ঢাকা, রবিবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২২ মে ২০২২, ২০ শাওয়াল ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের সঙ্গে পিওসিএলের চুক্তি

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০২১
বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের সঙ্গে পিওসিএলের চুক্তি

ঢাকা: দেশে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) খাতে ১৯৯৯ সাল থেকে কাজ করে যাচ্ছে বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেড। এখন পর্যন্ত প্রায় ২শটি স্টেশনের সঙ্গে চুক্তি সম্পাদিত হয়েছে এবং আরও ২শটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

 এরই ধারাবাহিকতায় এবার এলপিজির বাজার বাড়াতে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) সাবসিডিয়ারি পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিমিটেডের (পিওসিএল) সঙ্গে কাজ করবে বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেড।  

এ লক্ষ্যে রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৩টায় রাজধানীর কারওয়ানবাজারে অবস্থিত পিওসিএলের অফিসে আয়োজিত হয় এক চুক্তি সই অনুষ্ঠান। এখন থেকে পিওসিএলের নিবন্ধিত ফিলিংস্টেশনগুলোতে এলপিজি পাম্প স্থাপন ও অটোগ্যাস সরবরাহ করবে বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেড।

অনুষ্ঠানে চুক্তিতে সই করেন মো. মাসুদুর রহমান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক, পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিমিটেড এবং জাকারিয়া জালাল, হেড অব সেলস, বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেড।  এ সময় পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিমিটেডের পক্ষ থেকে আরও উপস্থিত ছিলেন নুমান তাপাদার (মহাব্যবস্থাপক), সোহেল আব্দুল্লাহ মহাব্যবস্থাপক (মার্কেটিং) এবং বিপিসির পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন মো. আহম্মদুল্লাহ (ডেপুটি ম্যানেজার, পারসোনাল সেক্রেটারি, বিপিসি চেয়ারম্যান)।  

বসুন্ধরা এলপি গ্যাসে লিমিটেডের পক্ষে উপস্থিত ছিলেন আতাউর রহমান (এজিএম, সেলস), কাজী রোকন উদ্দিন (ম্যানেজার, মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশনস) এবং মো. এনামুল হক (এক্সিকিউটিভ ইঞ্জিনিয়ার, বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেড)।

অটোগ্যাস বা এলপিজি ইতোমধ্যেই বিশ্বজুড়ে পরিবেশবান্ধব জ্বালানি হিসেবে অত্যন্ত জনপ্রিয় ও প্রশংসিত।  এ চুক্তির মাধ্যমে বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেড সারা দেশের যানবাহনে ব্যবহারের জন্য পরিবেশবান্ধব জ্বালানি অটো এলপিজি দ্রুত প্রবেশের বিষয়টি নিশ্চিত করতে পারবে।

অনুষ্ঠানে দেশের সর্ববৃহৎ এলপিজি সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা এলপি গ্যাস  লিমিটেডের পক্ষ থেকে বলা হয়, পদ্মা অয়েল কোম্পানি লিমিটেডের সঙ্গে চুক্তি সম্পাদন করতে পেরে আমরা আনন্দিত। বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) সাবসিডিয়ারি হিসেবে পিওসিএল বিভিন্ন ধরনের পেট্রোলিয়াম পণ্য, লুব্রিক্যান্ট, বিটুমিন ও এলপিজি বাজারজাত করে। বর্তমানে দেশব্যাপী কোম্পানিটির ৬৯৭টি ফিলিংস্টেশন রয়েছে।

অনুষ্ঠানে বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের হেড অব সেলস জাকারিয়া জালাল বসুন্ধরা এলপি গ্যাস লিমিটেডের বর্তমান এলপিজি আমদানি, সংরক্ষণ, সিলিন্ডার প্রস্তুতকরণ এবং সরবরাহ সক্ষমতা তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, উল্লেখযোগ্য মার্কেট শেয়ারের অধিকারী পিওসিএলের সঙ্গে এলপিজি ইন্ডাস্ট্রিতে সর্ববৃহৎ প্রতিষ্ঠান বসুন্ধরা এলপি গ্যাসের চুক্তি সই একটি মাইলফলক হিসেবে থাকবে। এই চুক্তির আওতায় বাংলাদেশে প্রথাগত ফুয়েলের বিপরীতে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে স্বীকৃত সম্পন্ন এবং অধিক নিরাপদ অটোগ্যাস বাজারজাত করণের জন্য দুই পক্ষই একসঙ্গে কাজ করবে।

পণ্য বৈচিত্রতায় এবং বাজারজাতকরণে বসুন্ধরা যেভাবে কাজ করে আসছে, অটোগ্যাসখাতেও বসুন্ধরা তার শ্রেষ্ঠত্ব বজায় রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮১৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৭, ২০২১
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa