ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

অর্থনীতি-ব্যবসা

অনলাইন রিয়েল হিরোস অ্যাওয়ার্ড পেলেন ইকবাল বিন আনোয়ার

বিজনেস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৫৮ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৪, ২০২১
অনলাইন রিয়েল হিরোস অ্যাওয়ার্ড পেলেন ইকবাল বিন আনোয়ার

ঢাকা: ‘অনলাইন রিয়েল হিরোস অ্যাওয়ার্ড-২০২১’ পেলেন এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার (ডন)। তিনি দেশের শীর্ষ ইলেকট্রনিক্স ও অটোমোবাইলস পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের জ্যেষ্ঠ নির্বাহী পরিচালক (গেমস অ্যান্ড স্পোর্টস) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

মিরর ম্যাগাজিনের উদ্যোগে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ পুরস্কারে ভূষিত হন তিনি।

১ সেপ্টেম্বর রাজধানীর একটি হোটেলে জমকালো অনুষ্ঠান আয়োজনের মধ্য দিয়ে মিরর এই পুরস্কার তার হাতে তুলে দেন। ৪ ক্যাটাগরিতে দেশের গণ্যমান্য ৫৬জনকে রিয়েল হিরোস অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করা হয়েছে। ইকবাল বিন আনোয়ার ‘ফ্রন্টলাইন হিরোস’ এ ক্যাটাগরিতে পুরস্কৃত হন।

সাবেক ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী শ্রী বীরেন শিকদার (এমপি) ইকবাল বিন আনোয়ারের হাতে ফ্রন্টলাইন হিরোস অ্যাওয়ার্ডটি তুলে দেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. হাসান মুরাদ।

অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, মিরর ম্যাগাজিনের ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং অনুষ্ঠানের আয়োজক মালা খন্দকার, বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুল সালাম মুর্শেদী (এমপি) ছাড়াও বিনোদন জগতের নামিদামি তারকারা।

ইকবাল বিন আনোয়ার ডন বলেন, আমি মনে করি যে কোনো পুরস্কার হলো কাজের স্বীকৃতি। মিরর ম্যাগাজিন আমাকে যে পুরস্কারে ভূষিত করেছে এটি পেয়ে সত্যিই আমি ভীষণ আনন্দিত, গর্বিত। ওয়ালটনের জন্যই মূলত পুরস্কারটি অর্জন করা আমার পক্ষে সম্ভব হয়েছে। এই গর্বের ভাগিদার শুধু আমি একা নই। এ সম্মান আমাদের পুরো ওয়ালটন পরিবারের। আমি মনে করি আমরা ওয়ালটন পরিবার পৃষ্ঠপোষক না, ইনভেস্টর। আর এ ইনভেস্টের ফল তখনই আমরা হাতে পাব, যখন দেশের কোনো ক্রীড়াবিদ বিশ্ব দরবার থেকে বাংলাদেশের জন্য সাফল্য-সম্মান বয়ে আনবে।

আনন্দের সঙ্গে তিনি বলেন, পুরস্কার কাজের গতি-পরিধিকে আরও বাড়িয়ে দেয়। অনলাইন রিয়েল হিরোস পুরস্কারটি আমার কাজের গতিকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। মিরর ম্যাগাজিনের সম্মানিত ভাইস প্রেসিডেন্ট মালা খন্দকারকে আমি বিশেষ ধন্যবাদ জানাতে চাই এমন একটি বিরল সম্মানে আমাকে ভূষিত করার জন্য।

মালা খন্দকার বলেন, এবারই প্রথম পুরস্কারটি চালু হয়েছে। প্রথমবারই বিভিন্ন মহল থেকে আমরা ব্যাপক উৎসাহ, সহযোগিতা পেয়েছি। এখন থেকে এটি প্রতি বছরই আয়োজনের ইচ্ছা রয়েছে আমাদের।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৭ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৪, ২০২১
জেডএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa