিটিয়ে হত্যার প্রতিবাদে এ কর্মসূচির আয়োজন করা হয়।  

সমাবেশে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি অধ্যাপক আবু তাহের চৌধুরী বলেন, আমাদের সমাজ-রাষ্ট্র যে পর্যায়ে গেছে সেখানে হাজার হাজার জিতু তৈরি হয়েছে। নষ্ট রাজনীতি ও ভ্রষ্ট শিক্ষার কারণে এসব জিতু তৈরি হচ্ছে। শিক্ষায় গলদের কারণেই এ সংকট।  

তিনি আরো বলেন, শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যা ও গলায় জুতার মালা দেওয়ার পর আমরা আশা করেছিলাম শিক্ষামন্ত্রী একটা বিবৃতি দিবেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মারা যাওয়া শিক্ষকের বাড়ি ছুটে যাবেন সমবেদনা জানাতে। কিন্তু তারা তা করেননি। শুধুমাত্র ওই কলেজের পরিচালনা কমিটি ভেঙে দিয়ে তারা দায় সেরেছেন। জিুত প্রভাবশালী পরিবারের সন্তান বলে তা হয়নি।  

জাসদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন বাবুল বলেন, সারাদেশে শুধু শিক্ষকদের ওপর নয়, একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের মানুষের ওপর হামলা করা হচ্ছে, সাম্প্রদায়িক উস্কানি দেওয়া হচ্ছে। সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী চায় না ওই বিশেষ গোষ্ঠীর মানুষেরা শিক্ষকতা পেশায় আসুক। তারা শিক্ষকতায় না আসলে জামাত-শিবিরসহ সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীগুলো শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে তাদের নিরঙ্কুশ আধিপত্য বজায় রাখতে পারবে। এখন শুধু বিশেষ সম্প্রদায়ের মানুষের ওপর হামলা হয়েছে। ভবিষ্যতে প্রগতিশীল রাজনীতি যারা করেন, তাদের ওপর আক্রমণ হবে। আমাদের এখনই সচেতন হতে হবে।

জেসমিন সুলতানা পারু বলেন, মানুষ গড়ার করিগর শিক্ষককে হত্যা ও জুতোর মালা দেয়ার ঘটনায় ধিক্কার জানাই। শিক্ষক হত্যায় অভিযুক্তদের ফাঁসি চাইছি।  

বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক ড. মু. ইদ্রিস আলী বলেন, সমাজের রন্ধ্রে রন্ধ্রে সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প ঢুকে পড়ায় বারে বারে এ ধরণের ঘটনা ঘটছে। আমরা প্রগতিশীল চিন্তাভাবনা লালন করছি না। সেকারণেই এ ধরনের ঘটনা ঘটছে।  

সভাপতির বক্তব্যে পিপলস ভয়েস প্রধান শরীফ চৌহান ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, সাম্প্রদায়িক অপশক্তি বিভিন্ন সময়ে শিক্ষক, লেখকসহ প্রগতিশীল আন্দোলনের মানুষদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। অতীতে বিভিন্ন ঘটনা ঘটলেও বিচার না হওয়ার সুযোগে তারা এ ধরণের হামলা নির্যাতন বার বার করছে। তিনি অবিলম্বে শিক্ষক নির্যাতন ও হামলার সঙ্গে যুক্তদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন।     
   
পিপলস ভয়েসের সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সংহতি জানিয়ে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিপিবি চট্টগ্রাম জেলার সভাপতি অধ্যাপক অশোক সাহা, প্রকৌশলী দেলোয়ার মজুমদার, সাংবাদিক প্রদীপ দেওয়ানজী, সংস্কৃতিকর্মী রোকসানা বন্যা, শিক্ষক মার্গারেট মনিকা জিন্স, অধ্যাপক মিনু মিত্র, শিক্ষক স্বপন কুমার সাহা, বিবি কাউসার, উন্নয়নকর্মী উৎপল বড়ুয়া, শিপ্রা দাশ প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ০১৩৪ ঘণ্টা, জুলাই ০৩, ২০২২
এমএমআই/জেআইএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa