ঢাকা, শুক্রবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ আগস্ট ২০২২, ১৩ মহররম ১৪৪৪

চট্টগ্রাম প্রতিদিন

কাস্টমসের নিলামে বিক্রি হলো ৩৪টি বিলাসবহুল গাড়ি

আল রাহমান, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৭ ঘণ্টা, জুলাই ৭, ২০২২
কাস্টমসের নিলামে বিক্রি হলো ৩৪টি বিলাসবহুল গাড়ি কার্নেট ডি প্যাসেজ সুবিধায় বন্দরে নিলামে ওঠা গাড়ি।

চট্টগ্রাম: কার্নেট ডি প্যাসেজ সুবিধায় চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে আমদানি করা অখালাসকৃত ১০৮টি গাড়ির নিলাম প্রক্রিয়ায় ছাড়পত্র পাচ্ছে ৩৪টি বিলাসবহুল গাড়ি। এর মধ্যে মার্সিডিজ, বিএমডব্লিউ, জাগোয়ার, টয়োটা ল্যান্ড ক্রুজার, রেঞ্জ রোভার, মিতসুবিশি, ফোর্ড, লেক্সাস ব্রান্ডের গাড়ি রয়েছে।

 

গাড়িগুলোর সর্বোচ্চ বিড মূল্য ছিল ৬১ লাখ ১৫ হাজার ৭০০ টাকা। ৩৪টি গাড়ির বিক্রয় মূল্য ৯ কোটি ২৮ লাখ ২ হাজার ২০০ টাকা। ১০ শতাংশ অগ্রীম আয়কর বাবদ ৯২ লাখ ৮০ হাজার ২২০ টাকা এবং সাড়ে ৭ শতাংশ মূল্য সংযোজন কর বাবদ ৬৯ লাখ ৬০ হাজার ১৬৫ টাকাসহ মোট মূল্য দাঁড়ায় ১০ কোটি ৯০ লাখ ৪২ হাজার ৫৮৫ টাকা। অগ্রীম আয়কর ও মূল্য সংযোজন করসহ প্রতিটি গাড়ির গড় বিক্রয় মূল্য ৩২ লাখ ৭ হাজার ১৩৪ টাকা।

বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) বাংলানিউজকে এসব তথ্য জানান চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের ডেপুটি কমিশনার আলী রেজা হায়দার।

তিনি জানান, গত ২৭ জুন অনুষ্ঠিত নিলাম কমিটির সভায় দাখিল করা দরপত্রগুলোর কমপারেটিভ লিস্ট ও হায়েস্ট লিস্ট, আগের টেন্ডার সেলে সর্বোচ্চ উদ্বৃত্ত দর পর্যালোচনা করে ৩৪টি গাড়ির নিলাম অনুমোদন করা হয়। একই সঙ্গে ৭৪টি গাড়ির নিলাম অননুমোদনপূর্বক পরে পুনরায় নিলামের সুপারিশ করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমদানি নীতি আদেশের শর্ত পরিপালন, মামলার তথ্য যাচাই, শুল্কায়ন শাখার অনাপত্তি সাপেক্ষ গত ৫ জুলাই ৩৪টি গাড়ির বিক্রয় আদেশ জারি করা হয়েছে। সর্বোচ্চ দরদাতার অনুকূলে ৬ জুলাই ডেলিভারি অর্ডার (ডিও) জারি করা হয়েছে।  

গাড়িগুলো নিলামে বিক্রির লক্ষ্যে কাস্টম হাউস নিজস্ব উদ্যোগে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ক্লিয়ারেন্স পারমিট (সিপি) সংগ্রহ করেছে। তাই ক্রেতাকে নতুন করে সিপি সংগ্রহ করতে হবে না।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৫ ঘণ্টা, জুলাই ০৭, ২০২২
এআর/টিসি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa