ঢাকা, শনিবার, ৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২০ আগস্ট ২০২২, ২১ মহররম ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

বিএম ডিপো: ডিএনএ টেস্টে ৮ মরদেহের পরিচয় শনাক্ত 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৭ ঘণ্টা, জুলাই ৭, ২০২২
বিএম ডিপো: ডিএনএ টেস্টে ৮ মরদেহের পরিচয় শনাক্ত  বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ড। ফাইল ছবি

চট্টগ্রাম: সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ও বিস্ফোরণের ঘটনায় ৫১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হলেও পরিচয় মেলেনি ২২ জনের। নিহতদের শনাক্তে স্বজনদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহের মধ্যে ৮ জনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে।

সীতাকুণ্ড থানার পরিদর্শক (তদন্ত) সুমন বণিক বাংলানিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।  

তারা হলেন- আখতার হোসেন, আবুল হাশেম, মনির হোসেন, বাবুল মিয়া, সাকিব, মো. রাসেল, মো. শাহজাহান ও আব্দুস সোবহান প্রকাশ আব্দুর রহমান।

সুমন বণিক বাংলানিউজকে বলেন, ডিএনএ টেস্টের মাধ্যমে ৮ জনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। তাদের পরিবার কাছে খবর দেওয়া হয়েছে। তাদের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। নিহত ৫১ জনের মধ্যে আগে ২৯ জনের মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছিল, এই ৮ জনসহ ৩৭ জনের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। আরও ১৪ জনের মরদেহ রয়েছে।  

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে কর্মরত জেলা পুলিশের উপসহকারী পরিদর্শক (এএসআই)  আলাউদ্দিন তালুকদার বাংলানিউজকে বলেন, আটজনের পরিচয় শনাক্ত হওয়ার মধ্যে দুইজনের স্বজন হাসপাতালে এসেছেন। সিনিয়র স্যারদের উপস্থিতিতে মরদেহগুলো পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের সামনের বুথে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ফরেনসিক ল্যাবের টিম মরদেহের পরিচয় শনাক্ত করতে গত ৯ জুন পর্যন্ত ১৯টি মরদেহ ও ২৩ জনের বিপরীতে ৪৩ জনের কাছ থেকে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করেছিল।  

সীতাকুণ্ড উপজেলার সোনাইছড়ি ইউনিয়নে বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণ ও অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে গত ৪ জুন রাতে। ৯ জুন সকাল সোয়া ১১টার দিকে উদ্ধারকাজের সমাপ্ত ঘোষণা করে সীতাকুণ্ড ফায়ার সার্ভিস। এ ঘটনায় ৫১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পাশাপাশি আহত হয়েছেন দেড় শতাধিক।  

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৭ ঘণ্টা, জুলাই ০৭, ২০২২
এমআই/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa